প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কি বললেন তামিম ইকবাল

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৩, ২০১৬ at ৬:৫৩ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক : বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় শক্তি এদেশের সমর্থক। দেশ-বিদেশে রয়েছে বাংলাদেশী সমর্থকদের প্রশংসা। এদিকে বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের একজন বড় ভক্ত দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

ক্রিকেটপ্রিয় প্রধানমন্ত্রীকে প্রায়শই মাঠে দেখা যায়। এছাড়া ক্রিকেটের উন্নয়নে সবসময় প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা ও সুবিধার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। ক্রিকেটার তামিম ইকবালের কন্ঠেও শোনা গেল প্রধানমন্ত্রীর অনুপ্রাণিত করার গল্প। প্রধানমন্ত্রীকে প্রশংসায় ভাসালেন তামিম ইকবাল।

 

গতকাল (২ অক্টোবর) থেকে শুরু হয়েছে জাতীয় পরিচয়পত্র স্মার্ট কার্ড বিতরণ কার্যক্রম। রবিবার সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই কার্যক্রমের প্রথম দিনেই পুরানো

 

 

জাতীয় পরিচয়পত্রের পরিবর্তে নতুন স্মার্ট কার্ড গ্রহীতার বেশির ভাগই ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা।

 

১ অক্টোবর আফগানিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ একদিনের ম্যাচ জিতে সিরিজ জিতেছিলো টাইগাররা। সেই অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ জাতীয় দলকে আফগানিস্তান সিরিজ জয়ে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন,  “আমি বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমি তোমাদের কালকের (শনিবার) খেলা দেখেছি।”

 

এদিকে এক সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রীর বন্ধুসুলভ আচরণ নিয়ে তামিম বলেন, “সত্যি বলতে উনি (প্রধানমন্ত্রী) খুব ফ্রেন্ডলি। উনি যে দেশের প্রধানমন্ত্রী, সেটা বুঝতেই দেন না! আজ (গতকাল) গিয়েছিলাম একটা অন্য কারণে (স্মার্ট কার্ড উদ্বোধন)। তিনি অসম্ভব ক্রিকেট ফ্যান। ম্যাচ জেতার পর প্রধানমন্ত্রীর বার্তা পাই।

 

তৃতীয় ওয়ানডের পর যেমন পাপন ভাই (নাজমুল হাসান) পাশে ডেকে মোবাইলে প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দনবার্তা দেখালেন। এতে হয় কি আমরা সবাই অনুপ্রাণিত হই। দেশের সবচেয়ে ক্ষমতাবান মানুষ আমাদের শুভেচ্ছা জানান নিয়মিত, এটা গর্বের।”

 

বাংলাদেশ ম্যাচ জিতলেই বার্তা পাঠান প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া সিরিজ বা কোনো টূর্নামেন্টে ভালো খেললেও নিজস্ব কার্যালয়ে ক্রিকেটাদের আমন্ত্রন জানিয়ে শুভেচ্ছা জানান শেখ হাসিনা। সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে এমন সম্মাননা পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান দাবী করে তামিম বলেন, “অস্বীকার করার উপায় নেই। আমরা মন্ত্রী-ব্যবসায়ী না, কিন্তু যেখানেই যাই পর্যাপ্ত সম্মান করেন, খাতির করেন। আমরা অনেক বেশি লাকি বলেই এটা পাই।”

এ সম্পর্কিত আরও