টেলর সুইফট এখন সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া গায়িকা

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ৩, ২০১৬ at ৮:১৫ পূর্বাহ্ণ

tylor-swift

বিশ্ব সংগীতে সবচেয়ে বেশি পারিশ্রমিক পাওয়া গায়িকার নাম টেলর সুইফট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ‘হ্যালো’ তারকা অ্যাডেলের চেয়ে দ্বিগুণ আয় করেছেন তিনি।

গতকাল (বুধবার) ২ নভেম্বর ব্যবসা সংক্রান্ত ম্যাগাজিন ফোর্বস এ তথ্য জানিয়েছে।

গত বছর তালিকার দুই নম্বরে ছিলেন সুইফট। এবার তার আয় হয়েছে ১৭ কোটি মার্কিন ডলার। ২৬ বছর বয়সী এই পপতারকার আয়ের বেশিরভাগ এসেছে ‘১৯৮৯’ অ্যালবাম প্রকাশের পর সংগীত সফরের বিভিন্ন কনসার্ট থেকে।

চলতি বছরের শুরুতেই অবশ্য তার শীর্ষস্থানটা পাওয়াটা নিশ্চিত হয়ে যায়। তখন ফোর্বসের হিসাবে সবচেয়ে বেশি উপার্জনকারী ১০০ তারকার তালিকায় এক নম্বর স্থান দখল করেন তিনি। মে মাসে বিএমআই পপ অ্যাওয়ার্ডসে তিনি পেয়েছেন প্রথম ‘টেলর সুইফট অ্যাওয়ার্ড’।

তালিকায় সাড়ে ৮ কোটি ডলার আয় করে দুই নম্বরে আছেন ব্রিটিশ গায়িকা অ্যাডেল। এক বছরে এর আগে এতো আয় কখনও হয়নি তার। ২৮ বছর বয়সী এই শিল্পীর ‘২৫’ অ্যালবামটি ২০১৫ সালে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া অ্যালবামের স্বীকৃতি পায়।

২০১৩ সালে এ তালিকায় শীর্ষে ছিলেন ম্যাডোনা। এবার ৭ কোটি ৬৫ লাখ ডলার নিয়ে মার্কিন এই পপসম্রাজ্ঞীর অবস্থান তৃতীয়। তার ‘রেবেল হার্ট’ সংগীত সফর ছিলো সফল।

৫৮ বছর বয়সী ম্যাডোনার খুব কাছাকাছি আয় করেছেন রিয়ান্না। গত ২৮ আগস্ট এমটিভি ভিডিও মিউজিক অ্যাওয়ার্ডসে আজীবন সম্মাননা পাওয়া বারবাডোজের এই তারকা আছেন চার নম্বরে। তার ঠিক পরেই ৫ কোটি ৪০ লাখ নিয়ে পাঁচ নম্বরে রয়েছেন ২০১৪ সালে শীর্ষে থাকা ‘লেমোনেড’ তারকা বিয়ন্সে।

গত বছর তালিকায় শীর্ষে থাকা কেটি পেরি এবার আছেন ছয় নম্বরে। ২০১৫ সালে তিনি সাড়ে ১৩ কোটি ডলার পেলেও এ বছর অঙ্কটা নেমে এসেছে  ৪ কোটি ১০ লাখ ডলারে।

২০১৫ সালের জুন থেকে চলতি বছরের জুন পর্যন্ত ফোর্বসের তালিকায় শীর্ষ দশ গায়িকার আয়ের অঙ্ক দেওয়া হলো মার্কিন ডলারের হিসাবে। গায়িকাদের সম্মিলিত আয়ের পরিমাণ ৬০ কোটি মার্কিন ডলার।

১. টেলর সুইফট: ১৭ কোটি
২. অ্যাডেল: সাড়ে ৮ কোটি
৩. ম্যাডোনা: ৭ কোটি ৬৫ লাখ
৪. রিয়ান্না: সাড়ে ৭ কোটি
৫. বিয়ন্সে: ৫ কোটি ৪০ লাখ
৬. কেটি পেরি: ৪ কোটি ১০ লাখ
৭. জেনিফার লোপেজ: ৩ কোটি ৯৫ লাখ
৮. ব্রিটনি স্পিয়ার্স: সাড়ে ৩ কোটি
৯. শানায়া টোয়াইন: ২ কোটি ৭৫ লাখ
১০. সেলিন ডিওন: ২ কোটি ৭০ লাখ

এ সম্পর্কিত আরও