Mountain View

কী সহযোগিতা চায় বাংলাদেশ, জানতে সংলাপে আসছে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৬ at ১২:৩৫ অপরাহ্ণ

download
ঢাকা: আসছে ২ অক্টোবর ঢাকায় হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার ৫ম নিরাপত্তা সংলাপ। যুক্তরাষ্ট্রের কাছে বাংলাদেশ কোন ধরনের সহযোগিতা চায় সেখানে এ বিষয়ে আলোচনা থাকছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, বাংলাদেশকে যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া নিরাপত্তা সহযোগিতার বিষয়টিই আলোচনার শীর্ষে থাকবে। এক্ষেত্রে মূলত নিরাপত্তা সহযোগিতার ক্ষেত্রে ঢাকার চাহিদাগুলো সম্পর্কেই জানতে আগ্রহী ওয়াশিংটন।

দিনব্যাপী ওই সম্মেলনে যোগ দিতে ঢাকা আসছে একটি মার্কিন প্রতিনিধিদল। প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের রাজনৈতিক-মিলিটারি বিষয়ক প্রিন্সিপাল ডেপুটি অ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি টিনা কাইডানাও। মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের কর্মকর্তাদের পাশাপাশি দেশটির সশস্ত্র বাহিনীর কর্মকর্তারাও থাকবেন ওই প্রতিনিধিদলে।

আর বৈঠকে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেবেন অতিরিক্ত পররাষ্ট্র সচিব (দ্বিপাক্ষিক ও কনস্যুলার) কামরুল আহসান। এতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, দ‍ুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়সহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিনিধিরাও অংশ নেবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও মার্কিন দূতাবাস সূত্র বলছে, নিরাপত্তা সংলাপের মাধ্যমে দু’দেশের মধ্যে মতবিনিময়ের সুযোগ সৃষ্টি হয়। এর মাধ্যমে বৃহৎ পরিসরে রাজনৈতিক, সামরিক বিষয়ে দ্বি-পক্ষীয় সহযোগিতা বৃদ্ধি ও শক্তিশালী করার কাজকে এগিয়ে নেওয়া এবং শান্তিরক্ষায় অংশীদারিত্ব, যৌথ সামরিক অনুশীলন ও বিনিময়, সন্ত্রাসবাদ প্রতিরোধ, নিরাপত্তা বিষয়ে সহযোগিতা বাড়ানোর জন্যে এ সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।

গত ১ জুলাই গুলশানের জঙ্গি হামলাসহ সাম্প্রতিক বিভিন্ন হামলার পরিপ্রেক্ষিতে সন্ত্রাস দমনে বাংলাদেশকে বিভিন্ন সহায়তার প্রস্তাব দেয় যুক্তরাষ্ট্র। তবে নিজেদের প্রয়োজনীয়তার কথা ভেবে চিন্তে ওয়াশিংটনকে জানানোর প্রতিশ্রুতি দেয় ঢাকা।

এবারের নিরাপত্তা সংলাপে বিশেষভাবে সেই চাহিদার কথা জানতে চাইবে যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি জঙ্গি নির্মূলে বাংলাদেশের নেওয়া পদক্ষেপের বিষয়েও জানার আগ্রহ থাকবে দেশটির।

সূত্র বলছে, নিরাপত্তা সংলাপে কৌলশগত অগ্রাধিকারমূলক ইস্যু ও আঞ্চলিক বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা হবে। সেই সঙ্গে নিরাপত্তা ইস্যুতে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য দেশের সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়েও আলোচনা হবে।

এছাড়া বৈঠকে দ্বি-পক্ষীয় সশস্ত্র বাহিনী ও নিরাপত্তা সহযোগিতার বিষয়াদি, বৈশ্বিক নিরাপত্তা ইস্যু, জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন, শান্তি প্রতিষ্ঠা প্রক্রিয়া, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবেলা, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি, ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা এবং উদ্ভ‍ূত পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়েও আলোচনা হবে।

নিরাপত্তা বৈঠকে বাংলাদেশ মানবিক নিরাপত্তা বিষয়ের ওপর গুরুত্ব দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বাংলাদেশ। বন্যা, ঘূর্ণিঝড়ের মতো বিষয় থেকে মানবিক নিরাপত্তা ঝুঁকি মোকাবেলার কৌশল নিয়েও আলোচনা হবে।

জানা যায়, অংশীদারিত্ব সংলাপটি চারটি ধাপে অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। প্রথম ধাপে কৌলশগত অগ্রাধিকার ও আঞ্চলিক ইস্যু, দ্বিতীয় ধাপে দ্বি-পক্ষীয় সশস্ত্র বাহিনী ও নিরাপত্তা ইস্যুতে সহযোগিতা, তৃতীয় ধাপে বৈশ্বিক নিরাপত্তা এবং সর্বশেষ ধাপে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ মোকাবেলা ও শান্তিরক্ষা বিষয়ে আলোচনা হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, বাংলাদেশকে দেওয়া প্রস্তাবগুলোতে পুলিশের সাংগঠনিক সক্ষমতা বৃদ্ধি, গোয়েন্দা তথ্য আদান-প্রদান, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের জঙ্গিবাদ দমনের প্রশিক্ষণ, জঙ্গি দমনে কৌশল নির্ধারণ, জঙ্গি মতাদর্শ রোধে সচেতনতা বৃদ্ধির কৌশলসহ নিরাপত্তা ছক সাজানোসহ বিভিন্ন প্রযুক্তি ও কৌশলগত সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এর আগে গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চতুর্থ নিরাপত্তা সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়।

আর ২০১৪ সালের ২২ এপ্রিল তৃতীয় সংলাপ অনুষ্ঠিত হয় ঢাকায়। ২০১২ সালের এপ্রিলে ঢাকায় প্রথম নিরাপত্তা সংলাপ হয়।

আর ওয়াশিংটনে ২০১৩ সালের এপ্রিলে হয় দ্বিতীয় নিরাপত্তা সংলাপ।

বাংলাদেশ সময়: ০০৫৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৬

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View