মকবুল আহমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ভিত্তিহীন: জামায়াত

500x350_5b2f2dbdf505812c23c0800c6e66708f_thumb02144d24142bcabb601e708c1b2a3cfbস্টাফ রিপোর্টার : জামায়াতে ইসলামীর আমীর মকবুল আহমাদের বিরুদ্ধে উত্থাপিত একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছে জামায়াত।

সোমবার জামায়াতের নায়েবে আমীর ও সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক মুজিবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এই দাবি জানানো হয়।

এতে বলা হয়, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের তদন্ত সংস্থার সমন্বয়ক হান্নান খান তদন্ত সংস্থার কার্যালয়ে আজ ১৪ নভেম্বর আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর জনাব মকবুল আহমাদের “মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার প্রাথমিক তথ্য প্রমাণ রয়েছে” মর্মে ভিত্তিহীন মিথ্যা মন্তব্য করা হয়েছে।

বিবৃতিতে অধ্যাপক মুজিবুর বলেন, “১৯৭১ সালে জনাব মকবুল আহমাদ ফেনীর একটি স্বনাম ধন্য উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। তখন তিনি রাজাকার বা রাজাকার কমাণ্ডার বা শান্তি কমিটির সংগঠক তো দূরের কথা একজন সাধারণ সদস্যও ছিলেন না। কাজেই মুক্তিযুদ্ধের সময় তার মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার প্রাথমিক তথ্য প্রমাণ থাকার প্রশ্নই আসে না।”

তিনি আরো বলেন, জামায়াতের আমির তো রাজাকার বাহিনীর সাথে জড়িত ছিলেন না। সুতরাং তার নাম রাজাকারের তালিকায় আসবে কোথা থেকে? তার বিরুদ্ধে ৭ থেকে ১১ জনকে হত্যা এবং তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান ছাত্র ইউনিয়নের নেতা মুক্তিযোদ্ধা মাওলানা ওয়াজ উদ্দিনকে হত্যার নির্দেশ দানের যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সর্বৈব মিথ্যা। কোন হত্যাকাণ্ডার সাথেই তিনি জড়িত ছিলেন না।মিথ্যা মামলায় জড়ানোর অসৎ উদ্দেশ্যেই তার বিরুদ্ধে নানা মিথ্যা অভিযোগ উত্থাপন করা হচ্ছে।

বিবৃতিতে মকবুল আহমাদের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন মিথ্যা অভিযোগ উত্থাপন করে তাকে রাজনৈতিকভাবে হয়রানি করা থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

এ সম্পর্কিত আরও

Leave a Reply