hhhhhhh
Mountain View

অবসরের ঘোষণা দিলেন স্প্যানিশ তারকা জেরার্ড পিকে

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১১, ২০১৬ at ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

অবসরের ঘোষণা দিয়ে বসলেন বার্সেলোনার তারকা ডিফেন্ডার স্পেন জাতীয় দলের অভিজ্ঞ ফুটবলার জেরার্ড পিকে। স্প্যানিশ সমর্থকদের সমালোচনা সহ্য করতে না পেরে নিজের বুটজোড়া তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ২৯ বছর বয়সী পিকে।

জাতীয় দলের হয়ে সবশেষ আলবেনিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের পর কিছুটা ক্ষোভ থেকেই আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের কথা বলেছেন বার্সা তারকা। তবে, সঙ্গে এটিও জানিয়েছেন, জাতীয় দলের হয়ে ২০১৮ সালের রাশিয়া বিশ্বকাপ পর্যন্ত খেলবেন তিনি।

জেরার্ড পিকে বলেন “আমি ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের পরই স্পেনের হয়ে অবসর নিবো, জাতীয় দলকে বিদায় জানানোর শেষ মঞ্চ হতে যাচ্ছে এটি।আমি খুব গভীরভাবে ভেবেচিন্তেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এখনো আমার কাছে দুইবছর হাতে রয়েছে।আর আমার এই সময়টাকে উপভোগ করা উচিত।”

উল্লেখ্য, গতম্যাচে আলবেনিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে এওয়ে কিট পড়ে খেলেছে স্পেন, ফুল হাতা জার্সিটি পিকে হাফ হাতা করে কেটে নিয়ে খেলতে নামে কমফোর্টের জন্য।। কিন্তু বিভিন্ন স্প্যানিশ গনমাধ্যম থেকে সমালোচনা শুরু হয়।

ফুল হাতা জার্সি থেকে স্পেনকে রিপ্রেজেন্ট করা স্ট্রাইপকে বাদ দিতেই পিকে এই কাজ করেছে।। যদিও পরবর্তীতে স্প্যানিশ ফেডারেশন জানিয়েছে ফুল হাতা জার্সিতে এমন বিশেষ কিছু নেই, পিকে শুধু কমফোর্টের জন্যই হাফ হাতা জার্সি পড়ে খেলেছে। এই অন্যায্য সমালোচনাই। অনেকের মতে এই কারণ হতে পারে পিকের অবসরের ঘোষণার।

এমন সমালোচনার সঙ্গে যোগ হয় পিকের প্রকাশ্যে কাতালুনিয়ার স্বাধীনতার পক্ষে সাফাই গাওয়া। নিজের ক্ষোভ থেকেই পিকে জানান, ‘আমি কাতালুনিয়ার পক্ষে এটা সবাই যেমন জানে, তেমনি সবাইকে জানাতে চাই স্পেনকে তুলে ধরতে আমি সব ভাবেই চেষ্টা করেছি। কিন্তু এতো সমালোচনা আমি আর মেনে নিতে পারছি না। সবাই জানে আমি হাফহাতা জার্সি পড়েই খেলি। তাই জার্সির হাতা কেটেছি। আর জার্সির হাতা কাটার ইস্যুটা আমার ধৈর্যের বাধ ভেঙে দিয়েছে।’

২০১৮ সালে রাশিয়া বিশ্বকাপের পর স্পেনের হয়ে আর মাঠে নামবেন না বলে জানিয়ে পিকে আরও জানান, ‘এটা আবেগের বশে হঠাৎ করে নেওয়া কোনো সিদ্ধান্ত নয়। এটা নিয়ে আমি অনেকে ভেবেছি। আমি স্পেনের পক্ষে সব সময়ই সর্বোচ্চটা দিয়েছি। তবে আমি স্পেনের ১০০তম ম্যাচটি খেলতে চাই। খেলতে চাই আগামী বিশ্বকাপ। বিশ্বকাপের পর আমি নিজেই জাতীয় দল থেকে সরে দাঁড়াব।’

ইউরো চলাকালীন ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের আগে স্পেনের জাতীয় সংগীত না গাওয়ায় সমালোচনা শুনতে হয়েছিল পিকেকে। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান, ‘আমি স্পেনকে ভালোবাসি। এসব সমালোচনা বাজে লোকেদের কাজ। আমি স্পেন জাতীয় দলের জন্য গর্বিত। এই পরিবারটিকে আমি ভালোবাসি। জাতীয় সংগীতকে আমি কখনোই অসম্মান করিনি। তেমনি এই দেশ আর এই ফুটবল দলকেও আমি কখনো অসম্মান করার চেষ্টা করিনি। জাতীয় দলের জার্সিকেও অসম্মান করার কোনো চিন্তাই আমার মাথায় নেই। আমি শুধু নিজের আরামের জন্যই জার্সির হাতা কেটেছি।’

এদিকে, স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন পিকের জার্সির হাতা কাটার ব্যাপারটিকে স্বাভাবিক ভাবেই নিয়েছে। তারা এক বিবৃতিতে জানায়, পিকে এর আগেও নিজের পছন্দমতো জার্সির হাতা বানিয়ে খেলতে নেমেছিল। এটা তার খেলারই অংশ। জাতীয় দলের আরেক তারকা সার্জিও রামোসও জার্সির হাতা কেটে খেলতে নামেন। এটা জাতীয় দল কিংবা দেশের কোনো অসম্মান বয়ে আনে না।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View