ঢাকা : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, বুধবার, ৬:২৫ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

এক নজরে দেখে নিন ব্রাম্মনবাড়িয়া জেলার ঐতিহ্য গুলো

20161029094252
১৯৮৪ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা স্তরে উন্নীত হয়। তার আগে এটি কুমিল্লা জেলার একটি মহকুমা ছিল।
বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের গৌরবময় ইতিহাসে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার অবদান অনেক। আবদুল কুদ্দুস মাখনের মত ব্যক্তিরা এখানে বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেন। বাংলাদেশের পূর্ব-মধ্য জেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সেই সাথে চট্টগ্রামের সর্ব উত্তরের জেলা। এক সময় এই জেলা বাংলাদেশের সমতট জনপদের একটি অংশ ছিল। ঈসা খাঁ বাংলায় প্রথম এবং অস্থায়ী রাজধানী স্থাপন করেন সরাইলে।
কুমিল্লার তিনটি সাব-ডিভিশন থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মহকুমা সৃষ্টি হয় ১৮৬০ সালের বৃটিশ আইনে । ১৮৬৮ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহর হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়।
মুঘল আমলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া মসলিন কাপড় তৈরির জন্য বিখ্যাত ছিল। ১৯২১ সালে সমগ্র মুসলিম লীগের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সৈয়দ শামসুল হুদা (১৮৬২-১৯২২) এবং ব্যারিষ্টার আবদুর রসুল (১৮৭৪-১৯১৭) ছিলেন কংগ্রেস তথা ভারত বর্ষের প্রথম সারির একজন নেতা। উল্লাসকর দত্ত (১৮৮৫-১৯৬৫), সুনীতি চৌধুরী, শান্তি ঘোষ, গোপাল দেবের মত অনেক ত্যাগী ও মহান নেতাদের জন্ম দিয়েছে এই ব্রাহ্মণবাড়িয়া।
১৯৭১ সালে স্বাধীনতার যুদ্ধের সময় বীর শ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামাল আখাউড়ায় শহীদ হন।ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নামকরণ নিয়ে একাধিক মত প্রচলিত আছে। লোকমুখে শোনা যায় যে সেন বংশের রাজত্ব্যকালে এই অঞ্চলে অভিজাত ব্রাহ্মণকুলের বড়ই অভাব ছিল। যার ফলে এ অঞ্চলেপূজা অর্চনার জন্য বিঘ্নতর সৃষ্টি হতো। এ সমস্যা নিরসনের জন্য সেন বংশের শেষ রাজা রাজা লক্ষণ সেন আদিসুর কন্যকুঞ্জ থেকে কয়েকটি ব্রাহ্মণ পরিবারকে এ অঞ্চলে নিয়ে আসেন। তাদের মধ্যে কিছু ব্রাহ্মণ পরিবার শহরের মৌলভী পাড়ায় বাড়ী তৈরী করে। সেই ব্রাহ্মণদের বাড়ির অবস্থানের কারণে এ জেলার নামকরণ ব্রাহ্মণবাড়ীয়া হয় বলে অনেকে বিশ্বাস করেন।
অন্য একটি মতানুসারে দিল্লী থেকে আগত ইসলাম ধর্ম প্রচারক শাহ সুফী হযরত কাজী মাহমুদ শাহ এ শহর থেকে উল্লেখিত ব্রাহ্মণ পরিবার সমূহকে বেরিয়ে যাবার নির্দেশ প্রদান করেন , যা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামের উৎপত্তি হয়েছে বলে মনে করা হয় ।
মুক্তিযুদ্ধে ১৯৭১ সালের ৮ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া হানাদার মুক্ত হয়। জেলার মোট জনসংখ্যা ২৮,৪০,৪৯৮ । এর মধ্যে ১৩,৬৬,৭১১ জন পুরুষ এবং ১৪,৭৩,৭৮৭ জন নারী।

