ঢাকা : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, সোমবার, ২:৩৫ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

জিনের বাদশা সেজে দুই বোনকে ধর্ষণ

ডোমার উপজেলার জোড়াবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পাড়ার একটি পরিবারের সঙ্গে পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে ওই বাড়িতে গত দুই মাস ধরে যাতায়াত শুরু করে আফজাল হোসেন। আফজাল নিজেকে জিনের বাদশা পরিচয় দিয়ে ওই পরিবারকে ২০ লাখ টাকা পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেখান।image_93429_0

অভিযোগে জানা যায়, ২০ লাখ টাকা পেতে হলে ওই পরিবারকে বিভিন্ন স্থানের ৮৫টি মাজার শরীফে দান হিসেবে এক হাজার করে মোট ৮৫ হাজার টাকা দিতে হবে বলে জানানো হয়। টাকার প্রলোভনে পড়ে সহজ সরল ওই পরিবারটি সম্প্রতি গবাদী পশু বিক্রি করে ৮৫ হাজার টাকা আফজালের হাতে তুলে দেন। টাকা পাওয়ার পর আফজাল হোসেন পরিবারটির সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন।

দীর্ঘদিনেও জিনের টাকা না পাওয়ায় ওই পরিবারটি মোবাইলে আফজালের সঙ্গে যোগাযোগ করলে আফজাল আরও ৩০ হাজার টাকা নিয়ে তাদের পরিবারের সবাইকে তার (আফজালের) পুলিশ লাইন্সস্থ বাড়িতে আসতে বলে।

আফজালের কথামতো ওই পরিবারের অভিভাবক, তার স্ত্রী ও দুই মেয়েকে নিয়ে ৪ নভেম্বর নীলফামারীতে আসেন। ওইদিন গভীর রাতে আফজাল তার ঘরে জিনকে নিয়ে আসার কথা বলে ওই পরিবারের বড় মেয়ে এক সন্তানের জননী ও ৫ নভেম্বর ছোট মেয়ে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের পর মেয়ে দুটিকে বুঝানো হয় তোমাদের সাথে যা হয়েছে তা জিন করেছে। এ কথা প্রকাশ করলে তোমাদের মারাত্মক ক্ষতি হবে। ঘটনার পর ছোট মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়লে ঘটনাটি ফাঁস হয়ে যায়।

ঘটনা জানাজানি হয়ে পড়লে গা ঢাকা দেয় জিনের বাদশা আফজাল হোসেন। এদিকে লোক-লজ্জার ভয়ে আত্মগোপনে রয়েছে ভুক্তভোগী পরিবারটিও।

ওই এলাকার ইউপি সদস্য রশিদুল ইসলাম বলেন, আফজাল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে এলাকার সহজ-সরল মানুষের চরম ক্ষতি করে আসছে।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

handcuff

মেহেরপুরে বিশেষ অভিযানে ৪১ আসামি গ্রেপ্তার

মেহেরপুরে বিশেষ অভিযানের তৃতীয় দিনে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্তসহ বিভিন্ন মামলার আরো ৪১ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *