Mountain View

‘ভদ্রলোক’ ট্রাম্পের পক্ষেই স্ত্রী মেলানিয়া

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১৯, ২০১৬ at ১০:১৪ পূর্বাহ্ণ

trumpযুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প একজন ‘ভদ্রলোক’ এবং যেসব নারী ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন তা মিথ্যা বলে দাবি করেছেন স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প।

মেলানিয়া এও বলেন, ট্রাম্পের বিতর্কিত ভিডিও টেপটি অগ্রহণযোগ্য। তবে তিনি যে মানুষটিকে চেনেন টেপের বক্তব্য তার সঙ্গে মেলে না।

ট্রাম্পকে ‘বয় টক’ এর জন্য অপরাধী মনে করলেও টিভি উপস্থাপক বিলি বুশ নারীদের অবমাননা করে কথা বলার জন্য তাকে ‘প্ররোচিত করেছেন’ বলেও মনে করেন মেলানিয়া।

১০ দিন আগে নারীদের নিয়ে ট্রাম্পের অশ্লীল মন্তব্যের ওই ভিডিও টেপটি প্রকাশের পর রিপাবলিকান পার্টির এক ডজনের বেশি নেতা ট্রাম্পের ওপর থেকে সমর্থন তুলে নেওয়ার ঘোষণা দেন।

ওই টেপ প্রকাশের পর আরও কয়েকজন নারী ট্রাম্পের কাছে যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়ার অভিযোগ করে।

সিএনএন’ কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মেলানিয়া বলেন, “আমি জানি তিনি নারীদের সম্মান করেন। তারপরও তিনি (ট্রাম্প) আত্মপক্ষ সমর্থন করছেন। কারণ তারা মিথ্যা বলছে।”

“আমি আমার স্বামীকে বিশ্বাস করি। আমার স্বামী দয়ালু, তিনি ভদ্রলোক এবং তিনি আর কখনওই ওটা করবেন না।”

ট্রাম্পের কাছে যৌন নিগ্রহের শিকার হওয়ার ওইসব অভিযোগ ‘পরিকল্পিত’ এবং ডেমক্রেটিক প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টনের প্রচার শিবির ও গণমাধ্যম ‘প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ট্রাম্পের ক্ষতি করতে একজোট হয়ে এসব করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, “ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগকারী নারীদের কাছ থেকে গণমাধ্যম যেসব তথ্য পেয়েছে, তারা কী কখনও ওইসব নারীর অতীত খোঁজ করেছে? তাদের কাছে সত্যিই কিছু নেই।”

নারীদের সঙ্গে গত কয়েক বছরে ট্রাম্প কখনওই অসঙ্গত আচরণ করেননি বলেও জোর দিয়ে বলেছেন মেলানিয়া।

তিনি বলেন, “বরং সাধারণত নারীরাই, এমনকি আমার সামনেও তারা আমার স্বামীকে তাদের ফোন নম্বর দিতে চায় এবং অসঙ্গত ব্যবহার করে।”

ভিডিও টেপটি নিয়ে স্বামীকে কিছু বলেছিলেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “আমি আমার স্বামীকে বলেছি, তুমি জান তুমি যে ভাষা ব্যবহার করেছ তা খুবই অসঙ্গত এবং এটি গ্রহণযোগ্য নয়।”

“আমি খুবই বিস্মিত হয়েছিলাম। কারণ আমি যে মানুষটিকে চিনি তিনি এরকম নন।”

ভিডিও টেপটি প্রকাশের পর ওটাকে ‘লকরুম টক’ বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প। যদিও এক বিবৃতিতে নারীদের অবমাননা করে কথা বলার জন্য তিনি ক্ষমা চেয়েছেন।

ট্রাম্পের ওই ভিডিও টেপটির জন্য বিলি বুশকে মূল অপরাধী বলে মনে করেন মেলানিয়া।

বিবিসি জানায়, টেপটি প্রকাশের পর এ টিভি উপস্থাপক চাকরি হারিয়েছেন।

নারীদের নিয়ে নিজের অশ্লীল মন্তব্যের দোষ ঢাকতে প্রতিদ্বন্দ্বী হিলারি ক্লিন্টনের স্বামী সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টনের নারী কেলেঙ্কারি সামনে নিয়ে আসেন।

অনেকে ট্রাম্পের এ কৌশলের সমালোচনা করলেও মেলানিয়া মনে করেন তার স্বামী ঠিক কাজই করেছেন।

৮ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View