Mountain View

মাশরাফির বোলিং, অধিনায়কত্বে মুগ্ধ ওয়ালশ

প্রকাশিতঃ সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৬ at ৫:০৫ অপরাহ্ণ

20160927170113ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্বর্ণালী সময়ের সাক্ষী কোর্টনি ওয়ালশ। অনেকটা সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে সার্ভিস দিয়েছেন ডানহাতি এ পেসার।

এখনও ওয়েস্ট ইন্ডিজের টেস্ট ও ওয়ানডের শীর্ষ উইকেট শিকারী বোলার ওয়ালশ। প্রাক্তনএ ক্রিকেটারের বর্তমান পরিচয় তিনি বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেস বোলিং কোচ। রোববার ছিল তার প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট। জয় দিয়ে কাজ শুরু করতে পারায় ওয়ালশ খুশি। তবে বিশেষ খুশি মাশরাফি বিন মু্র্তজাকে নিয়ে।
মাশরাফির বোলিং ও অধিনায়কত্ব ওয়ালশকে মুগ্ধ করেছে। দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েজয়ের স্বাদ দেওয়ায় টাইগার দলপতির প্রশংসা করেছেন ওয়ালশ। পাশাপাশি সাকিবের ৪৭তম ওভারকে ওয়ালশ বলছেন ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। সব মিলিয়ে ওয়ালশ আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটি ড্রেসিং রুমে বসে বেশ উপভোগ করেছেন। রোববার ওয়ালশ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন।মাশরাফিকে নিয়ে ওয়ালশ বলেন, ‘অধিনায়ক দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছে। নিজ কাঁধে দায়িত্ব নিয়েছে অনেক সময়। এটা সত্যিই অসাধারণ। বোলিংয়ে অন্যদের থেকে ভালো করেছে।
সত্যিই তার পারফরম্যান্সে মুগ্ধ।’বাকি দুই পেসার রুবেল ও তাসকিনকে নিয়ে ওয়ালশ বলেছেন, ‘দুই পেসার ভালো করেছে। তাসকিন বাড়তি নজর কেড়েছে। আইসিসি থেকে বৈধতা পাওয়ার পর তার প্রথম ম্যাচ ছিল। চাপে ছিল ও। তারপরও সে ভালো করেছে। শুরুতে অনেক কিছুর চেষ্টায় উলট-পালট হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু পরবর্তীতে সে ফিরে এসেছে। এজন্য তাকে ক্রেডিট দিতেই হবে।’ম্যাচটি উপভোগ করেছেন উল্লেখ করে ওয়ালশ বলেন, ‘আমরা বার বার মাঠে বার্তা পাঠাচ্ছিলাম। তাদেরকে বলছিল দুটা-তিনটা ওভার ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দিবে। ওরা চাপে পরে উইকেট হারাবে। আমরা হয়ত ফিল্ডিংয়ে নিখুঁত ছিলাম না। কিন্তু যখন আমরা উইকেট নেওয়া শুরু করলাম তখন সব কিছুই আমাদের পক্ষে চলে আসতে শুরু করে। বলতে হবে এক কথায় ওটা ছিল টিম পারফরম্যান্স। ম্যাচটি দারুণ উপভোগ করেছি।’সাকিবের ৪৭তম ওভারে নিয়ে ওয়ালশ বলেন, ‘শেষ দিকে সাকিব, তাসকিন অসাধারণ বোলিং করেছে। কিন্তু সাকিব আমাদের প্লাটফর্ম তৈরী করে দিয়েছে। ম্যাচ পরিবর্তনের ওভারটাসেই করেছিল। তার চাপের কারণে রান রেট বেড়ে যায়। ওরা আরও চাপে পরে যায়।’

এ সম্পর্কিত আরও