Mountain View

শুক্র -শনি নাই, শিক্ষার্থীদের ভাড়া অর্ধেক

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২, ২০১৬ at ৫:৩৩ অপরাহ্ণ

সম্প্রতি ভাড়া নিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বাসের স্টাফদের কয়েক দফা সংঘর্ষ হয়েছে। সর্বশেষ গত ২৫ অক্টোবর রাতে জবির এক সাধারণ শিক্ষার্থীকে পিটিয়েছে মিরপুর থেকে সদরঘাট রুটে চলাচলকারী বিহঙ্গ পরিবহনের স্টাফরা। এ ঘটনায় তাৎক্ষণিক তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে এবং তানজিল, বিহঙ্গ এবং সু-প্রভাত পরিবহনের বাসে ভাঙচুর চালায় বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা।thumb_2299_522x341_0_0_crop

এমতাবস্থায় পুনরায় যেন এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্ম না হয়, স্টাফদের সঙ্গে যেন শিক্ষার্থীদের ভুল বুঝাবুঝি না হয় সে লক্ষ্যেই পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এরই ধারাবাহিকতায় বিষয়টি নিয়ে কথা বললেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) প্রক্টর ড. নুর মোহম্মদ।

শিক্ষার্থীদের পাবলিক বাসে ভাড়া নিয়ে বাস স্টাফদের সাথে শিক্ষার্থীদের দ্বন্দ্বের জের ধরে জবি প্রক্টর বলেছেন, ‘শুক্র কিংবা শনিবার নেই, প্রতিদিনই শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বাসের ভাড়া অর্ধেক নেবে স্টাফরা। তবে শিক্ষার্থীদেরকে তাদের ছাত্র আইডি কার্ড অবশ্যই দেখাতে হবে।’

বুধবার (০২ অক্টোবর) সকালে সু-প্রভাত পরিবহনের দু’টি বাস ভাঙচুরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন প্রক্টর।

তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা তাদের আইডি কার্ড দেখানোর পরও যদি কেউ অর্ধেক ভাড়া নিতে অসম্মতি জানায় তাহলে গাড়ি নম্বর নিয়ে প্রক্টর অফিস বা ছাত্র কল্যাণে অভিযোগ দিলে আমরা প্রশাসনিকভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘অনৈতিক বা পেশিশক্তির জোরে কোন শিক্ষার্থী কোন গাড়ি ভাঙচুরে জড়িয়ে গেলে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ক্ষেত্রে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। কারণ এ ধরনের অপকর্মের ফলে বিশ্ববিদ্যালযের মান ক্ষুণ্ন হচ্ছে।’

এদিকে সু-প্রভাতের গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছয়-সাত জনকে আটক করেছে কোতয়ালি থানা পুলিশ। পরে কোতয়ালী থানার ওসি শাহেন শাহ মাসুদ তাদের বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের হাতে তুলে দেন। এদরে মধ্যে তিন জনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন, মার্কেটিং বিভাগের হামিম তালুকদার সান (১০ম ব্যাচ), পরিসংখ্যান বিভাগের সাদি মাহফুজ (১১তম ব্যাচ), পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শাহরুখ আলম শুভোন ( ১১তম ব্যাচ)।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সকালে ক্যাম্পাসে আসার পথে সু-প্রভাত স্পেশাল পরিবহনের একটি গাড়িতে কয়েকজন শিক্ষার্থীর সাথে বাসে অর্ধেক ভাড়া নিয়ে কথা কাটাকাটির ঘটনা ঘটে। পরে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা তাদের কয়েকজন সহপাঠিকে সাথে নিয়ে সু-প্রভাত পরিবহনের দুটি গাড়ি ভাঙচুর করে।

জবি ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের আসার পথে গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় নেতৃত্ব দেন শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হারুন-তানভির গ্রুপের কর্মীরা এবং আটককৃতরা তাদেরই কর্মী।

জবি প্রশাসন সুত্রে জানা যায়, বিহঙ্গ পরিবহনের স্টাফদের হামলায় গত মঙ্গলবার (২৫অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে রাজধানীর বংশাল মোড়ে এক শিক্ষার্থী আহত হওয়ার রেশ ধরে পরের দিন  ক্যাম্পাসে বাস মালিকদের সাথে বৈঠকে বসেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

তবে এ নিয়ে কোনো ধরনের ব্রিফিং বা  প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত না জানানোর ফলে এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা আরও দেখা দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষার্থীদের অনেকেই।

এ সম্পর্কিত আরও