সরকারি অনেক সেবা এখন অনলাইনেই : পলক

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৯, ২০১৬ at ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক বলেছেন, ইন্টারনেট ব্যবহার করে বাংলাদেশের তরুণরা অনেক উদ্ভাবনী কাজ করছে। দেশের অনেক সরকারি সেবা এখন অনলাইনেই পাওয়া যাচ্ছে।

 

তিনি বলেন, তৃণমূল পর্যায়ে দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। দেশের সব ইউনিয়ন পরিষদে তথ্যসেবা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। যেখানে গ্রামের সাধারণ মানুষজন দুই শতাধিক সেবা পাচ্ছেন।

 

রাজধানী ঢাকায় প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত অ্যাসোসিয়েশন ফর প্রগ্রেসিভ কমিউনিকেশনসের (এপিসি) এশিয়া রিজিওনাল সম্মেলনের শেষ দিন শনিবার প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

 

বৃহস্পতিবার ব্র্যাক ইন সেন্টারে তিন দিনব্যাপি এই সম্মেলনের শুরু হয়। বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ এডুকেশন সোসাইটি (বিএফইএস) পরিচালিত আমাদের গ্রাম উন্নয়নের জন্য তথ্যপ্রযুক্তি প্রকল্প এই সম্মেলনের আয়োজক।

 

পলক বলেন, ইন্টারনেট এখন অনেক সহজলভ্য হয়েছে। সাধারণ মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে কীভাবে সুবিধাভোগ করতে পারে এবং এর অপব্যবহার থেকে দূরে থাকবে সে বিষয়ে দেশজুড়ে নানা ধরনের কর্মসূচি পরিচালিত হচ্ছে। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোকে সঙ্গে নিয়ে সরকারিভাবে আমরা আরো নতুন নতুন উদ্যোগ নিতে চাই।

 

অবাধ তথ্যপ্রবাহ, তথ্যের নিরাপত্তা, সবার জন্য ইন্টারনেট সুবিধার মতো বিষয়গুলো নিয়ে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে জাপান, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড, ফিলিপাইন, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া ও বাংলাদেশের ১৪ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। এতে অংশগ্রহণকারীরা নিজেদের নানা উদ্যোগ নিয়ে উপস্থাপনা, বাস্তবায়ন ও প্রতিবন্ধকতার নানা দিক তুলে ধরেন।

 

সম্মেলনের শেষ দিনে প্রধান বক্তা হিসেবে এপিসির সহকারী নির্বাহী পরিচালক চ্যাট গার্সিয়া রামিলো বলেন, এ ধরনের আয়োজনের মাধ্যমে এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে পারস্পারিক বন্ধন আরো দৃঢ় হবে। অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে প্রত্যেকেই নানাভাবে উপকৃত হবেন বলে আশা করছি।

 

সম্মেলনের আয়োজক আমাদের গ্রাম প্রকল্পের পরিচালক রেজা সেলিম জানান, বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের নানা উদ্যোগের কথা এপিসি এশিয়ার সদস্যদের জানানো এবং তাদের নানা উদ্যোগের কথা জানার ক্ষেত্রে এবারের সম্মেলন ফলপ্রসূ হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও