Mountain View

ইমাদের ঘূর্ণিতে চূর্ণ ওয়েস্ট ইন্ডিজ

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৬ at ১০:২৪ পূর্বাহ্ণ

পাকিস্তানের প্রথম স্পিনার হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে পাঁচ উইকেট নিলেন ইমাদ ওয়াসিম। পাকিস্তানি বাঁহাতি স্পিনারের ঘূর্ণিতে চূর্ণ বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটিং।pakistan_11474686874দুবাইয়ে শুক্রবার রাতে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে মাত্র ১১৫ রানে গুটিয়ে দিয়ে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে জিতেছে পাকিস্তান।

এই জয়ে সরফরাজ আহমেদের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান তিন ম্যাচ সিরিজে এগিয়ে গেল ১-০ ব্যবধানে।

পাকিস্তান এ নিয়ে টি-টোয়েন্টিতে টানা দুটি ৯ উইকেটের জয় পেল। ইংল্যান্ড সফরে একমাত্র টি-টোয়েন্টিতেও একই ব্যবধানে জিতেছিল তারা।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছিল পাকিস্তান। ব্যাট করতে নেমে ইমাদ ওয়াসিমের ঘূর্ণিতে শুরুতেই চাপে পড়ে ক্যারিবীয়রা।

ইমাদের করা ইনিংসের পঞ্চম বলেই ডিপ মিড উইকেটে মোহাম্মদ নাওয়াজকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন এভিন লুইস। বাঁহাতি স্পিনার নিজের দ্বিতীয় ওভারে এসে হানেন জোড়া আঘাত, তিন বলের ব্যবধানে সাজঘরে আন্দ্রে ফ্লেচার ও মারলন স্যামুয়েলস।

পরের ওভারে নাওয়াজের বলে বোল্ড জনসন চার্লস। তার পরের ওভারে হাসান আলীর বলে ফিরে যান নিকোলাস পূরানও। তখন ২২ রানেই ৫ উইকেট নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের!

এরপর ইনিংসের একাদশতম ওভারে আবার জোড়া আঘাত হানেন ইমাদ। তৃতীয় বলে কাইরন পোলার্ডকে বোল্ড করার পর পঞ্চম বলে কার্লোস ব্রাফেটকে খালিদ লতিফের ক্যাচ বানিয়ে বিদায় করেন। আর ব্রাফেটকে বিদায় করেই ওমর গুলের পর দ্বিতীয় পাকিস্তানি বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে পাঁচ উইকেট-কীর্তি গড়েন ইমাদ।

পরের ওভারে সুনীল নারিন রানআউটে কাটা পড়লে ৪৮ রানের মধ্যে ৮ উইকেট হারিয়ে তো নিজেদের সর্বনিম্ন রানের লজ্জার মুখে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে নবম উইকেটে জেরোম টেলরের সঙ্গে ডোয়াইন ব্রাভোর বিশ্ব রেকর্ড জুটিতে (৬৬ রান) শেষ পর্যন্ত লজ্জা এড়ায় ক্যারিবীয়রা।

ইনিংসে শেষ ওভারের দ্বিতীয় ও পঞ্চম বলে টেলর-ব্রাভোকে বিদায় করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস গুটিয়ে দেন সোহেল তানভীর। ব্রাভো (৫৫) টেলর (২১) ছাড়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের আর কেউই দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি!

৪ ওভারে মাত্র ১৪ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট নেন ইমাদ। ২৬ রানে ২ উইকেট সোহেল তানভীরের। নাওয়াজ ও হাসান আলী নেন একটি করে উইকেট।

১১৬ রান তাড়া করতে নেমে শুধুমাত্র শারজিল খানের (২২) উইকেট হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় পাকিস্তান। দ্বিতীয় উইকেটে অবিচ্ছিন্ন ৮৮ রানের জুটিতে ৩৪ বল বাকি থাকতেই দলের জয় নিশ্চিত করেন খালিদ লতিফ (৩২ বলে ৩৪) ও বাবর আজম (৩৭ বলে ৫৫)।

bsnsj

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View