Mountain View

‘মাশরাফি ভাই আমার এগিয়ে চলার অনুপ্রেরণা’

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ১৯, ২০১৬ at ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ

20161019110029

স্পোর্টস ডেস্ক : শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে সাথে নিয়েই লড়াই করছেন তারা। ক্রিকেটের প্রতি তার প্রগাঢ় ভালোবাসাকে দমিয়ে রাখতে পারেনি।
আট মাস বয়সে পোলিওর কারণে দুই পায়েই চলার শক্তি হারান টঙ্গীর মো. মোহসিন। তবে সেখানেই থেমে থাকেননি তিনি। হুইল চেয়ারে বসেই ক্রিকেট খেলা ও তার মতো অন্য ক্রিকেটারদের সংগঠিত করার উদ্যোগ নেন। ২০১০ সালে গড়ে তোলেন বাংলাদেশ হুইল চেয়ার ক্রিকেটার্স এসোসিয়েশন। যেই ধারাবাহিকতায় গতকাল মঙ্গলবার হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো প্রথম জাতীয় হুইল চেয়ার ক্রিকেট।
তাই সফলভাবে এই আয়োজনের পর সংগঠনের চেয়ারম্যান মোহসিনের কণ্ঠে ছিল তৃপ্তির সুর, ‘হুইলচেয়ার ক্রিকেটারদের জন্য এতো বড় আয়োজন এর আগে কখনও হয়নি। প্রায় ৫০ জন হুইলচেয়ার খেলোয়াড় এসেছে। জাতীয় পর্যায়ের অনেক বড় বড়অনুষ্ঠানে এতো হুইলচেয়ার খেলোয়াড়ের সমাগম হয় না। তবে এমনটি হওয়ার পেছনে ক্রিকেটের প্রতি ভালোবাসাও অন্যতম কারণ।’
মূলত ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশের আইসিসি ট্রফি জয়ের পর হুইলচেয়ারেই ক্রিকেট খেলতে শুরু করেন মোহসিন। সঙ্গে সঙ্গে স্বপ্ন দেখতে থাকেন তার মতো অন্যান্য ক্রিকেটারদের নিয়ে একটা প্ল্যাটফর্ম দাঁড় করানোর। যেখানে প্রচুর শ্রম দিয়েছেন। কষ্ট করে এর কাছে, ওর কাছে গিয়ে চেয়েছেন সহযোগিতা। কখনও পেয়েছেন, কখনও পাননি। তারপরেও দমে যাননি, ‘আমি দৃঢ়বিশ্বাসী ছিলাম আমরা একটা ভিত্তি পাবোই। ক্রিকেট মানুষের ভালোবাসা পেয়েছে, আমরাও ক্রিকেট ভালোবাসি। আর আমাদের কষ্টটা মানুষ অনুধাবন করবে না, এটি আমি কখনও ভাবিনি।’
হুইলচেয়ারে খেলা মোহসিন নিজে বামহাতি ব্যাটসম্যান আর ঢাকা জায়ান্টসের অধিনায়ক।যার পছন্দের ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা। এ প্রসঙ্গ আসতেই বললেন, ‘মাশরাফির নেতৃত্বের গুনটা আমার ভালো লাগে। আমি মাঝেমধ্যে স্টেডিয়ামে গিয়েও খেলা দেখি। মাশরাফি আমার এগিয়ে চলার অনুপ্রেরণা।’
প্রথম জাতীয় আসর শেষ হলেও কাজ শেষ হয়নি মোহসিনের। সামনের পরিকল্পনা নিয়ে বললেন, ‘আগামী বছর ভারতে আছে হুইলচেয়ার এশিয়া কাপ। বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা খারাপ না, আমরা ভালো দল গড়ে যথাযথ প্রস্তুতি নিয়ে ভালো পারফরম্যান্স করতে চাই।

এ সম্পর্কিত আরও