Mountain View

আওয়ামী লীগের ২০ তম জাতীয় সম্মেলন,নতুন সাজে রাজধানী

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১৯, ২০১৬ at ৭:১১ অপরাহ্ণ

4জোবায়ের তুহিন ::বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন কে কেন্দ্র করে নতুন সাজে সাজানো হলো রাজধানী ঢাকার অলি গলি। সম্মেলন কে কেন্দ্র করে রাজধানী জুড়ে নানা রংয়ের পোষ্টার,ব্যানার,পেষ্টুন কিংবা সাজ বাতি কোনটার কমতি নেই ।মৎস্য ভবন থেকে শাহবাগ মোড় পর্যন্ত রাস্তার দু পার্শ্বে ১৫ তারিখ থেকে সাজানো হয়েছে আলোক বাতি এবং ঝিলিক বাতির সমারোহে। জাতীয় যাদুঘর কিংবা ইন্জিনিয়ার্স ভবন কোনটাই বাদ যায় নি। সম্মেলন এর মূল মন্জ বানানো হয়েছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে।সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ভিতরে প্রতিটি গাছগাছালি কে সাজানো হয়েছে সম্পর্ণ ভিন্ন ভাবে।এর জন্য বিশেষ ভাবে কাজ করছেন চারুকলার ২০ শিক্ষার্থীর সমন্বয়ে একটি বিশেষ পারদর্ষী টিম। টিএসসি কিংবা বাংলা একাডেমি ও বাদ যায় নি সৌন্দর্য বর্ধনের থেকে।

বিশেষ করে রাতে মনে হবে সম্পূর্ণ ভিন্ন পরিস্থিতি। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ভিতর রাত জুড়ে অবস্থান করছেন ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীরা। তাদের সজাগ দৃষ্টি সর্বদা থাকছে কোন কিছু যেন বাদ না য়যায় সৌন্দর্য বর্ধন থেকে কিংবা ঘাটতি না হয় কোন অপূর্ণতার। এজন্য সম্মেলন কে কেন্দ্র করে বাড়ানো হয়েছে বাজেট ও। যা ১ কোটি ৬৫ লাখ থেকে বেড়ে ২ কোটি ৩৪ লাখে রুপান্তরিত হয়েছে।তাছাড়া সম্মেলনে আগত নেতাকর্মী কিংবা কাউন্সিলর’দের জন্য থাকছে বিশেশ খাবার ব্যবস্থা ও। প্রথম দিন ২২ তারিখ দুপুরে থাকছে মোরাগ পোলাও,কোমল পানি,পান,পিরনি ও আরও ৭ আইটেমের খাবার। সম্মেলনের দ্বিতৃীয় দিনে থাকছে খাসির রেজালা এবং আরও ১১ আইটেম খাবার ও। বিশেষ করে ৫০ হাজার মানুষের খাবারের ব্যাবস্থা করা হচ্ছে।

এছাড়া নিরাপত্তা ব্যাবস্থা কে সাজানো হয়েছে সম্পূর্ণ ভিন্ন ভাবে। র্যাব ও পুলিশের কাড়া নিরাপত্তার পাশাপাশি থাকছে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের বিশেষ প্রশিক্ষিত টিম ও। আজ দুপুরে সরেজমিন প্রত্যক্ষ করে এবং কথা হয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও প্রভাবশালী নেতা লিয়াকত সিকদারের সাথে। তিনি জানান,আমরা অনেক খুশি সম্মেলন উপলক্ষে নেতাকর্মীদের মাঝে চাঙা ভাব সৃষ্টি হওয়ায় এবং আশা করি মূল্যায়ন হবে সাবেক ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের। অনেকের সাথে কথা বলে জানা যায়,আওয়ামী লীগের ২০ তম সম্মেলনের অন্যতম উদ্দেশ্য হচ্ছে আগামী সংসদ নিরবাচন কেন্দ্র করে দলকে নতুন ভাবে সাজানো কিংবা উপযোগী করানো। যাতে আবারও সরকার গঠন করা যায়। এজন্য সম্মেলনের অতিথি তালিকা থেকে বাদ যায় নি পার্শ্ববর্তী কোন দেশের প্রতিনিধি ও। পাশাপাশি কূটনৌতিক অঙ্গন ও চাঙা করা।

এ সম্পর্কিত আরও