ঢাবিতে দু’দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২৫, ২০১৬ at ৭:৩০ অপরাহ্ণ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের উদ্যোগে ‘ব্যবসা ও অর্থনীতি’ শীর্ষক দুইদিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে শুরু হয়েছে।full_600273896_1477401211

সম্মেলনের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘একুশ শতকের জন্য নতুন ব্যবসা’। ঢাবি উপাচার্য  অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে এই সম্মেলন উদ্বোধন করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ ও উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো: আখতারুজ্জামান বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন।

এছাড়া, অস্ট্রেলিয়ার সুইনবার্ন ইউনিভার্সিটির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. বার্নাডিন ভ্যান গ্রামবার্গ, যুক্তরাজ্যের এসেক্স ইউনিভার্সিটির বিজনেস স্কুল-এর ডিন অধ্যাপক ড. জিওফরে টি উড এবং যুক্তরাষ্ট্রের টাফ্টস্ ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. পার্থ এস ঘোষ সম্মেলন বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন। সম্মেলনের কো-চেয়ার অধ্যাপক ড. এম সাদিকুল ইসলাম ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, সারাবিশ্বে মানুষের সমতা ও মর্যাদা রক্ষায় সকলকে মানবিক ও নৈতিক মূল্যবোধে উদ্বুদ্ধ হতে হবে। দারিদ্র ও সমৃদ্ধির মধ্যে বিরাজমান দূরত্ব ঘোচাতে হবে।

তিনি আরো বলেন, গণতন্ত্র, সমতা, উদারতা, শান্তি, মানবাধিকার, দারিদ্র বিমোচন, ধর্ম-নিরপেক্ষতা, বৈজ্ঞানিক উৎকর্ষ সাধন, সাংস্কৃতিক উন্নয়ন তথা মানবতার সার্বিক কল্যাণে আমাদের কাজ করে যেতে হবে। বিশ্ব মানবতার কল্যাণে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ, শিক্ষাবিদ ও গবেষকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) ড. নাসরিন আহমেদ আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এ ধরনের সম্মেলন নিয়মিত আয়েজন হলে শিক্ষক শিক্ষার্থীরা নতুন শতকের ব্যবসার নানা ধরনের জ্ঞান সম্পর্কে জানতে পারবে।

উপ-উপাচার্য (প্রসাশন) ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েঠে এবং আমরা বেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছি। ১৯৭৫ সালে জাতির পিতাকে বর্বরভাবে হত্যা করা না হলে বাংলাদেশ আরো দ্রুত এই অবস্থান অর্জন করত।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, সুইজারল্যান্ড, চীন, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড ও কুয়েতের শতাধিক শিক্ষক ও গবেষক এই সম্মেলনে অংশগ্রহণ করছেন।

এ সম্পর্কিত আরও