Mountain View

চট্টগ্রাম টেস্ট জিতলেই টেস্টও ও.ইন্ডিজকে পেছনে ফেলবে টাইগাররা

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১৮, ২০১৬ at ১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ

sakib

জাহিদুল ইসলাম, বিডি টুয়ন্টিফোর টাইমস : একদিনের ক্রিকেটে টাইগাররা প্রতিষ্ঠিত শক্তি সেই ২০১২ সালের এশিয়া কাপ থেকেই। এরপর টানা ৬ টি সিরিজ জিতে র‌্যাংকিংয়েও এখন পাকিস্তান ওয়েস্ট ইন্ডিজের উপরে। এবার টেস্টেও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে র‌্যাংকিংয়ে পেছনে ফেলার হাতছানি টাইগারদের সামনে।

রঙিন পোশাকে বারুদে লড়াইয়ের পর এখন টেস্ট। সেখানে বল মাঠে গড়ানোর আগেই অ্যাশেজের উত্তাপ ছড়াচ্ছে আবহ। যেখানে অবশ্যই খলনায়ক বেন স্টোকস। সেসব ফেলে এবার টাইগারদের সামনে দারুণ এক ইতিহাস গড়ার হাতছানি দিচ্ছে। সেটি প্রথমবারের মত টেস্ট ক্রিকেট র‌্যাঙ্কিংয়ে ৮-এ উঠার হাতছানি। সেটা চট্টগ্রামে জিতলেই হয়ে যাবে। প্রথমবারের মত ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টপকে উঠে যাবে অস্টম স্থানে।

চলুন দেখে নেই ইংল্যান্ড সিরিজ শেষে  কেমন হতে পারে বাংলাদেশের র্যাঙ্কিং? জিততে পারলে প্রাপ্তিটা অনেক বেশি, তবে হারলে বেশী ভয় নাই পয়েন্ট হারানোর। হারলে একটি দিক দিয়েই ভয় আছে আমাদের, সেটা হলো হেটারদের নাক শিটকানোর ভয়। র্যাঙ্কিংয়ের ৪ নম্বর দলের বিপক্ষে র্যাঙ্কিংয়ের ৯ নম্বর দলের খেলা। প্রত্যাশা টা আমাদের একটু বেশিই আছে।

টেস্টে ৫৭ রেটিং ও ৬৮৭ পয়েন্ট নিয়ে বাংলাদেশ ৯ এ, অপরদিকে ১০৮ রেটিং ও ৪৪২৭ পয়েন্ট নিয়ে ৪ এ আছে ইংলিশরা। সিরিজটা যদি ড্র হয় তাহলে তাহলে বাংলাদেশের ৮ রেটিং বৃদ্ধি পেয়ে ৬৫ তে দাড়াবে, অপরদিকে ৩ পয়েন্ট কমে ইংলিশরা ১০৫ রেটিংয়ে থামবে। বাংলাদেশ যদি ১-০ তে সিরিজ জিতে নেয় তাহলে ১৫ রেটিং বৃদ্ধি পেয়ে ৭২ এ দাড়াবে, অপরদিকে ইংল্যান্ডের কমবে ৫ রেটিং। আর বাংলাদেশ যদি ২-০ তে সিরিজ জিতে নেয় তাহলে রেটিং বাড়বে ১৮ টি! অর্থাৎ ৫৭ থেকে এক ধাপে ৭৫ এ গিয়ে পৌছাবে বাংলাদেশ।

আর তখন বাংলাদেশের ৪৪২ পয়েন্ট পয়েন্ট বেড়ে গিয়ে দাড়াবে ১১২৯ এ। অপরদিকে ইংলিশদের কমবে ৬ রেটিং। কিন্তু….. যদি হিতে বিপরীত হয়, তাহলে? যদি বাংলাদেশ ১-০ তে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে যায়, তাহলেও ২ রেটিং বেড়ে ৫৯ এ পৌছে যাবে। আর যদি ২-০ তে বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশ হয়ে যায়, তাহলে রেটিং কমবে মাত্র ২ টি, ৫৭ রেটিং হতে ৫৫ তে দাড়াবে বাংলাদেশ। দুটো ম্যাচ হেরে যেখানে বাংলাদেশের কমবে ২ টি রেটিং সেখানে ইংলিশদের জিতেও বাড়বে মাত্র ১ রেটিং! র্যাঙ্কিংয়ের জন্য হলেও ইংল্যান্ড সিরিজে আমাদের প্রত্যাশা একটু বেশিই থাকবে। আর অনেক কিছু হারাবার ভয় থাকছে ইংলিশদের।

এ সম্পর্কিত আরও