ঢাকা : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, মঙ্গলবার, ১:২৭ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ > জাতীয় > এখনও ‘সংজ্ঞাহীন’ খাদিজা, উদ্বেগ কাটেনি পরিবারের

এখনও ‘সংজ্ঞাহীন’ খাদিজা, উদ্বেগ কাটেনি পরিবারের

khadija-sm20161009123154ছাত্রলীগ নেতার হামলায় আহত হওয়ার ১০ দিন পর কলেজছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিস লাইফ সাপোর্ট ছাড়াই সাড়া দিচ্ছেন বলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানালেও এখনও ‘সংজ্ঞা’ না ফেরায় উদ্বেগ কাটেনি তার পরিবারের সদস্যদের।

রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খাদিজার খোঁজ-খবর নিতে গিয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাংবাদিকদেরকে তার সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে জানিয়েছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তবে লাইফ সাপোর্ট ছাড়া সাড়া দিলেও আহত হওয়ার পর প্রায় দুই সপ্তাহেও পুরোপুরি জ্ঞান ফেরেনি সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের এই ছাত্রীর; ফলে পরিবারের কোনো সদস্য তার সঙ্গে কথা বলতে পারেন নি বলে জানান খাদিজার মামা আব্দুল বাসেত।

শুক্রবার হাসপাতালে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বাসেত বলেন, “খাদিজার অবস্থার তেমন কোনো উন্নতি হয়নি, আগের মতই আছে।”

তবে হাসপাতালের দেওয়া চিকিৎসা ব্যবস্থায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন তিনি।

এর আগে বৃহস্পতিবার হাসপাতাল পরিদর্শনে এসে চিকিৎসাধীন থাকা খাদিজার অবস্থার উন্নতির ফলে লাইফ সাপোর্ট খুলে দেওয়ার কথা জানিয়ে তার চিকিৎসার সব ব্যয় সরকার বহন করবে বলে নিশ্চয়তা দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

নাসিম বলেন, “তার শরীরের ডান পাশ নড়াচড়া করছে; তার বাম পাশ এখনও অবশ হয়ে রয়েছে। তার চিকিৎসার জন্য যা যা করা দরকার, সবই করা হচ্ছে।”

খাদিজার চিকিৎসায় কোনো টাকা-পয়সা লাগেনি বা কোনো ঝামেলায় পড়তে হয়নি বলে স্বীকার করেন তার মামা আব্দুল বাসেতও।

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “নার্গিসের চিকিৎসায় আমাদের এক টাকাও খরচ করতে হয়নি, সব খরচ সরকার বহন করছে। আমাদের কোনো সমস্যা বা ঝামেলায় পড়তে হয়নি।”

গত ৩ অক্টোবর সিলেটে হামলার শিকার হওয়ার পর ঢাকায় এনে স্কয়ার হাসপাতালে ৪ অক্টোবর বিকালে খাদিজার অস্ত্রোপচার হয়। এরপর ৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণ করে গত ৮ অক্টোবর তার শারীরিক অবস্থা সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা।

ওই সময় হাসপাতালটির নিউরো সার্জন রেজাউস সাত্তার জানিয়েছিলেন, হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে সম্পূর্ণ ‘কনশাস’না হলেও ব্যথা পেলে খাদিজা সাড়া দিচ্ছিলেন।

ব্যথা পেলে সাড়া দেওয়ার মতো ওই উন্নতির কথা জানালেও এই কলেজছাত্রী সম্পূর্ণ স্বাভাবিক হয়ে উঠতে পারবেন কি না- তা জানতে আরও দুই-তিন সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।

এরপর বৃহস্পতিবার হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়ে অবস্থার উন্নতি হওয়ায় লাইফ সাপোর্ট খুলে নেওয়ার কথা জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী খাদিজা এমসি কলেজে স্নাতক পরীক্ষা দিয়ে বেরিয়ে আসার পর হামলার শিকার হন।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক বদরুল আলম ধারাল অস্ত্র দিয়ে তার মাথাসহ বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কোপায়, যাতে খুলি ভেদ করে তার মস্তিষ্কও জখম হয়।

হামলার পরপর জনতার হাতে আটক হামলাকারী বদরুল ইতোমধ্যে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তার শাস্তির দাবিতে টানা কয়েকদিন বিক্ষোভ চালান সিলেটের কলেজ শিক্ষার্থীরা। দেশের বিভিন্ন প্রান্তেও হয় প্রতিবাদ।

এ সম্পর্কিত আরও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *