Mountain View

শরীয়তপুরে বখাটের হামলায় ৮ জেএসসি পরীক্ষার্থী আহত

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ১০, ২০১৬ at ১০:৫২ অপরাহ্ণ

শরীয়তপুরের বিনোদপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ জন জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার্থীদের পিটিয়ে আহত করেছে বখাটেরা। প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাক্ষান করায় এ মারধর করা হয়। আহত শিক্ষার্থীরা সদর উপজেলার বিনোদপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের জেএসসি পরীক্ষার্থী। আহত শিক্ষার্থীদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।full_2870232_1478791434

আহত শিক্ষার্থী ও অভিভাবক সূত্রে জানা যায়, বিনোদপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের জেএসসি পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্র পরে আংগারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে। অটোবাইক চালক ইমরানের গাড়িতে নিয়মিত পরীক্ষা কেন্দ্রে যাতায়াত করে শিক্ষার্থীরা। গত বুধবার পরীক্ষা শেষে ফেরার পথে অটোবাইকের গতি রোধ করে দড়ি হাওলা গ্রামের আবু তালেব শিকদারের মেয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী ইতির কাছে মোবাইল ফোন নম্বর চায় দেওয়ান কান্দির আজিজ দেওয়ানের বখাটে ছেলে আমির (২২), মান্নান দেওয়ানের ছেলে শামিম (২১) ও দিলু মুন্সীর ছেলে আবুল হোসেন (২০)। মোবাইল নম্বর না দেওয়ায় বৃহস্পতিবার দুপুরে ইতিকে দেওয়ান কান্দি এলাকায় বখাটেরা মারপিট করে। এ সময় সহপাঠী মিম, রহিমা, সুরমা, জসিম, সজিব, সাইফুল ও কাওছার বাঁধা দেয়ায় বখাটেরা পিটিয়ে আহত করে।

আহাত ইতি বলেন, অটো চালক ইমরানের কাছে আমার ফোন নম্বর চায় বখাটে শামিম। আমি ফোন নম্বর দিতে রাজি না থাকায় ইমরান শামিমকে জানায়। বখাটে শামিম ক্ষিপ্ত হয়ে তার অপর বখাটে বন্ধুদের নিয়ে আমার ফেরার পথে অপেক্ষা করে। আজ শারিরীক শিক্ষা পরীক্ষা শেষে ফেরার পথে দেওয়ান কান্দি মোড়ে আসলে আমাকে বখাটেরা মারপিট করে। আমার সহপাঠীরা বাঁধা দেয়ায় তাদেরও মারে।

প্রত্যক্ষদর্শী শরীফ বেপারী জানায়, ইতিকে বিনা কারণে বখাটে শামিম তার বন্ধুদের নিয়ে মারপিট করে। আমরা বাঁধা দেয়ায় আমাদেরও বেদম মারপিট করে। শামিম ও তার বখাটে বন্ধুরা লেখা পড়া করে না। রাস্তার পাশে বসে বিদ্যালয়গামী মেয়েদের ডিস্টার্ব করে শামিমরা

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ বাবুল মিয়া বলেন, শিক্ষার্থীরা আমার কাছে মাঝে মাঝে বলে তাদের যাতায়াতের পথে বখাটেরা ইভটিজিং করে। আজ এত বড় ঘটনা ঘটাবে তা বুঝতে পারিনি। আমি বখাটেদের বিষয়ে থানায় অভিযোগ করবো।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুমন কুমার পোদ্দার বলেন, বিকাল ৫টার দিকে ৮ জন শিক্ষার্থী জরুরী বিভাগে আসে। তাদের শরীরে নিলা-ফুলা জখম ছিল। লাঠি দিয়ে আঘাতের ফলে এ ধরণের জখম হয়। তাদের ভর্তি নেয়া হয়েছে।

পালং মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ খলিলুর রহমান বলেন, বিনোদপুর পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বখাটেরা মারপিট করে। খুব শিঘ্রই বখাটেদের আইনের আওতায় আনা হবে।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View