ঢাকা : ২৮ জুলাই, ২০১৭, শুক্রবার, ৬:৩১ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / সারাবিশ্ব / শান্তিতে নোবেলের মনোনয়ন তালিকায় গ্রিক দ্বীপবাসীরা

শান্তিতে নোবেলের মনোনয়ন তালিকায় গ্রিক দ্বীপবাসীরা

greekfishermanstratisvalamios40anobelpeaceprizenominee
দুই হাত বাড়িয়ে শরণার্থীদের স্বাগত জানানোয় নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনয়নের তালিকায় উঠে এসেছে গ্রিসের লেসবস দ্বীপের বাসিন্দারা।শুক্রবার শান্তিতে নোবেল বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে।লেসবস দ্বীপের জেলে স্ট্রাটিস ভালামিওস, যিনি শুধু মাছ ধরতে নয় বরং ডুবে যাওয়া নৌকার ডুবন্ত শরণার্থী দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতেও দিনের পর দিন সমুদ্রে ভেসে বেড়ান।

অন্যান্য দ্বীপবাসীর মত তাকেও নোবেলের জন্য মনোনয়ন দিয়েছে গ্রিক একাডেমিকস এবং হেলেনিক অলিম্পিক কমিটি।
সব গ্রিক নাগরিক এবং শরণার্থীদের সাহায্য করা স্বেচ্ছাসেবকদের প্রতিনিধি হিসাবে তাদেরকে পুরস্কারের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে।
সমুদ্র তীরবর্তী ছোট্ট গ্রামের বাসিন্দা ভালামিওস বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, “এটি অনেকটা যুদ্ধক্ষেত্রের মত। আপনি আহত হতে পারেন, মারা পড়তে পারেন।”

“কল্পনা করুন, আপনি এখানে আছেন এবং সৈকতের উপর পড়ে থাকা পানিতে ডোবা শিশুর মৃতদেহ দেখছেন। অথবা এমন একজন পিতাকে বাঁচিয়েছেন, যার সন্তান ডুবে গেছে। অথবা এমন একটি শিশুকে বাঁচিয়েছেন, যার বাবা-মা দুইজনই ডুবে গেছে।”
কোনও কোনও দিন ভালামিওস তার মাত্র তিন মিটার লম্বা নৌকায় একসঙ্গে ২০ জনের বেশি শরণার্থীকেও তুলেছেন।

নৌকাটির একদিকের রেলিং এখনও ভাঙা। সমুদ্রের পানিতে ডুবন্ত এক সিরিয় শরণার্থী মরিয়ে হয়ে তার নৌকায় উঠার চেষ্টা করার সময় রেলিংটি ভেঙে গিয়েছিল।

আরেক বাসিন্দা ৬৩ বছর বয়সী থানাসিস মারমারিঅন্স বলেন, “আমাদের দ্বীপের এটি প্রাপ্য। যদিও ব্যক্তিগত পর্যায়ে এটি আমাদের কাছে তেমন গুরুত্বপূর্ণ নয়। নিজের কাজের জন্য আমি নৈতিকভাব সন্তুষ্ট, কারণ আমি ওইসব মানুষদের সাহায্য করতে পেরেছি। এছাড়া বাকি সবকিছু এমনকি নোবেল পুরস্কারও গুরুত্বপূর্ণ নয়।”

লেসবস দ্বীপের বাসিন্দারা যদি এই পুরস্কার জিতে তবে অর্থ পুরস্কারের নয় লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার দ্বীপের হাসপাতালগুলোর উন্নয়নে ব্যয় হবে বলে জানিয়েছেন নোবেল পুরস্কার প্রদাণ কমিটি।

যদিও নোবেল পুরস্কার পাওয়া না পাওয়া নিয়ে দ্বীপবাসীদের দৈনন্দিন জীবনে কোনো পরিবর্তন আনতে পারবে না।

ভালামিওস বলেন, “শুক্রবার যখন শান্তিতে নোবেল বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে তখনও বোমা বর্ষণ চলতে থাকবে এবং মানুষ মরতে থাকবে।”

“ব্যক্তিগতভাবে আমি আনন্দও পাব না বা দুঃখও পাব না। আমি শুধু জানি, আমি সঠিক কাজটাই করেছি।”

এ সম্পর্কিত আরও

আপনার-মন্তব্য