Mountain View

বাংলাদেশ আস্তে আস্তে বড় দল হয়ে উঠছে!

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৬ at ১২:১২ পূর্বাহ্ণ

20160926064615

টাইমস স্পোর্টসঃ বাংলাদেশকে কোনঠাসা অবস্থায় রেখেও ম্যাচ জিততে পারেনি অতিথি আফগানিস্তান। রবিবার আফগানরা যেভাবে সংগ্রাম করে হেরেছে, এমন অনেক ম্যাচেই সংগ্রাম করেছে বাংলাদেশ। বড় দলগুলোর বিপক্ষে জিততে জিততে হেরে গেছে লাল-সবুজরা। গত কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশের ক্রিকেটের চিত্রনাট্য বদল হয়েছে। এখন বড় দলগুলোর বিপক্ষেও গর্জন তুলতে পারে টাইগাররা। আগে প্রতিপক্ষকে কোনঠাসা করেও জয়ের দেখা পেতো না টাইগাররা, এখন কোনঠাসা হয়ে জয় ছিনিয়ে আনতে শিখে গেছে সাকিব-মাশরাফিরা।

 

অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপে পর থেকেই মূলত বদলে যায় টাইগারদের শারীরিক ভাষা। ভয়-ডরহীন ভাবে ক্রিকেট খেলে বিশ্বের বাঘা বাঘা দলকে হারিয়ে দিয়েছে টাইগাররা। গত বছর পাকিস্তান-ভারত-দক্ষিণ আফিকার মতো বড় দলগুলোকে নাস্তানাবুদ করেছে তারা। এমনকি র‌্যাংকিংয়ে প্রথমবারের মতো সাতে উঠেছে তারা। যার ফলে আগামী বছর ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলার সুযোগ পেয়েছে লাল-সবুজরা।

 

রবিবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে বড় দল হয়ে উঠার প্রমাণ রাখলো মাশরাফিরা। কঠিন পরিস্থিতে পড়েও ম্যাচ জিতেছে তারা। বাংলাদেশের সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান রবিবার ম্যাচ শেষে বলেছিলেন, ‘বাংলাদেশ অভিজ্ঞতার কারণেই জিতেছে। দলে অনেক ক্রিকেটার আছে, যাদের প্রচুর ওয়ানডে খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে। যার কারণে কঠিন পরিস্থিতে পড়েও আমরা ম্যাচ বের করতে পেরেছি।’ সাকিবের মূল কথা হচ্ছে-বাংলাদেশ শিখে গেছে, ম্যাচ কীভাবে জিততে হয়।

 

সামগ্রিক বিচারে সাকিবের কথার সত্যতা এমনই। অতি সম্প্রতি পরিসংখ্যান বিবেচনায় নিলে ২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ কিংবা ২০১২ সালের এশিয়া কাপের ফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ের দ্বারপ্রান্তে গিয়ে বাংলাদেশ ম্যাচ হেরেছে। মূলত প্রতিপক্ষের অভিজ্ঞতার কারণেই হার মানে লাল-সবুজ।

 

তবে পরিস্থিতে এখন বদলেছে। বাংলাদেশ এখন ক্রিকেট বিশ্বের নতুন জায়ান্ট হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের কথাতেও বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। ম্যাচের পরদিন অনুশীলন শেষে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন তিনি। সেখানে তিনি বলেছেন, ‘সত্যিই আমরা বড় দল হয়ে উঠছি। আমরা এমন অনেক ক্লোজ ম্যাচ কাছে গিয়ে হেরেছি। ছোট ছোট ভুলের কারণে কাছে গিয়েও হেরে যেতাম। আমার মনে হয় এখন পরিবর্তনটা চলে এসেছে। আস্তে আস্তে আমাদের মধ্যেও পরিবর্তনটা গড়ে উঠছে। আশা করছি এটা আমরা অব্যাহত রাখতে পারব এবং আরও ভালো ক্রিকেট খেলতে পারব।’

 

ছোটদলগুলোর বিপক্ষে ম্যাচ খেলা সব সময়ই চাপের। কেননা হেরে গেলে পয়েন্ট হারানোর ভয় থাকে। এটা স্বীকার করে রিয়াদ বলেছেন, ‘যথেষ্ট সম্মান দিয়েই বলতে চাই আফগানিস্তানও অনেক ভালো দল। তবে আমরা যদি ভালো ক্রিকেট খেলতে পারতাম, সেক্ষেত্রে আরও ভালোভাবে জেতা যেত। তারপরও বলবো ছোট দলের বিপক্ষে খেলাটা এক প্রকার চাপেরই।’

এ সম্পর্কিত আরও

আপনিও লিখুন .. ফিচার কিংবা মতামত বিভাগে লেখা পাঠান [email protected] এই ইমেইল ঠিকানায়
সারাদেশ বিভাগে সংবাদকর্মী নেয়া হচ্ছে। আজই যোগাযোগ করুন আমাদের অফিশিয়াল ফেসবুকের ইনবক্সে।