ঢাকা : ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, রবিবার, ৮:১৮ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

সম্পর্ক নিবিড় করতে বাংলাদেশি গণমাধ্যমের সহযোগিতা চায় চীন

full_1500163804_1476244677

প্রেসিডেন্ট শি’র ‘ঐতিহাসিক’ সফর সামনে রেখে দুই দেশের গণমাধ্যমের মধ্যে যোগাযোগ ও সহযোগিতা বাড়ানোর লক্ষ‌্যে মঙ্গলবার ঢাকায় চীনা বার্তা সংস্থা সিনহুয়া আয়োজিত এক সংলাপে উভয় দেশের নির্বাচিত কয়েকজন সম্পাদক ও প্রকাশক একত্র হন।

এতে ঢাকা ও বেইজিংয়ের মধ্যে অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সম্পর্ক জোরদারে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সফর সামনে রেখে বাংলাদেশি গণমাধ্যমের ইতিবাচক ভূমিকা প্রত্যাশা করেছে চীনা সংবাদ মাধ্যমের কর্তাব‌্যক্তিরা।

বাংলাদেশি সম্পাদকরা তথ্যের অবাধ প্রবাহের পাশাপাশি এদেশের সাংবাদিকদের কমিউনিস্ট রাষ্ট্র চীনের গণমাধ্যম জগত দেখার সুযোগ প্রত্যাশা করেছেন, যাতে উভয়পক্ষের মধ্যে বোঝাপড়া আরও ভালো হয়।

চীনা কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার বিভাগের ভাইস-মিনিস্টার তুয়ো ঝেন বলেন, “দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক বৃদ্ধিতে গণমাধ্যম ইতিবাচক ভূমিকা পালন করবে বলে আমরা প্রত্যাশা করছি।”

চীনের প্রথম রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে তিন দশকের মধ‌্যে ১৪ অক্টোবর ঢাকা আসছেন শি জিনপিং। এর আগে ১৯৮৬ সালের মার্চে বাংলাদেশ সফর করেছিলেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট লি শিয়াননিয়ান। রুদ্ধদ্বার এই সংলাপের শুরুতে তুয়ো বলেন, দুই দেশের সম্পর্কে কী ঘটছে সে সম্পর্কে উভয় দেশের গণমাধ্যম একসঙ্গে জনগণকে জানাবে বলে তারা প্রত্যাশা করছেন।

“আমরা আশা করছি, ‘ওয়ান বেল্ট, ওয়ান রোড’ উদ্যোগ ও বিসিআইএম অর্থনৈতিক করিডোর নিয়ে গণমাধ্যম ইতিবাচক সংবাদ পরিবেশন করবে,” দোভাষীর সাহায্যে বলেন তিনি।

চীন ও ইউরেশিয়ার মধ্যে আঞ্চলিক ও আন্তঃমহাদেশীয় যোগাযোগ এগিয়ে নেওয়া ‘ওয়ান-বেল্ট, ওয়ান রোড’ উদ্যোগ চীনের অর্থনৈতিক কূটনীতির কেন্দ্রে রয়েছে। অন‌্যদিকে বিসিআইএম হলো বাংলাদেশ, চীন, ভারত ও মিয়ানমারের মধ্যে প্রস্তাবিত অর্থনৈতিক করিডোর।

চায়না ইন্টারনেট ইনফরমেশন সেন্টারের প্রধান সম্পাদক ওয়াং শিয়াওহুই তার দেশের গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের পরিচয় করিয়ে দিয়ে বলেন, প্রেসিডেন্টের সফরের মূল লক্ষ্য হবে দুই দেশের জনগণের যোগাযোগ বৃদ্ধি এবং অর্থনৈতিক সম্পর্কোন্নয়ন।

চীনের স্টেট কাউন্সিল ইনফরমেশন অফিসের ব্যুরো অব গ্লোবাল কমিউনিকেশন অ্যাফেয়ার্সের উপ মহাপরিচালক ঝাও জিয়াগু, চায়না সেন্ট্রাল টেলিভিশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট সান ইংসেং, চায়না ডেইলির উপ প্রধান সম্পাদক গাও আনমিং, চায়না রেডিও ইন্টারন্যাশনালের ভাইস প্রেসিডেন্ট হু বাংসেং, সিনহুয়া বার্তা সংস্থার উপ পরিচালক ইয়ান তাও এবং স্টেট কাউন্সিল ইনফরমেশন সেন্টারের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ মহাপরিচালক চেন ডাওয়েই চীনের পক্ষে বক্তব্য দেন।

অন‌্যদিকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেসের সম্পাদক এএইচএম মোয়াজ্জেম হোসেন, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রধান সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী, বাসসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ও প্রধান সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক এএম হারুন-অর-রশিদ, বাংলাদেশ বেতারের মহাপরিচালক একেএম নেসার উদ্দিন ভূইয়া, আরটিভির সিইও রহমান সৈয়দ আশিক এবং এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট তাসিক আহমেদ বাংলাদেশের পক্ষে কথা বলেন।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

moslin-0120161204094132

হারানো মসলিনের ঐতিহ্য ফেরাতে ফুটি কার্পাসের খোঁজে তাঁত বোর্ড

মসলিন শাড়ির কদর ছিল পুরো বিশ্বজুড়ে। সোনালি মসলিনের এ ঐতিহ্য একমাত্র ফুটি (Phuti) কার্পাস গাছের …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *