ঢাকা : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, শনিবার, ১:০৭ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ
‘পিলখানায় জড়িত পলাতকদের আনার প্রক্রিয়া চলছে’ প্রতিবেশীদের জন্য নাকি যন্ত্রণাদায়ক তাই ১৮ বছর ধরে পাপড়ি ও অনন্যাকে শিকলে বেঁধে রাখা হয়েছে মোদির আমন্ত্রণ জানিয়ে ফিরলেন জয়শঙ্কর সীমান্তে প্রথম নারী বিজিবির সদস্য মোতায়েন আসুন ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা করি- বাংলিশ পরিহার করে গাংনীতে জামাইয়ের ছুরিকাঘাতে শ্বশুর পরিবারের চার জন আহত ॥ জামাই গ্রেফতার চুলাপ্রতি গ্যাসের দাম বাড়লো ৩০০ টাকা পুলিশের মহানুভবতা, মানবতা আজও ভূলুণ্ঠিত হয়নি! সেরাজেম মেরিট স্কলারশিপ এ্যাওয়ার্ড পেলেন ঢাবির ১১ শিক্ষার্থী দেশের ৬৮টি কারাগারে ‘৭৫৭৬৮ জন কারাবন্দী ফোনে কথা বলবে ’স্বজনদের সঙ্গে
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

চলতি বছর শান্তিতে নোবেল পাচ্ছেন কে?

nobel

প্রতীক্ষা আর মাত্র কয়েক ঘণ্টার। ইতিমধ্যে চিকিৎসা,পদার্থ আর রসায়নের পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি রয়েছে, শান্তি, সাহিত্য আর অর্থনীতি। ৭ অক্টোবর শুক্রবার নরওয়ের রাজধানী অসলোতে ঘোষিত হবে এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কার। চলতি বছর রেকর্ড সংখ্যক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হয়েছে। মোট ৩৭৬ প্রতিযোগীর মধ্যে রয়েছেন ২২৮ জন ব্যক্তি এবং ১৪৮টি সংগঠন।

মনোনয়ন তালিকা অনুযায়ী পুরস্কারের দৌড়ে এগিয়ে থাকা উল্লেখযোগ্য ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে রাশিয়ার মানবাধিকার কর্মী সোভেতলানা গানুশকিনা, ইরানের পরমাণু চুক্তির দুই কারিগর যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানিমন্ত্রী আর্নেস মনিজ এবং ইরানের আণবিক সংস্থার প্রধান আলী আকবর সালেহী, সিরিয়ার ‘হোয়াইট হেলমেটস’, জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল, পোপ ফ্রান্সিস, গ্রিক দ্বীপবাসী, কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট হুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস এবং ফার্ক বিদ্রোহী নেতা রদ্রিগো লোন্দোনিও তিমোশেঙ্কো প্রমুখ।

রাশিয়ার মানবাধিকার কর্মী সোভেতলানা গানুশকিনা

এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কার প্রাপ্তির সম্ভাব্য তালিকার শীর্ষে রয়েছে রাশিয়ার মানবাধিকার কর্মী সোভেতলানা গানুশকিনা’র নাম। কয়েক দশক ধরে বিশেষ করে গত বছর ইউরোপে শরণার্থী স্রোত বেড়ে যাওয়ার পর তিনি শরণার্থীদের নিয়ে কাজ করছেন। তার প্রতিষ্ঠান সিভিক অ্যাসিস্ট্যান্টস শরণার্থীদের আইনি সহায়তাসহ নানা ধরনের সহায়তা প্রদান করেছে। ১৯৯০ সাল থেকে প্রতিষ্ঠানটি ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষকে সহায়তা দিয়েছে।

ইরানের পরমাণু চুক্তির দুই কারিগর

নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য আলোচনায় রয়েছেন ইরানের সঙ্গে পশ্চিমা দুনিয়ার পরমাণু চুক্তির দুই কারিগর। তারা হচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানিমন্ত্রী আর্নেস মনিজ এবং ইরানের আণবিক সংস্থার প্রধান আলী আকবর সালেহী। গতবছর ইরানের পারমাণবিক অস্ত্রের উচ্চাভিলাষ ত্যাগ করার বিনিময়ে তেহরানের ওপর অর্থনৈতিক অবরোধ তুলে নেয়ার চুক্তি হয়। এতে সমঝোতায় ভূমিকা রাখার জন্য মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ নোবেল পেতে পারেন এমন গুঞ্জন গত বছরই উঠেছিল। তবে শেষ পর্যন্ত সেটা হয়ে উঠেনি।

