Mountain View

কুলিয়ারচরের দুই যুবক আবিস্কার করলো ব্যাটারী চালিত সেচ মেশিন

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ১৩, ২০১৬ at ৬:৩৬ অপরাহ্ণ

বিশেষ প্রতিনিধি, মোঃ মাইন উদ্দিনঃ বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়কে সামনে রেখে কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে তার বিহীন ইন্টানেট আবিস্কারের পর এবার দুই যুবক মিলে আবিস্কার করলো বিদ্যুত্ ও ডিজেল বিহীন উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ব্যাটারী চালিত সেচ মেশিন। যে মেশিনটি চালাতে বিদ্যুত্ অথবা ডিজেলের কোনো প্রয়োজন হয় না। এমন কি এটা সম্পূর্ণ ব্যাটারীর সাহায্যে ঘন্টার পর ঘন্টা চলবে বলেও দাবী করছেন এই দুই যুবক ।

এ ব্যাপারে সরেজমিনে দুই যুবক মোঃ জিল্লুর রহমান (২৭) ও মোঃসোহাগ (২১) এর গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর উপজেলার গোবরিয়া-আব্দুলাপুর ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামে গিয়ে দেখা যায় উত্ফুল্ল জনতা এই সেচ মেশিনটি দেখতে তাঁদের বাড়িতে ভিড় জমিয়েছে। এসময় কথা হয় দুই যুবক মোঃ জিল্লুর রহমান ও মোঃ সোহাগের সাথে, তাঁরা ব্যাটারী চালিত সেচ মেশিন আবিস্কারের ব্যাপারে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে এই প্রতিনিধিকে মোঃ জিল্লুর রহমান বলেন, আমি আমাদের দেশের গরিব কৃষকদেরকে কি ভাবে বিদ্যুত্ ও ডিজেল খরচ থেকে বাচানো যায় এ কথা চিন্তা করে দীর্ঘ ১৫ বছর যাবত মোঃ সোহাগ কে সাথে নিয়ে বিভিন্ন ভাবে গভেষণার ফলে এতো দিনে আমরা সফল হয়েছি।মেশিনটি দেখলাম, কিন্তু এটা কিসের সাহায্যে চলছে এমন একপ্রশ্নের উত্তরে মোঃ সোহাগ বললেন, এখানে আমরা মেশিনের ভিতরে এমন একটি প্রযুক্তি ব্যবহার করছি, যার মাধ্যমে ব্যাটারী মেশিন চলাকালিন সময় অটো চার্জ হতে থাকে এবং ঘন্টার পর ঘন্টা বন্ধ না করলেও চার্জের কোন ঘাটতি দেখা দেয়নি।

আবিস্কৃত এই মেশিনটি কতদিন নাগাত অত্র এলাকার কৃষকদের কাছেপৌছে দেওয়া যাবে এমন আরেক প্রশ্নের উত্তরে তাঁরা
বলেন, দেখি আমাদের পরিকল্পনা আছে অনেক বড়। সবশেষে দুই যুবকের কথায় এমনটায় বুঝা যায় যে, তাঁরা সরকার অথবা কোনো সংস্থার পক্ষ থেকে আর্থিক সহযোগীতা পেলে অচিরেই কৃষকদের কাছে পৌছে দিতে পারবে তাঁদের আবিস্কৃত বিদ্যুত্ ও ডিজেল বিহীন এই ব্যাটারী চালিত সেচমেশিনটি ।

আর অত্র এলাকার কৃষকরাও ধারণা করছেন এই মেশিনটি তাঁরা হাতেপেলে অনেক কম খরচে জমিতে সেচের চাহিদা মিটাতে পারবে।বিদ্যুত্ ও ডিজেল বিহীন এই সেচ মেশিনটি কত টাকার মধ্যেকৃষকদের কাছে পৌছে দেওয়া যায় এমন প্রশ্নের উত্তরে দুই যুবক বলেন, মেশিনটি আমরা  সর্বনিম্ন ৫০০০০ হাজার টাকার মধ্যেই কৃষকের হাতে পৌছে দিতে পারবো।কৃষকরা এটি ব্যবহারে কি ধরণের সুবিধা পেতে পারে এমন কথার প্রসঙ্গে তাঁরা বলেন, লোডশেডিং এর জামেলা, শব্দ দূষন, বায়ু দূষনসহ কৃষকদের জমিতে পানি উঠানোর জন্য আমাদেরআবিষ্কৃত মেশিন সর্বাদিক উন্নত, যা আমরা পরিক্ষামূলক প্রমাণ পেলাম ।

প্রাথমিক পরিক্ষায় দেখা যায়, আমাদের আবিস্কৃত মেশিন দিয়ে বিদ্যুত্ না থাকলেও কৃষকরা গভীর-অগভীর নলকূপ, স্যালো, ডিপটিউবওয়েল সহ এই মেশিনের মাধ্যমেই জমিতে সেচ দিতে পারবে। মেশিনটি আবিস্কারের ফলে প্রাথমি ভাবে ধরাণা করা হচ্ছে যে, এটির সর্বাধিক বিস্তার ঘটলে বাংলাদের কৃষি ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক বিপ্লব বয়ে আনতে পারে এমনটাই ধারণা করা হচ্ছে ।আবিস্কৃত মেশিনটার ভিডিও দেখতে Mamun net tv লিখেYoutub.com এ সার্চ দিন এবং এই বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানতে ফোন করুনঃ01725722910, 01767820115

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View