Mountain View

দ্বিতীয় টেস্টে ‘ইংল্যান্ডকে’ জেতাতে না পেরে টাইগারদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ আইসিসি

প্রকাশিতঃ অক্টোবর ৩১, ২০১৬ at ১১:৫৪ পূর্বাহ্ণ

মোহাম্মদ ইফাদ সরকার , ক্রীড়া প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশ ইংল্যান্ড সিরিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচের ফলাফল ইংল্যান্ডের পক্ষে নিতে কম চেষ্টা করেনি আইসিসি। ফিল্ড আম্পায়ার থেকে শুরু করে থার্ড আম্পায়ার প্রত্যেকেই ইংল্যান্ডের পক্ষেই ব্যাট চালিয়েছেন ।তার মধ্যে তাদের বড় সঙ্গি ছিল ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম বা ডিয়ারএস। নানা রকমের ফন্দি এটে রিভিউ নিয়ে স্ট্যাম্পে লাগা বোলেও বাংলাদেশের পক্ষে রায় দেননি আম্পায়ারেরা । উল্টো দিকে লাইনের একহাত বাইরের বোলেও ইংলান্ডের পক্ষে আঙ্গুল তুলেছিলেন তারা ।  এতেই সপ্ন ভঙ্গ হয়েছে টাইগারদের । জেতা ম্যাচে ২২রানের হার।

ইংল্যান্ড-ভারত-অস্ট্রেলিয়ার মোড়কে প্রায়ই মাঠে নামেন আইসিসি যার উদাহরণ ক্রিকেট ভক্তদের হাতে অড়হর।একেই বলে তিন মোড়ল নীতি। তবে দ্বিতীয় টেস্টে এর সুযোগই পায়নি আইসিসির দালালেরা । পেলেও তার মাত্রা খুবই কম , তাই এই ম্যাচটি জেতা মোটামুটি সহজই হয়েছে টাইগারদের জন্য ।

icc-2তবে ইংল্যান্ড বধের পর টাইগারদের প্রশংশায় পঞ্চমুখ আইসিসি।আইসিসির অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে মেহেদি হাসান মিরাজকে ‘জাদুকর’বলে পোস্ট করেছেন তারা। তার গড়া সকল রেকর্ডেই সেখানে উল্লেখ করে ভাসিয়েছেন প্রশংসার জলে।

icc-1অন্যদিকে একটি বিশেষ ছবি সম্পাদনা করে তাতে বাংলাদেশের ইতিহাস গড়ায় প্রশংশার কমতি রাখেনি আইসিসি। তাতে মেহেদি হাসান মিরাজকে ভবিষ্যত তারকা বলা হয়েছে।

icc-3তবে এই প্রসংশাকে নিছকই স্বড়যত্র বলছেন অনেক টাইগার ভক্ত । কেউ কেউ বলছেন কিছুদিনের মধ্যেই মিরাজের বোলিং অ্যাকশন ‘অবৈধ’ ঘোষনা করে তাকেও চাকার হিসেবে বিলুপ্ত করতে উঠে-পরে লাগবেন ক্রিকেটের তিন মোড়ল। যদিও তার কোন সুযোগই নেই । মেহেদির হাত তো আর বল করার  সময়  বাঁকে না ।  তবে যাই হোক বর্তমানে টাইগারদের উল্লাসের সময়। টেস্টেযে হয়েছে ইংলিশ বধ। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ইংল্যান্ডকে তিন দিনেই পরাজিত করে দেশে ফিরিয়ে দেয়া  কি কম কথা?

এ সম্পর্কিত আরও