সিরিয়ার হোয়াইট হেলমেটস

সিরিয়ার দীর্ঘ ছয় বছরের গৃহযুদ্ধের শিকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে হোয়াইট হেলমেটস বাহিনী। আগাগোড়া স্বেচ্ছাসেবীদের নিয়ে গঠিত এ বাহিনীর উদ্যোগে প্রাণ রক্ষা হয়েছে কয়েক হাজার মানুষের। তাদের মূলনীতি মূলত কোরআনের একটি আয়াত। ওই আয়াতে বলা হয়েছে, ‘কোনও ব্যক্তি যদি কারও প্রাণ রক্ষা করে, তবে সে যেন দুনিয়ার সব মানুষের প্রাণ রক্ষা করলো।’

হোয়াইট হেলমেটসের সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন কৃষক, দর্জি, বেকার, ইঞ্জিনিয়ার, চিত্রশিল্পী, শিক্ষক, ফার্মাসিস্ট ও ছাত্ররা। ধর্ম ও রাজনীতির বিভাজনকে আমলে না নিয়ে নিপীড়িত মানুষের সাহায্যে তারা এগিয়ে এসেছেন। আলেপ্পো, ইদলিব, লাটাকিয়া, হোমস, ডেরা এবং দামাস্কাস জুড়ে ত্রাণের ডালি হাতে ছুটে বেড়াচ্ছেন প্রায় তিন হাজার হোয়াইট হেলমেটস সদস্য।

অ্যাঙ্গেলা মেরকেল

চলতি বছরের নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য আলোচনায় রয়েছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। নিজ দেশে পাহাড়সম বিরোধিতা সত্ত্বেও শরণার্থীদের জন্য জার্মানির দরজা খোলা রেখে পুরো দুনিয়ার দৃষ্টি কেড়েছেন মেরকেল। বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হলেও নিজ দেশে অবশ্য বিষয়টি নিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়েছেন এ মানবতাবাদী রাজনীতিক। উগ্র জাতীয়তাবাদী প্রচারণার ফলে দেশটির সর্বশেষ স্থানীয় নির্বাচনে হেরেছে তার দল। ফলে আশঙ্কা করা হচ্ছে, সম্মানজনক এই পুরস্কার পেলে জার্মানির আসন্ন নির্বাচনে এটি মেরকেলের দলের জন্য নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।

পোপ ফ্রান্সিস

মানবাধিকার, শরণার্থী ইস্যুসহ নানা বিষয়ে ইতিবাচক অবস্থান নিয়ে বারবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর শিরোনাম হয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। আর তাই এখন পর্যন্ত কোনও পোপ এ পুরস্কার না পেলেও এবার যদি পোপ ফ্রান্সিস নোবেল শান্তি পুরস্কার জেতেন তাতে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। কারণ নিজ সম্প্রদায়ের বাইরে সাধারণ মানুষের হয়ে বারবার কথা বলেছেন তিনি।

গ্রিক দ্বীপবাসী

দুই হাত বাড়িয়ে অসহায় শরণার্থীদের স্বাগত জানিয়েছেন গ্রিসের লেসবস দ্বীপের বাসিন্দারা। এর স্বীকৃতিস্বরূপ এবারের নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনয়নের তালিকায় উঠে এসেছে এ দ্বীপের বাসিন্দাদের নাম। দ্বীপের বাসিন্দাদের পক্ষে প্রতীকী হিসেবে তিন ব্যক্তিকে পুরস্কারটি দেওয়া হতে পারে।

হুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস এবং তিমোশেঙ্কো

বহুল প্রত্যাশিত একটি শান্তি চুক্তির মধ্যদিয়ে প্রায় ৫২ বছরের রক্তাক্ত সংঘাতের ইতি টেনেছেন কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট হুয়ান ম্যানুয়েল সান্তোস এবং ফার্ক বিদ্রোহী নেতা রদ্রিগো লোন্দোনিও তিমোশেঙ্কো। ফলে সম্ভাব্য তালিকায় রয়েছে তাদের দুজনের নামও।

এ সম্পর্কিত আরও

Best free WordPress theme

Check Also

ওবামা কি পারবেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট হতে?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা কেবল নিজ দেশেই জনপ্রিয় ছিলেন না। বিশ্ব রাজনীতির …