ঢাকা : ২৯ মে, ২০১৭, সোমবার, ৯:০৪ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

সাম্রাজ্যবাদ বিশ্ব মানবতার শত্রু, তারা পরাজিত হবেই

‘সাম্রাজ্যবাদ নয়া উদার গণতন্ত্র এবং ধর্মীয় সাম্প্রদায়িকতা’ শীর্ষক সেমিনার

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)-র কংগ্রেস উপলক্ষে আয়োজিত সেমিনারে বিদেশি অতিথিরা বলেছেন, সাম্রাজ্যবাদ বিশ্ব মানবতার শত্রু, তারা পরাজিত হবেই। বর্তমান বিশ্ব বাস্তবতা সাম্রাজ্যবাদের পরাজয়ের কথাই জানান দিচ্ছে।

শনিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে ২৪ জন বিদেশি প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

সেমিনারে বক্তব্য রাখে, ভারতের সিপিআইয়ের জাতীয় পরিষদ সম্পাদক ডি রাজা, সিপিআই (এম) সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য নীলোৎপল বসু, সর্বভারতীয় ফরওয়ার্ড ব্লকের সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য শ্যামল চক্রবর্তী, সিপিআইয়ের (এমএল) সাধারণ সম্পাদক কে এন পিল্লাই রাম চন্দ্র, নেপালের কমিউনিস্ট পার্টির (ইউএমএল) স্টান্ডিং কমিটির সদস্য ও সাবেক অর্থমন্ত্রী সুরেন্দ্র প্রসাদ পান্ডে, রাশিয়ার কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য আলেকজান্ডার পোতাপভ, ব্রিটেনের কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক সম্পাদক অধ্যাপক জন ফস্টার, জার্মানির এম এল পিডের আন্তর্জাতিক বিভাগের সদস্য থমাস বেইসেনক্যাম্প প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় বাম দলগুলো অসংখ্য ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভাগে বিভক্ত। সাম্রাজ্যবাদ, ধর্মীয় সাম্প্রদায়িকতা এবং উদার গণতন্ত্রের নামে নয়া সাম্রাজ্যবাদী ধারণার বিরুদ্ধে লড়তে হলে সব বাম দলকে এক ছাতার নিচে আসতে হবে। সম্মিলিতভাবে শক্তি সঞ্চয় করে নিপীড়িত মানুষের অধিকার আদায়ের লড়াই সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে।

তারা আরও বলেন, পুঁজিবাদী শাসনব্যবস্থায় উৎপাদিত পণ্যের সুষম বন্টন নিশ্চিত করা যায় না। তাদের উৎপাদন ব্যবস্থার কারণে শোষণ আর লুটপাট বাড়ে। উদার দৃষ্টিভঙ্গির নামে উদারনৈতিকতার চর্চা করে তারা গরিব এবং মধ্যবিত্ত মানুষের মৌলিক অধিকারগুলোকেও বেসরকারিকরণ করে বিপদ বাড়িয়ে দিচ্ছে। এখন আবার যুক্ত হয়েছে নয়া উদারবাদ। এগুলো সবই দরিদ্রদের সম্পদ লুটের ফিকির।

তারা বলেন, সাম্রাজ্যবাদ সংক্রিয়ভাবে শেষ হয় না, তাকে শেষ করতে হয়। সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে সমাজতন্ত্রই একমাত্র বিকল্প। সাম্রাজ্যবাদকে আড়াল করার জন্য এর স্রষ্টারা নতুন নাম করেছে বিশ্বায়ন। বিশ্বায়ন মানে বিশ্বজুড়ে পণ্য পরিসেবা বা বিনিময় বাড়ানো নয়। বিশ্বায়ন মানে লগ্নি পুঁজির বিনিয়োগ বাড়ানো। এর ফলে বিশ্বব্যাপী বৈষম্য প্রকট আকার ধারণ করেছে। তাই এসব প্রতিকূলতা মোকাবিলায় কমিউনিস্ট রাজনীতিকে এগিয়ে নিতে নিপীড়িত মানুষের লড়াই সংগ্রামকে এগিয়ে নিতে তরুণ নেতৃত্ব প্রয়োজন।

কমিউনিস্ট পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য হায়দার আকবর খান রনোর সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদের সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয়ের অধ্যাপক অভিনু কিবরিয়া ইসলাম।

এ সম্পর্কিত আরও

Best free WordPress theme

Check Also

খুলনায় বিএনপি নেতাকে গুলি করে হত্যা

নিউজ ডেস্ক, বিডি টোয়েন্টিফোর টাইমস :  খুলনায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফুলতলা …

আপনার-মন্তব্য