Mountain View

বিশ্ব দরবারে নিজেদেরকে মেলে ধরার প্রত্যাশায় চারমুখ

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১৮, ২০১৬ at ৯:৫৮ পূর্বাহ্ণ

full_404761901_1476759863

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট স্কোয়াডে ডাক পেয়েছেন সাব্বির রহমান, কাজী নুরুল হাসান সোহান, কামরুল ইসলাম রাব্বী ও মেহেদী হাসান মিরাজ পরিচিত এ চারমুখ। দুজনের্ এরই মধ্যে অভিষেক হয়েছে। একজন কাছাকাছি গিয়েছেন। আরেকজন এবারই প্রথম জাতীয় দলের খুব কাছে।

তবে সাব্বির রহমান ও কাজী নুরুল হাসান সোহান সীমিত পরিসরে এরই মধ্যে খেলেছেন। সাব্বির দুই ফরম্যাটে খেললেও সোহান খেলেছেন শুধুমাত্র টি-টোয়েন্টি। কামরুল ইসলাম রাব্বী জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে ছিলেন কিন্তু ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। আর মেহেদী হাসান মিরাজ- সে তো জাতীয় পর্যায়ে একেবারেই নতুন। জাতীয় পর্যায়ে বলা ভুল হবে জাতীয় দলের স্কোয়াডে নতুন মুখ।

মেহেদী হাসান মিরাজ বাংলাদেশ ক্রিকেটে উদীয়মান নক্ষত্র। তার হাত ধরেই যুব ক্রিকেটে সর্বোচ্চ সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ। মিরাজও নির্বাচিত হয়েছেন এবারের যুব বিশ্বকাপের সেরা ক্রিকেটার। শুদ্ধতার ক্রিকেট দিয়ে বিশ্ব দরবারে নিজেকে মেলে ধরার প্রত্যাশায় মিরাজ।

ডানহাতি এ স্পিন অলরাউন্ডার বলেন, ‘যদিও আমাকে স্পিনার হিসেবে দলে নেওয়া হয়েছে, তবুও আমি চাইব ব্যাটিংয়ে নজর কাড়তে। যদি সুযোগ পাই অবশ্যই নিজেকে মেলে ধরার চেষ্টা থাকবে।’ আর টেস্ট ক্রিকেট? ‘আমার জন্য টেস্ট ক্যাপ হবে জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া।’

কামরুল ইসলাম রাব্বীর জাতীয় দলের কাছাকাছি যাওয়ার সুযোগ এসেছিল। সতীর্থদের জন্য টেনেছিলেন পানিও। কিন্তু ওই ক্যাপটাই পাওয়া হয়নি ডানহাতি পেস বোলারের। এবার সেই সুযোগটি নিতে মুখিয়ে আছেন রাব্বী। টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে তার ভাবনা, ‘যে সুযোগটি পেয়েছি সেটা অনেক বড় পাওয়া। এবার ইচ্ছে টেস্ট অভিষেক হওয়া। পুরনো বলে আমার কার্যকরিতা বেশি। বেশ কিছুদিন ধরেই জাতীয় দলের সঙ্গে অনুশীলন করছি। আশা করছি সুযোগ পেলে দলের হয়ে ভালো কিছুই দিতে পারব।’

জাতীয় দলের হয়ে ৬টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন কাজী নুরুল হাসান সোহান। ৫ ইনিংসে করেছেন মাত্র ৫৪ রান। সর্বোচ্চ রান ৩০। প্রত্যাশামাফিক পারফরম্যান্স করতে না পারায় জায়গা হারান জাতীয় দলে। সীমিত পরিসরে সুযোগ পেয়েছিলেন লেট অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসেবে। এবার সুযোগ এসেছে স্পেশালিস্ট উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে। টেস্ট ক্রিকেটে নিজেকে প্রমাণ করতে চান সোহান। নিজের প্রত্যাশা নিয়ে সোহান বলেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে আরও ভালো করার সুযোগ ছিল। এবার টেস্টে সেই সুযোগটির স্বদব্যবহার করতে চাই। উইকেট কিপিং করার সুযোগ পেলে অবশ্যই এটা হবে বাড়তি পাওয়া।’

চার ক্রিকেটারের মধ্যে সবচেয়ে বড় নাম সাব্বির রহমান রুম্মানের। ২৬ টি-টোয়েন্টি ও ২৯ ওয়ানডে খেলার অভিজ্ঞতা থাকা সাব্বির রহমান প্রথমবারের মতো ডাক পেয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে দারুণ সাফল্য উপহার দেওয়া সাব্বিরের বিশ্বাস শুদ্ধতার ক্রিকেটেও বাংলাদেশকে একই সাফল্য দিতে পারবেন।

তিনি বলেন, ‘সত্যিই আমি টেস্ট খেলতে মুখিয়ে আছি। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে যেভাবে খেলেছি টেস্টেও নিজেকে সেভাবে তৈরী করতে চাই। আশা করছি সময়, সুযোগ আমার পক্ষে আসলে দলকে ভালো কিছু উপহার দিতে পারব।’

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View