ঢাকা : ৩০ মে, ২০১৭, মঙ্গলবার, ৭:২২ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

শততম জয়ের অপেক্ষায় বাংলাদেশ ক্রিকেট

মো.জিহান মিয়া:-অচিরেই ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আলোচিত সিরিজে মাঠে নামছে বাংলাদেশ। ইনজুরির কারণে সিরিজটি মিস করছেন কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। তাই নতুন আর কোনো সমস্যার সৃষ্টি হোক, তা চাইছে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। কারণ, সেখানে টাইগার ক্রিকেটারদের অনেক কিছু প্রমাণের রয়েছে। তবে ইংল্যান্ড সিরিজের আগে বোনাস হিসেবে মাশরাফিরা পাচ্ছেন আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। আফগানদের বিপক্ষে এ সিরিজকে প্রস্তুতির বড় মঞ্চ হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্টরা। যুদ্ধবিধস্ত দেশটির বিপক্ষে একটি বড় জয় অর্জনের অপেক্ষায় রয়েছে বাংলাদেশ দল। কারণ সামনে রয়েছে শততম ওয়ানডে ম্যাচ জয়ের হাতছানি। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম দুটিতে জিতে গেলেই অনন্য এক অর্জন হবে বাংলাদেশের ক্রিকেটের। আর তিনটি ম্যাচ জিতলে ওয়ানডে ম্যাচে জয়ের সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়াবে ১০১! যা নিয়ে বেশ আলোড়িত এখন ক্রিকেটাররা।

এদিকে বাংলাদেশ পুরুষ ফুটবল দলের অবস্থা করুণ হওয়ায় প্রতিনিয়তই চাপ বাড়ছে ক্রিকেট দলের ওপর। তবে ক্রিকেট দল সে দায়িত্ব বেশ ভালোভাবেই পালনের চেষ্টা করে যাচ্ছে। তা ছাড়া এবার আনন্দের নতুন এক উপলক্ষের পালা। তাই ঈদের ছুটি কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করছেন খেলোয়াড়েরা।

আফগানিস্তান ও ইংল্যান্ড- দুটি সিরিজই আলাদা গুরুত্ব বহন করছে টাইগারদের জন্য। এর যেকোনো একটিতে ইতিহাস লিখে ফেলতে পারেন মাশরাফিরা।

১৯৮৬ সালের ৩১ মার্চ প্রথম ওয়ানডে ম্যাচ খেলে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে অনুষ্ঠিত এ অভিষেক ম্যাচে প্রতিপক্ষ পাকিস্তানের কাছে ৬ উইকেটে হেরে যায় বাংলাদেশ। এরপর ৩০ বছর ধরে খেলে চলেছে টাইগাররা। শুরুতে পরাজয়ই সঙ্গী ছিল নিয়মিত।

তবে এক যুগ পর ১৯৯৮ সালের ১৭ মে মোহাম্মদ রফিকের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে প্রথম জয় পায় বাংলাদেশ। ভারতের মাটিতে  শক্তিশালী প্রতিপক্ষ কেনিয়ার বিপক্ষে প্রথম হাসি হাসে টেস্ট ক্রিকেটের ১০ নম্বর দলটি। তারপরও কয়েক বছর সেভাবে নিয়মিত জয় না পেলেও এখন তা কেটে গেছে। জয় পাওয়াটা এখন অভ্যাসে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশের। আর মাশরাফি বিন মুর্তজার দলের সর্বশেষ ওয়ানডে জয় আসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। গত বছরের ১৫ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে জয় আসে ৬১ রানে। এরপর থেকে ১০ মাসেরও বেশি সময় ধরে রঙিন পোশাকে মাঠে নামা হয়নি। দীর্ঘ সময়ের বিরতির পর ২৫  সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের বিপক্ষে আবারও মাঠে নামছে বাংলাদেশ।

এক দিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের পর গত তিন দশকে বাংলাদেশ ১৮টি দেশের বিপক্ষে খেলেছে। ৩১২ ওয়ানডেতে মাঠে নেমে জিতেছে ৯৮টিতে। ২১০ ম্যাচে পরাজয়ের বিপরীতে টাই হয়েছে ৪টি ম্যাচ। সবচেয়ে বেশি ৬৭টি ওয়ানডে খেলেছে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। সেখানে ৩৯ জয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশ পরাজিত হয় ২৮টি ম্যাচে।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে দুটি ওয়ানডে খেলেছে বাংলাদেশ। তবে এবার প্রথমবারের মতো খেলছে ওয়ানডে সিরিজ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩ জয়ের দুটি আবার বিশ্বকাপে। ২০১১ সালে ঘরের মাটিতে এবং ২০১৫ সালে অ্যাডিলেডের ঐতিহাসিক জয়টি বাংলাদেশকে ঠাঁই করে দিয়েছিল প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ক্রিকেটের কোয়ার্টার ফাইনালে।

এমন সাফল্যের রেশ ধরে আরও সাফল্য পেতে চায় বাংলাদেশ। সে কারণে বাংলাদেশকে সমীহ করেছে ইংল্যান্ড। এ সমীহ কেবল বাংলাদেশের সাফল্যের কারণে।

এ সম্পর্কিত আরও

Best free WordPress theme

Check Also

২ উইকেট পেয়েও ওয়ানডে ম্যাচসেরা নাজমুল হোসেন

জুবায়ের আহমেদ: ২০০৯ সাল। জিম্বাবুয়ের সাথে দেশের মাটিতে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের ৪র্থ ম্যাচ চট্টগ্রামের …

আপনার-মন্তব্য