ঢাকা : ২৮ মার্চ, ২০১৭, মঙ্গলবার, ২:৩৮ পূর্বাহ্ণ
সর্বশেষ
আতিয়া মহলের নিচতলায় ৪টি লাশ হারের বদলা নিতে শ্রীলঙ্কা দলে যুক্ত বাড়তি দুই পেসার, পাল্টে ফেলেছে উইকেটের চিত্রও অভিনেতা মিজু আহমেদ মারা গেছেন মোটরসাইকেলে দুজনের বেশি ওঠলে ৩ মাসের কারাদণ্ড দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচের জন্য টাইগারদের শক্তিশালী একাদশ প্রকাশ আবারও আলোচনার টেবিলে মারুফ, সুখবরের আভাস শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ আগামীকাল, যা বললেন মাশরাফি স্বপ্নের ফাইনালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিপক্ষ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শততম টেষ্টের জয় নিয়ে প্রশ্ন তোলায় আইসিসিকে ধিক্কার জানালো বিসিএসএফ ভারতে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় মুসলিম হত্যা ও ঘর-বাড়িতে আগুন
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

গৃহসজ্জার কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক

পাখিরা যেমন নীড়ে ফিরে, তেমনিভাবে আমরাও ফিরে যাই আপন আলয়ে। নিজের বাড়ি সবারই প্রিয় জায়গা। আর প্রিয় জায়গায়ই থাকে প্রিয় একটি ঘর। নিজের ঘর। তা যেমনই হোক না কেন। ঘরটা হয় খুবই আপন।full_251447085_1477292520

সবাই চায় নিজের ঘরটাকে একটু আলাদাভাবে সাজাতে, নিজের মতো গোছাতে। নিজের ঘর নিজের মতো সাজানোতেই স্বস্তি। কিন্তু তারপরও কিছু ছোট বিষয় মাথায় থাকলে ঘরটা আরও সুন্দর হয়ে উঠতে পারে। গৃহসজ্জার কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক-

গৃহসজ্জা:
১। কোন ছোট ঘরকে বড় দেখতে হলে আপনি ঠিক জানালার বিপরীত দিকের দেয়ালজোড়ায় আয়না লাগাতে পারেন। এতে জানালার আলো আয়নাতে প্রতিফলিত হয়ে ঘরকে বড় দেখতে এবং আলোকিত করতে সাহায্য করে।

২। ঘরের উঁচু ছাদকে নীচু দেখাতে হলে ঘরের দেওয়াল অপেক্ষা গাঢ় শেড ছাদে লাগাতে পারেন।

৩। ঘরের নীচু ছাদকে উঁচু দেখাতে হলে দেওয়ালের সঙ্গে মানানসই হালকা রং লাগাতে পারেন।

৪। প্রসাধনের জন্য আয়নার উপরে আলো না লাগিয়ে আয়নার ঠিক দুপাশে আলো লাগান তাহলে মুখে সমানভাবে আলো পরবে।

৫। ছবির বদলে দেওয়ালে আপনি সুন্দর কারুকাজ করা কাপরের বড় টুকরো অথবা যে কোন ওয়াল-হ্যাঙ্গিং ও টাঙাতে পারেন।

৬। ঘরকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য বারান্দায় ফুলের টব সাজাতে পারি। তাতে প্রকৃতির একটা ছোয়া থাকবে ঘরে।

৭। ঘরে বাহারি ধরণের ফুল ব্যাবহার করতে পারি। তাতে ঘরের সৌন্দর্য বাড়বে।

৮। এমনভাবে আসবাবপত্র তৈরি করা উচিৎ যাতে প্রতিটি আসবাবপত্রের মধ্যেই যথেষ্ট পরিমান স্টোরেজ স্পেস থাকে।

৯। খাবার টেবিল চৌকো এবং গোল ছাড়াও ডিম্বাকৃতি বা কোণাযুক্ত তৈরি করতে পারেন, এতে একঘেয়েমির হাত থেকে রক্ষা পাবেন।

১০। রান্নাঘরে রান্নার জিনিসপত্র ছাড়াও দেওয়ালে একটি ঘড়ি টাঙাতে ভুলবেন না। কারন রান্নার সময় টাইম দেখাটা খুবই খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

১১। ঘরে মানানসই রং-বেরঙ্গের পর্দা ব্যবহার করতেন পারেন যাতে ঘরের ভেতরটাতে একঘেয়েমি ভাব না আসে।

১২। সুইচবোর্ড সবসময় দরোজার পাশে লাগানো ভালো।

১৩। সিঁড়ির উপরে এবং নিচে টুওয়ে সুইচ লাগানো ভালো।

এ সম্পর্কিত আরও

Best free WordPress theme

Check Also

২৪ বছর বয়সে যে ১০ দক্ষতা জরুরি

আপনার বয়স যখন ২৪ বছর তখন নিশ্চিতভাবেই আপনি যথেষ্ট পরিণত। এ সময়ের দক্ষতাগুলো, আপনার বাকি …