Mountain View

গণমাধ্যমে অনলাইনের সংখ্যাই বেশি, কাগজের পাঠক পড়ে যাচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২০, ২০১৬ at ২:২০ অপরাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এককাপ চা, আর পত্রিকা সকালের রুটিন হয়ে গেছে। আমাদের যাদের অভ্যাস হয়ে গেছে, সকালে পত্রিকা হাতে না পেলে মনটাই খারাপ হয়ে। তাই আমরা গণমাধ্যমকে গুরুত্ব দিচ্ছি। গণমাধ্যমে এখন অনলাইনের সংখ্যাই বেশি, কাগজের পাঠক পড়ে যাচ্ছে। এখনকার ছেলে-মেয়েরা তো ল্যাপটপ খুলে বসে। সেটা আবার ভিন্ন বাস্তবতা।
বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে প্রেসক্লাবে ‘জাতীয় প্রেসক্লাব-বঙ্গবন্ধু মিডিয়া কমপ্লেক্সের’ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন আয়োজনে তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সাংবাদিকতায় স্বাধীনতা পাচ্ছে না, এই কথাগুলো কীভাবে বলা হয় যদি স্বাধীনতা নাই থাকে তো। এই সব কথা বলতেও তো স্বাধীনতা লাগে। বাংলাদেশের সাংবাদিকদের যথেষ্ট স্বাধীনতা আছে। সংবাদপত্রকে এবং সাংবাদিকদের যত রকম সুবিধা দেয়া যায়, সব ব্যবস্থা আমরা করেছি। এতোগুলো মিডিয়াতে কর্মসংস্থান হচ্ছে। উন্নয়নে অনেকগুলো পদক্ষেপ নিয়েছি। সেই ১৯৯৬ সাল থেকেই সাংবাদিকদের সহযোগিতার চিন্তা-ভাবনা আমরা করেছি। কল্যাণ ট্রাস্ট করেছি, আইন হয়েছে, ওয়েজ বোর্ড চলছে অষ্টমে আরো নানান কিছু।
দেশের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেকেই জিজ্ঞাসা করেন, এত উন্নয়ন, ম্যাজিকটা কী? আসলে কোনো ম্যাজিক নয়। দেশকে ভালোবাসি, দেশের মানুষকে ভালোবাসি। একে পুজিঁ করে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছি।
বিএনপি-জামায়াত সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, অনেকে যুদ্ধাপরাধীদের ক্ষমতায় আনতে চায়। যারা বাংলাদেশের জন্ম চায়নি। এদের উন্নয়ন চায় না। তারা ক্ষমতায় আসলে কীভাবে এদেশের উন্নয়ন হবে?
প্রেসক্লাবের জায়গা নিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, এই জায়গাটা যাতে প্রেসক্লাব পায় এই ব্যবস্থা বঙ্গবন্ধু করেছেন। লিখিতভাবে প্রেসক্লাবের জমি লিজ দিয়েছিলেন তিনি। তাকে হত্যা করা হলো, এরপর থেকে আর উন্নতি সেভাবে হয়নি।

এ সম্পর্কিত আরও