Mountain View

ইংল্যান্ডকে বধ করতে মাঠে নামছে টাইগাররা

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৭, ২০১৬ at ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ

bd-eng

সেই অদূর ব্রিস্টল থেকে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম, আর জহুর আহমেদ থেকে অ্যাডিলেইড।

যেখানে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডে জয়ের অনন্য কীর্তি গড়েছে টিম বাংলাদেশ। এবার পালা ইংলিশদের বিপক্ষে মিরপুরে ওয়ানেডে জয়ের।

আর সেই কাজটি করতে পারলেই দলটির বিপক্ষে আরও একটি সাফল্য গাঁথা রচনা করতে পারবে এশিয়ার ক্রিকেটে পরাশক্তি হয়ে উঠা লাল-সবুজের ক্রিকেট দল।

আজ (শুক্রবার)  ৭অক্টোবর সেই লক্ষ্যেই মূলত মিরপুর শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুপুর আড়াইটায় তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে সফরকারী ইংল্যান্ডের মোকোবেলা করবে স্বাগতিক বাংলাদেশ।

ওয়ানডে ক্রিকেটে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের হিসেব করতে গেলে দেখা যাবে পাল্লাটি ইংলিশদের দিকেই ভারী। কেননা এ পর্যন্ত ১৬ বারের মোকাবেলায় ১৩ বারই সফল হয়েছে ইংল্যান্ড, আর মাত্র তিনবার বাংলাদেশ। তবে সাম্প্রতিক জয় পরাজয়ের হিসাবে আবার এগিয়ে বাংলাদেশ।

কেননা জশ বাটলারদের সঙ্গে মাশরাফিদের সব শেষ দেখা হয়েছিল ২০১৫ সালে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের বিশ্বকাপে। যেখানে ইংলিশদের ১৫ রানে হারিয়ে প্রথমবারের মতো কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। যেটি ছিল টাইগারদের তৃতীয় জয়। দলটির বিপক্ষে বাংলাদেশ দ্বিতীয়বারের মতো জয়ের দেখা পেয়েছিলো ২০১১ বিশ্বকাপে।

সেবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ২ উইকেটের জয় পেয়েছিল সাকিব আল হাসান বাহিনী। আর প্রথম জয়টি ছিল ২০১০ সালে ব্রিস্টলে ৫ রানে।

তবে উল্লেখ করার মতো বিষয় হলো, সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচকে সামনে রেখে এসব পরিসংখ্যানের দিকে একেবারেই তাকাতে চাইছেন না টাইগার দলপতি মাশরাফি।

চাইছেন সাম্প্রতিক সময়ের জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রেখে ইংল্যান্ডের বিপেক্ষে মাঠে নামতে।

ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, নতুন সিরিজে নতুন শুরুর চিন্তাই করি। সাম্প্রতিক সময়ের কথা ধরলে আমরা বিশ্বের সেরা দলগুলির একটির সঙ্গে খেলতে যাচ্ছি। ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড সেরার মধ্যে আছে। কাজটা সহজ হবে না। তবে আমরা আত্মবিশ্বাসী।

তবে ইংলিশদের বিপক্ষে জয় পেতে আত্মবিশ্বাসী দলনায়ক মাশরাফি গুরত্বারোপ করছেন কম্বিনেশনের উপর।

‘কম্বিনেশনটা গুরুত্বপূর্ণ। সিনিয়রদের পাশাপশি আমাদের রোমাঞ্চকর ক’জন তরুণ ক্রিকেটার আছে, যারা নিজেদের দিনে যে কোনো কিছুই করতে পারে।’

এদিকে সফরকারী ইংলিশ এ দলটির সঙ্গে নেই অধিনায়ক ইউয়েন মরগ্যান, বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান অ্যালেক্স হেইলস ও নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান জো রুট।

ফলে অনেকেই হয়তো ভাবছেন বাংলাদেশ এ সুযোগটি নেবে। কিন্তু মাশরাফি মোটেও সেভাবে ভাবছেন না। ‘ওদের ব্যাকআপ ক্রিকেটাররাও অনেক ভালো। যারা এসেছে, ওরা অভিজ্ঞ ও যথেষ্ট যোগ্য।’

তবে বাংলাদেশেল জন্য আশার কথা হলো, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাওয়া তিন জয়ের মধ্যে দুই জয়েই বড় ভূমিকা পালন করেছিলে যে ইমরুল কায়েস, সেই তারকা ব্যাটসম্যান এখন ফর্মের চূড়ায়।

ব্রিস্টলের ম্যাচে ৬০ রানের লড়াকু ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হয়েছিলেন। চট্টগ্রামে ইমরুল খেলেছিলেন ৭৬ রানের অসাধারণ ইনিংস।

এরপর অনেক দিন দলে নিয়মিত জায়গা না পেলেও প্রস্তুতি ম্যাচে ৯১ বলে ১২১ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে একাদশে সুযোগ পাওয়া অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গেছে তার। ইমরুলকে নিয়ে তাই উচ্ছ্বসিত মাশরাফি বললেন, ‘ইমরুলের ইনিংস আমরা দেখিনি, তবে আউটস্ট্যান্ডিং খেলেছে। দলেরে জন্য এটা স্বস্তিদায়ক।’

দলের সাম্প্রতিক সাফল্য, সিনিয়র-জুনিয়র প্লেয়ারদের চোখ ধাঁধানো পারফরমেন্স এবং ইমরুলের জ্বলে উঠা- এ সব কিছুর সমন্বয়ে আরেকবার ইংলিশ বধের স্বপ্ন টাইগাররা তাই দেখতেই পারেন।

তবে স্বপ্ন দেখা থেকে বিরত থাকবে না সফরকারী ইংল্যান্ডও। চার মাস আগে শ্রীলঙ্কা ও দুই মাস আগে পাকিস্তানের বিপেক্ষে দাপুটে দু’দু’টি সিরিজ জয়ের পর আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে থাকা

দলটি বাংলাদেশেকেও ছেড়ে কথা বলবে না… সেই ইঙ্গিত খোদ অধিনায়ক জশ বাটলার দিয়ে রেখেছেন সংবাদ সম্মেলনে।

‘আমাদের সব চাইতে বড় শক্তি হলো, আমরা আমাদের নিজেদের শক্তির জায়গাগুলো সম্পর্কে খুবই ভালোভাবে জানি, ফলে আমরা ভাল করি। আশা করছি এ ম্যাচেও তার প্রমাণ দেব।’

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View