Mountain View

বাংলাদেশের যে বড় ক্ষতি করছেন ধর্মসেনা!

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ২৯, ২০১৬ at ১০:২১ পূর্বাহ্ণ

rsh

সাদা চোখে আমরা দেখছি আম্পায়ররা ভুল সিদ্ধান্ত নিলে রিভিউয়ের ব্যবস্থা আছে। কিন্তু ব্যাপারটা এতো সরল নয়। আম্পায়ারদের এই ডজন ডজন ভুল আসলে ঠিকই সর্বনাশ করে দিচ্ছে ক্রিকেটের।

চট্টগ্রাম টেস্টে রিভিউ হয়েছে ২৬টি। এর মধ্যে ১২টি সিদ্ধান্ত আম্পায়ারদের বিপক্ষে গেছে। আজ রিভিউ হয়েছে তিনটি। দুটি ধর্মসেনার বিপক্ষে গেছে। তাহলে প্রশ্ন থাকে বাকীগুলো নির্ভুল ছিলো?

ব্যাপারটা ঠিক তা নয়। বাকীগুলোর বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই সিদ্ধান্তটা ছিলো সন্দেহজনক। কিন্তু যেহেতু রিভিউ আইন অনুযায়ী আম্পয়ারের ফিফটি-ফিফটি ডিসিশন তৃতীয় আম্পায়ার বদলাতে পারে না, তাই কলগুলো টিকে গেছে। মানে, আম্পায়ার একবার ভুল করলে, সেটাকে সত্যিই ভুল বলতে গেলে তৃতীয় আম্পায়ারের হাতে অকাট্য প্রমাণ থাকতে হবে। নইলে বেনিফিট অব ডাউট ব্যাটসম্যানের বদলে আম্পায়ার পাবেন!

ঠিক এই ঘটনা ঘটেছে চট্টগ্রাম টেস্টের শেষে সফিউলের আউটে। এই সিদ্ধান্তই আম্পায়ার নট আউট দিলে, নট আউট থেকে যেতো। আবার আজ তামিমের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা। আম্পায়ার আউট বলেছেন বলে এই ‘শট অফার না করা’ এলবিডব্লু তামিমের বিপক্ষে গেলো।

এখন কথা হচ্ছে, আইন এই রক্ষাকবচ দিচ্ছে আম্পায়ারকে। সেই সুবিধার ফলে আম্পায়াররা এমন ভুল করতে থাকলে শেষ অবদি ভুক্তভোগী তো আমরাই হচ্ছি। আম্পায়ার যদি সঠিক সিদ্ধান্ত দিতে ব্যর্থ হন, একটা ম্যাচে ২৬টা সন্দেহজনক সিদ্ধান্ত দেন; তাহলে তিনি কেনো দায়ী হবেন না।

এ সম্পর্কিত আরও