Mountain View

নিরাপত্তা নিয়ে একি বললেন বাটলার?

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১, ২০১৬ at ৮:১০ পূর্বাহ্ণ

f4d541902445733910a11459701dd50fx300x200x16ইত্তিহাদ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে গত রাতেই ঢাকায় পা রেখেছে ইংল্যান্ড দল। বিমানবন্দরে কঠোর নিরাপত্তা বলয়ের মাঝেও তাদের বিসিবির পক্ষ থেকে উষ্ণ সংবর্ধনায় বরণ করে নেওয়া হয়। আগেই বলে দেওয়া হয়েছিল, বিমানবন্দরে মিডিয়ার সামনে কোনো কথা বলবেন না অতিথিরা। তবে লন্ডনের সফিটেল হোটেল থেকে হিথ্রো বিমানবন্দরে যাওয়ার সময় স্কাই স্পোর্টসের সঙ্গে বাংলাদেশ সফর নিয়ে কথা বলেছেন ইংলিশ অধিনায়ক বাটলার। জানিয়ে দিয়েছেন নিরাপত্তা নিয়ে মোটেই দুশ্চিন্তায় নেই তার দল। খুশি মনেই বাংলাদেশে খেলতে যাচ্ছেন তারা। ‘এটা ঠিক যে, এই সফরের আগে নিরাপত্তা নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। তবে ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করেছি যেখানে রিগ ডিসকন (ইসিবির নিরাপত্তাপ্রধান) যেখানে ভরসা দিয়েছেন, সেখানে যেতে কোনো অসুবিধা নেই। খুশি মনেই বাংলাদেশ সফর করতে যাচ্ছি।’ নিরাপত্তা নয়, ইংল্যান্ডের এই নতুন অধিনায়কের মাথায় এখন বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ নিয়েই সব পরিকল্পনা ঘুরছে।

ইয়ন মরগান না আসায় জশ বাটলারই এই সিরিজে ইংল্যান্ড ওয়ানডে দলের অধিনায়ক। লন্ডনে সাংবাদিকদের জানিয়ে এসেছেন বাংলাদেশের বিপক্ষে এই সিরিজে আক্রমণাত্মক ক্রিকেটই খেলবে তার দল। ‘ইংল্যান্ড দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগ পেয়ে নিজেকে সম্মানিত বোধ করছি। তবে আমি মরগানের মতোই দলকে চালাতে চাই। মাঠে আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলে গত দেড় বছরে যে সাফল্য আমরা পেয়েছি, সেটাই বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলতে চাই। তবে এই সিরিজটি আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং। কারণ বাংলাদেশ তাদের নিজেদের মাটিতে গত দুই বছরে দারুণ ক্রিকেট খেলছে। সব মিলিয়ে আমি মনে করি, সিরিজটি বেশ উপভোগ্য হতে চলেছে।’
নিরাপত্তা নিয়ে এই যে এত বেশি কথা উঠছে, কে গেল, কে গেল না বলে রব উঠেছে_ তাতেও এক ধরনের বিরক্তি প্রকাশ করেছেন বাটলার। ‘কোথাও না যাওয়াটা কারও ব্যক্তিগত ব্যাপার। প্রত্যেকের সিদ্ধান্তকে প্রত্যেকের শ্রদ্ধা করা উচিত। কারণ আমরা প্রত্যেকেই কলিগ কিংবা একে অন্যের বন্ধু। নিরাপত্তা নিয়ে এত বেশি কথা বলার কিছু নেই। বাংলাদেশে যাওয়ার পর দু’দিন কেটে গেলেই আমার ধারণা সব ঠিক হয়ে যাবে। নিরাপত্তার বিষয়টি পেছনে ঠেলে সব মনোযোগ সবাই ক্রিকেটে দিতে পারবে।’
বাটলার বাংলাদেশের এই সিরিজকে ইংল্যান্ডের নতুন এক মিশনের শুরু বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন। আগামী বছরের জুনেই নিজেদের মাটিতে অনুষ্ঠিত হবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। ওই আসরে চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় লক্ষ্য স্বাগতিক ইংল্যান্ডের। তার প্রস্তুতি এই বাংলাদেশ সিরিজ থেকেই নিতে শুরু করতে চান বাটলার। ‘বাংলাদেশের গিয়ে ওই কন্ডিশনে খেলাটা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জের। তবে আমরা যেহেতু এই ফরম্যাটে বিশ্বসেরা হতে চাই, সেই লক্ষ্যেই যখন এগোচ্ছি, তখন সব কন্ডিশনে সব দলের বিপক্ষেই আমাদের ভালো খেলতে হবে।’
পরিসংখ্যান বলছে, দুই দলের গত চারটি ওয়াডের মুখোমুখিতে বাংলাদেশই জিতেছে তিনবার। তাই এবার ঢাকায় পা রাখা ইংলিশ দল বেশ সর্তক এই সফর নিয়ে। ৭ ও ৯ অক্টোবর মিরপুরে আর ১২ অক্টোবর চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ। তার আগে ৩ অক্টোবর অবশ্য ফতুল্লায় বিসিবি একাদশের বিপক্ষে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে অতিথি ইংল্যান্ড।

এ সম্পর্কিত আরও