Mountain View

নোবেলজয়ী সহ ১৩ জনকে আটক করল ইসরায়েল

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৬, ২০১৬ at ৩:২১ অপরাহ্ণ

20161006143745আন্তজার্তিক ডেস্ক:স্পেনের বার্সেলোনা থেকে আসা ত্রাণবাহী জাহাজ ‘জয়তুনা অলিভা’কে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজায় ভিড়তে দেয়নি ইসরাইলের নৌ বাহিনী।জাহাজটিকে ইসরাইলের দখলকৃত আশদুদ বন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে জাহাজটির আরোহী শান্তিতে নোবেলজয়ী উত্তর আয়ারল্যান্ডের মেরিড মেগোয়ারসহ বিভিন্ন দেশের ১৩ জন নারী অ্যাক্টিভিস্টকে আটক করেছে ইসরাইলি বাহিনী।এ ঘটনাকে ইসরাইলি সন্ত্রাসবাদ আখ্যা দিয়ে কঠোর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে গাজা নিয়ন্ত্রণকারী ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ হামাস। নেদারল্যান্ডের পতাকাবাহী জয়তুনা অলিভা জাহাজটি গত সেপ্টেম্বরে স্পেনের বার্সেলোনা বন্দর থেকে ত্রাণ নিয়ে গাজার উদ্দেশে ছেড়ে আসে।জাহাজটির স্পন্সর ইউরোপভিত্তিক ফিলিস্তিনপন্থী গ্রুপ ‘ফ্রিডম ফ্লোটিলা কোয়ালিশন’।
এতে নোবেলজয়ী মেরিড মেগোয়ার, একজন সাবেক মার্কিন কর্নেল এবং দক্ষিণ আফ্রিকারএকজন অলিম্পিক অ্যাথলেট ছাড়াও যুক্তরাজ্য, সুইডেন, রাশিয়া এবং মালয়েশিয়ার ১৩জন নারী অ্যাক্টিভিস্ট ছিলেন।ফ্রিডম ফ্লোটিলা কোয়ালিশনের অন্যতম সমন্বয়ক জাহের দারবিশ বলছেন, গাজা উপকূল থেকে ৬০ মাইল দূরে থাকতেই জয়তুনা অলিভা জাহাজটিকে আটকে দেয় ইসরাইলি বাহিনী।
এমনকি তারা অবরুদ্ধ গাজাবাসীর জন্য নিয়ে আসা ত্রাণও নিতে দেয়নি।পরে জাহাজটির আরোহী অ্যাক্টিভিস্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না বলেও জানান জাহের দারবিশ।

তিনি আরও বলেন, আমরা গাজার ওপর থেকে ইসরাইলের অবৈধ অবরোধের বিরুদ্ধে সবার মনযোগ আকর্ষণ করতে জয়তুনা অলিভা জাহাজের মাধ্যমে ‘প্রতীকী প্রতিবাদ’ করেছি।জাহের দারবিশ বলেন, গাজাবাসীর অবাধে চলাচলের অধিকার রয়েছে। আমাদের চলাচলের অধিকার রয়েছে। আমরা বিশ্ববাসী ও বিভিন্ন দেশের সরকারকে সচেতন করতে চেয়েছি যেন তারা গাজার পরিস্থিতিকে গ্রহণ না করেন, তারা যেন এই অবস্থার অবসান ঘটাতেসক্রিয় হন।এদিকে এক বিবৃতিতে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী দাবি করেছে, সব ধরনের কূটনৈতিক চেষ্টার পর নৌ বাহিনী জাহাজটিতে অভিযান চালিয়েছে।তারা জানায়, গাজা যেতে বারণ করলেও জাহাজটির আরোহীরা তা প্রত্যাখ্যান করে। এরপর জাহাজটিতে নৌ বাহিনীর পুরুষ ও নারী সদস্যরা তল্লাশি চালায়। এতে উল্লেখযোগ্য কিছু ঘটেনি বলে দাবি করে ইসরাইল।

উল্লেখ্য, ২০০৭ সালে হামাস ক্ষমতায় আসার পর ইসরাইল এবং মিশর গাজার ওপর অবরোধআরোপ করে। এর ফলে সেখানকার অর্থনীতি দুর্বল হয়ে পড়েছে এবং ৪০ ভাগেরও বেশি বেকারত্ব বেড়েছে। এছাড়াও চাকরি, পড়াশোনা এবং পর্যটনের জন্য গাজাবাসীরা বিদেশে যেতে পারছে না।গাজার এই নিষ্ঠুর অবরোধ অবসানের লক্ষ্যে ২০১০ সালেও ফ্রিডম ফ্লোটিলা কোয়ালিশনের একটি জাহাজ গাজা অভিমুখে রওনা করেছিল। ওই জাহাজে ইসরাইলি কমান্ডোরা হামলা চালালে ১০ জন তুর্কি নাগরিক নিহত হয়।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View