Mountain View

মিরাজকে নিয়ে এত কিছু অপ্র্যতাশিত, মোস্তাফিজের ব্যাপারটা পুরোই ব্যতিক্রম

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ৫, ২০১৬ at ১১:০৪ অপরাহ্ণ

Mushfiqurনতুন তারকা মেহেদী হাসান মিরাজকে নিয়ে এতো হইচই অপ্রত্যাশিত বলে মনে করেন টেস্ট দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। দৈনিক প্রথম আলো’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি মিরাজসহ বিভিন্ন ইস্যুতে কথা বলেন। টেস্ট অধিনায়কের কাছে পত্রিকাটির প্রশ্ন ছিল- টেস্ট ক্রিকেটে এসেই দুর্দান্ত পারফর্ম করে হইচই ফেলে দিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সংবাদমাধ্যমসহ সারা দেশ এখন তাঁকে নিয়েই আছে। এটাকে কীভাবে দেখেন? জবাবে মুশফিক বলেন, একজন ক্রিকেটারের কাজই হলো পারফর্ম করা। এটা অপ্রত্যাশিত কিছু নয়। ভালো খেলবে বলেই তো মিরাজ জাতীয় দলে!

তবে হ্যাঁ, সে অবশ্যই বিশেষ প্রতিভা। এসেই দারুণ খেলেছে। তবে এটা নিয়ে যে এত কিছু হচ্ছে, তা আসলেই অপ্রত্যাশিত। ও এখনো ১৯ বছরের একটা বাচ্চা ছেলে। দুই-তিন বছর টানা ভালো খেলার পর এ রকম হতে পারে, তার আগে নয়। আল্লাহ না করুন, ওর যখন বাজে ফর্মে যাবে, তখন কিন্তু এত কিছু সে পাবে না। চাপটা অন্য রকম হবে। জাতীয় দলে ভালো খেলতে খেলতে আপনার ওপর সবার আস্থা আসবে। তারপর যখন আপনি খারাপ খেলবেন, মানিয়ে নেওয়াটা তখনই বেশি কঠিন। নাসির-সৌম্যরা এখন সেটা বুঝতে পারছে। তবে মোস্তাফিজের ব্যাপারটা পুরোই ব্যতিক্রম। আমার বিশ্বাস, আমার জীবদ্দশায় ওকে আমি কোনো দিন বাজে ফর্মে দেখব না। ওর মধ্যে আল্লাহ প্রদত্ত কিছু একটা আছে। কোনো কিছুই গায়ে মাখে না।

মুশফিকের কাছে অন্য এক প্রশ্নে জানতে চাওয়া হয়- কোনো সন্দেহ নেই, চন্ডিকা হাথুরুসিংহে একজন ভালো কোচ। তাঁর অধীনে দল সাফল্যও পাচ্ছে। কিন্তু তাঁকে নিয়ে কিছু নেতিবাচক আলোচনাও আছে। নিজের সিদ্ধান্ত জোর করে চাপিয়ে দিতে চান, বিসিবি তাঁকে অনেক বেশি স্বাধীনতা দিয়েছে ইত্যাদি। এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য? উত্তরে মুশফিক বলেন, কেউ সাফল্য পেলে তাকে তো কৃতিত্ব দিতেই হবে। তবে আমি বলব, হাথুরুসিংহে অনেক সৌভাগ্যবান। কারণ দলে এখন এমন অনেক পারফরমার আছে, যারা নিয়মিত ভালো খেলছে। নতুনরা এসেও ভালো খেলছে। এটা তিন বছর আগেও ছিল না। এখানেও অবশ্য কোচকে কৃতিত্ব দিতে হবে, কারণ নতুন হোক বা অভিজ্ঞ খেলোয়াড় হোক তিনি স্বাধীনতা দেন। যার যেটা শক্তির জায়গা, সেটা দিয়ে খেলতে বলেন। তাতে কেউ বাজে আউট হলেও কোচ কিছু বলেন না। সৌম্য, সাব্বিরের মতো যারা স্ট্রোক বেশি খেলে তাদের জন্য এটা অনেক বড় স্বাধীনতা। তবে একটা পরিবারের ভেতর তো অনেক কথাই থাকে। বাংলাদেশ দলও একটা পরিবার। পরিবারের যেসব কথা বাইরের মানুষ না জানলেই ভালো, সেগুলো না বলাই ভালো।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View