#ঐতিহ্যবাহী_উৎসব নৌকা বাইচ – ব্রাহ্মণবাড়িয়ার তিতাস নদীতে শত বছর যাবত ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে । প্রতিবছর মনসা পূজা উপলক্ষে ভাদ্র মাসের প্রথম তারিখে তিতাস নদীতে এ নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়।

#আসিল মোরগ লড়াই – ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে এই ঐতিহ্যবাহী মোরগ লড়াই অনুষ্ঠিত হয়

#গরুর দৌড় – বাঞ্ছারামপুর থানার রূপসদী গ্রামে এই ঐতিহ্যবাহী গরুর দৌড় অনুষ্ঠিত হয়।

#ভাদুঘরের বান্নী (মেলা) – ভাদুঘর তিতাস নদীর তীরে মেলা অনুষ্ঠিত হয়।

#খড়মপুর কেল্লাশাহ (র) মাজার শরীফ এর বার্ষিক ওরশ।

#দর্শনীয়_স্থান_সমূহ_সম্পাদনা ব্রাহ্মণবাড়িয়া ঐতিহাসিক এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থান সমূহ হল –ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহীদ স্মৃতিসৌধ জামেয়া ইউনূছিয়া (বড় মাদ্রাসা) সরাইল জামে মসজিদ (১৬৬২) কালভৈরব মূর্তি (১৯০০ শতাব্দী, উচ্চতা ২৮ ফুট) ভৈরব রেলওয়ে সেতু, বাংলাদেশ-যুক্তরাজ্য মৈত্রী সেতু, কাইতলা জমিদার বাড়ী (নবীনগর), আরিফাইল মসজিদ (সরাইল), কেল্লা শহীদের মাজার (১৮০০ শতাব্দী, খরমপুর), উলচাপাড়া জামে মসজিদ (১৬০০ শতাব্দী), ভাদুঘর শাহী জামে মসজিদ (১৬৬৩ খ্রীষ্টাব্দ), সৈয়দ কাজী মাহমুদ শাহ মাজার (১৬০০ শতাব্দী, কাজীপাড়া), গঙ্গাসাগর দিঘী – আখাউড়া, আখাউড়া স্থলবন্দর তিতাস গ্যাসক্ষেত্র, আশুগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, হাতিরপুল ও ওয়াপদা রেস্ট হাউস (শাহবাজপুর, সরাইল), অদ্বৈত মল্লবর্মনের বাড়ি (গোকর্ণ ঘাট), জিয়া ফার্টিলাইজার লিমিটেড (আশুগঞ্জ), আর্কাইভ জাদুঘর (কসবা), অবকাশ (সদর), বাসুদেব মূর্তি (সরাইল), হরিপুরের জমিদার বাড়ি কৈলাঘর দূর্গ (কসবা), কুল্লাপাথর শহীদ স্মৃতিসৌধ (কসবা), বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের কবর (আখাউড়া), সৌধ হিরন্ময় শহীদ মিনার, তোফায়েল আজম মনুমেন্ট মঈনপুর মসজিদ (কসবা), বাঁশী হাতে শিবমূর্তি (নবীনগর), আনন্দময়ী কালীমূর্তি (সরাইল), লোকনাথ দীঘি,
গ্রিন হেলথ হসপিটাল (গোপিনাথপুর), সৈয়দাবাদ আদর্শ মহাবিদ্যালয় (কসবা), নেমতাবাদ বায়তুল জান্নাত জামে মসজিদ (কসবা)।
এছাড়াও আরো অনেক ঐতিহ্যবাহী স্থান, কলেজ, মাদ্রাসা এই সুন্দর ব্রাম্মনবাড়িয়া জেলার মধ্যে রয়েছে।

 

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

চিরিরবন্দরে বিদ্যালয় ভবন না থাকায় পাঠদান হচ্ছে মাঠে

চিরিরবন্দর(দিনাজপুর) প্রতিনিধি:দিনাজপুর চিরিরবন্দর আব্দুলপুর আন্ধার মুহা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২৬৩ জন ছাত্রছাত্রীর জন্য ভবন না …

Mountain View

আপনার-মন্তব্য