Mountain View

যেকোন সময়ে সিটিসেলের তরঙ্গ খুলে দেওয়া হবে

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ৬, ২০১৬ at ৭:৩৬ অপরাহ্ণ

citycel

আদালতের নির্দেশে আজকের (রোববার) মধ্যে সিটিসেলের তরঙ্গ খুলে দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি।আজ (রোববার) ৬ নভেম্বর বিটিআরসি’র বিশেষ কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বিটিআরসি’র সচিব মো. সরওয়ার আলম জানিয়েছেন, আদালতের নির্দেশে সিটিসেলের তরঙ্গ খুলে দেওয়া হচ্ছে। রাতের মধ্যে সিটিসেলের কার্যক্রম চালু হবে।

এদিন সন্ধ্যায় বিটিআরসি’র পরিচালক ইয়াকুব আলীর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি দল রাজধানীর মহাখালীতে সিটিসেল কার্যালয়ে যায়। তারা সিলগালা খুলে দেওয়ার পাশাপাশি অপারেশনাল কার্যক্রম চালু করে দেবে।

বিটিআরসি’র একজন কর্মকর্তা বলেন, অপারেটরটির অফিসে সিটিসেলের অপারেশনাল কার্যক্রমের পাশাপাশি আইজিডব্লিউ ও আইসিএক্সগুলোকে চিঠি দেবে বিটিআরসি।

অন্যান্য মোবাইল অপারেটরগুলোকেও সিটিসেলের সঙ্গে নেটওয়ার্কজনিত কার্যক্রম শুরুর জন্য চিঠি দেওয়া হবে। পৌনে ৫শ’ কোটি টাকা রাজস্ব বকেয়া থাকায় গত ২০ অক্টোবর সিটিসেলের তরঙ্গ ও কার্যক্রম বন্ধ করে দেয় বিটিআরসি।

আদালতের শরণাপন্ন ও আইনি লড়াইয়ে আপিল বিভাগে গেলে আগামী ১৯ নভেম্বরের মধ্যে ১০০ কোটি টাকা পরিশোধের শর্ত সাপেক্ষে গত ৩ নভেম্বর সিটিসেলের তরঙ্গ বরাদ্দ অবিলম্বে খুলে দেওয়ার আদেশ দিয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

আদালতের নির্দেশে সিটিসেলের তরঙ্গ এখন কেন খুলে দেওয়া হচ্ছে না- রোববার সকালে বিষয়টি আপিল বিভাগের নজরে আনেন সিটিসেলের আইনজীবী এএম আমিন উদ্দিন। আপিল বিভাগ এ বিষয়ে বিটিআরসি’র কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছেন। পরে বিটিআরসি’র কমিশন সভায় সিটিসেলের তরঙ্গ ও কার্যক্রম চালুর সিদ্ধান্ত হয়।

বিটিআরসি কর্মকর্তারা বলছেন, সিটিসেলের তরঙ্গ বাতিল করা হলেও আদালতের নির্দেশে খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হলেও ১৯ নভেম্বরের মধ্যে ১০০ কোটি টাকা পরিশোধ না করলে ফের তরঙ্গ বন্ধ করে দেওয়া হবে।

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম ও রিম নিবন্ধনের পর সিটিসেলের গ্রাহক দেড়-দুই লাখে নেমে এসেছে বলে এর আগে জানিয়েছিলো বিটিআরসি।

এ সম্পর্কিত আরও