হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ‘অবহেলায়’ প্রসূতির মৃত্যু, বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৩০, ২০১৬ at ১১:১৫ অপরাহ্ণ

ফেনী শহরের মডার্ন সেন্ট্রাল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ‘অবহেলায়’ নবজাতকসহ জান্নাতুল ফেরদাউস সোনিয়ার মৃত্যুর প্রতিবাদে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি দিয়েছে ফেনী সরকারী কলেজের শিক্ষার্থীরা। সোনিয়া ফেনী সরকারী কলেজ হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী ছিলেন।
রোববার সকালে কলেজ গেইটে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন ফেনী সরকারী কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর আবুল কালাম আজাদ, উপাধ্যক্ষ আবু নাসের ভূঁইয়া, হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান কামরুন নাহান, ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সহকারী বিভাগীয় প্রধান শামিমা আক্তার, শিক্ষার্থীর স্বামী আবদুল মতিন, মা শারমিন আক্তারসহ কলেজের সহস্রাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী।
পরে বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসানের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করে।
২৬ অক্টোবর রাতে প্রসূতি জান্নাতুল ফেরদাউস সোনিয়াকে ফেনী মডার্ন সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করায় তার স্বজনরা। ডাক্তার না থাকায় ওই প্রসূতিকে অন্য হাসপাতালে নিয়ে যেতে চাইলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তালবাহানা করে রাতেই অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যায়। সেখানে তিন ঘণ্টা রাখার পর কর্তৃপক্ষ জানায় প্রসূতি সোনিয়া মৃত সন্তান প্রসব করেছে। এর কিছুক্ষণ পর তারা জানায়, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে সোনিয়ার মৃত্যু হয়েছে। পরে রোগীর স্বজনরা খোঁজ নিয়ে দেখেন কোন ডাক্তার না ডেকে হাসপাতালের নার্স দিয়ে প্রসব করানোয় নবজাতক ও মায়ের মৃত্যু হয়।

এ সম্পর্কিত আরও