Mountain View

উচ্চমূল্যে টিকিট কিনেও বাস না পেয়ে ঢাবি ভর্তিচ্ছুদের সড়ক অবরোধ

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২৮, ২০১৬ at ৯:০৬ পূর্বাহ্ণ

রাজশাহীতে উচ্চমূল্যে টিকিট কিনেও শ্যামলী ও হানিফ পরিবহনের ঢাকাগামী বাস না পেয়ে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু দুই শতাধিক শিক্ষার্থী। এসময় তাদের সঙ্গে রাবির শিক্ষার্থীরাও যোগ দেয়।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনোদপুর ফটকের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা।

এতে মহাসড়কের দু’পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। ঢাকাগামী অন্য বাসগুলোও আটকে পড়ে। ওই সব বাসে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেয়া অন্য ভর্তি পরীক্ষার্থীদের মধ্যেও শংকার সৃষ্টি হয়।

পরে রাত ১২টার দিকে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) কয়েকজন কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে এসে শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দেয়।

৬৫-৭০ জনকে জনি পরিবহনের একটি বাসে তুলে দেয় পুলিশ। এখনও সেখানে প্রায় দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী অবস্থান করছেন।

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা জানান, শুক্রবার সকাল ১০টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা রয়েছে তাদের। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা শেষ করে ঢাকায় যাবে, এজন্য বেশ কয়েকদিন আগে টিকিট কিনে রেখেছিল। ৪৫০ টাকার টিকিট ৬০০ টাকায় কিনতে হয়েছে। তবে নির্ধারিত সময় পার হলেও বাস না আসায় কাউন্টারে জানতে চাই তারা। বারবার তাদেরকে আশ্বস্ত করলেও বাস আসেনি। পরে কাউন্টারের লোকজনও পালিয়ে যায়। বাধ্য হয়ে রাস্তা অবরোধ করেন বলে জানান তারা।

দায়িত্বরত আরএমপি’র পুলিশ কর্মকর্তা মহিউদ্দিন খান জানান, রাত ৯টা ২০ মিনিটে শ্যামলী ও হানিফ পরিবহনের দু’টি বাস যাওয়ার কথা ছিল। ওই দুই পরিবহনের কাউন্টার থেকে বেশ ক’দিন আগে শিক্ষার্থীরা টিকিট নিয়েছিল। বৃহস্পতিবার রাতে নির্ধারিত সময়ে বাস না আসায় সুযোগ বুঝে কাউন্টার দু’টির দায়িত্বরতরা সটকে পড়েছে। তবে কেন বাস আসে নি তা জানা যায়নি।

তিনি আরও জানান, তাদেরকে সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি- ঢাকাগামী অন্যান্য বাসে ওই শিক্ষার্থীদের যাওয়ার ব্যবস্থা করার। কিছু শিক্ষার্থীকে এরই মধ্যে বাসে তুলে দেয়া হয়েছে। অন্যদেরও পাঠাতে পারব বলে আশা করছি।

এ ব্যাপারে জানতে হানিফ ও শ্যামলী পরিবহনের রাজশাহী কাউন্টারে বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সম্ভব হয়নি।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View