ঢাকা : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, বৃহস্পতিবার, ২:১৫ পূর্বাহ্ণ
সর্বশেষ
ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি কার্যক্রম বন্ধে আইনি নোটিশ ‘রোহিঙ্গাদের অবারিত আসার সুযোগ দিতে পারি না’প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে ২১ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম দেশে এইচআইভি আক্রান্ত ৪ হাজার ৭২১ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানাজায় লাখো মানুষের ঢল,শেষ শ্রদ্ধায় শাকিলের দাফন সম্পন্ন ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপে ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ৯৭ সংসদে রোহিঙ্গা ইস্যুতে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী বগুড়ায় জাতীয় বিদ্যুৎ ও জ্বালানী সপ্তাহ ২০১৬ উদ্বোধন ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত অভিনয়েই নয় এবার শিক্ষার দিক দিয়েও সেরা মিথিলা শিশুদের ওজনের ১০ শতাংশের বেশি ভারী স্কুলব্যাগ নয়
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

নেপালের প্রথম মুসলিম নারী আইনজীবী মোহনা আনসারি

নেপালের প্রথম মুসলিম নারী আইনজীবী মোহনা আনসারি। তিনি দেশটির মানবাধিকার কমিশনের প্রধান। ইতিপূর্বে নেপাল সাংবিধানিকভাবে হিন্দু রাষ্ট্র থাকলেও এখন তা ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃত। এ ক্ষুদ্র রাষ্ট্রটিতে জনসংখ্যার দিক থেকে মুসলমানদের অবস্থান তৃতীয়। দেশটির প্রতিটি জেলায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা মুসলমানের সংখ্যা শতকরা ৪.২ ভাগ।full_906252959_1476100403

নেপালের মুসলমানদের অধিকার রক্ষা, কোটা সংরক্ষণ এবং ঐতিহ্যের অনন্য প্রতীক মোহনা আনসারি। তিনিই নেপালের প্রথম মুসলিম নারী আইনজীবী। ৩৯ বছর বয়সী এ নারী আইনজীবীকে দেশটির মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে সরকার। নেপালের দক্ষিণের শহর নেপালগুঞ্জের নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারে তার জন্ম।

পর্যটন স্বর্গ হিমালয় কন্যা খ্যাত নেপালে হিজরি পঞ্চম শতকে আরব দেশ থেকে বাণিজ্য কাফেলার আগমনের মধ্য দিয়ে মুসলমানদের আগমন ঘটে। এখন পর্যন্ত নেপালের মুসলিম জনগণের জন্য তাদের নিজস্ব ভাষায় কুরআন-হাদিসসহ কোনো ধর্মীয় পাঠ্যপুস্তক তৈরি হয়নি।

নেপালের মুসলমানদের মাঝে শিক্ষার হার এবং সরকারি চাকরিজীবীর সংখ্যা উল্লেখ করার মতো নয়। এমনকি নেপালের সাতটি বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনো মুসলিম শিক্ষকও নেই। সরকারের এ উচ্চপদে মোহনা আনসারির অন্তর্ভুক্তি মুসলমানদের জন্য আলোকবর্তিকা।

নেপালের মুসলমানদের জন্য আলাদা কোনো ধর্মীয় পাঠ্যপুস্তক না থাকলেও বর্তমানে নেপালে ৩৪৩টি মসজিদ রয়েছে। রয়েছে বেশ কয়েকটি মাদ্রাসা। ধর্মীয় পাঠ্যপুস্তক না থাকার ফলে ইসলামী শিক্ষা থেকে অনেকটাই বঞ্চিত নেপালের মুসলিমরা। সম্প্রতি মুসলমানদের নিয়ে কাজ করে এমন একটি সংগঠন নেপালি ভাষায় ভারত থেকে কোরআনের অনুবাদ প্রকাশ করেছে।

বিভিন্ন প্রতিকূলতা সত্ত্বেও নেপালের মুসলমানদের জন্য আশার প্রদীপ ও অনুপ্রেরণা হলেন মোহনা আনসারি। তিনি ২০০৬ সালে রাজতন্ত্রের অবসানের পর রাজনৈতিক অস্থিরতার মাঝে এ কমিশনের সদস্য হন। সেখানে তিনি নিরাপত্তা বাহিনীর জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণ এবং লিঙ্গ বৈষম্য দূরীকরণে কাজ করেন। মোহনা আনসারির ভাষায়, এ প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করা খুবই কঠিন কাজ।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সক্রিয় মোহনা আনসারি বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি হুমকি থাকা সত্ত্বেও তিনি তার কাজে যথেষ্ট মনোযোগী। নেপালের এই মানবাধিকার কর্মী মুসলমানদের উজ্জ্বল ভবিষ্যতের ব্যাপারে ইতিবাচক স্বপ্ন দেখেন।

নেপালের নতুন সংবিধানে প্রথমবারের মতো মুসলমানদের কোটা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। দেশটির সরকারি চাকরির এক শতাংশ মুসলমানদের জন্য বরাদ্দ থাকবে। আনসারি নেপালে নারীদের জন্য সরকারি চাকরিতে কোটা সংরক্ষণের নতুন আইনকে সমর্থন করেন এবং আশা করেন এতে মুসলিম নারীরাও উপকৃত হবে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

শহীদ মিনারের এ কেমন অবমাননা?

বহু আবেগ আর ত্যাগের বিনিময়ে বাঙালি জাতি পায় বাংলা ভাষার রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি। ১৯৫২ সালের ভাষা …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *