ঢাকা : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, বৃহস্পতিবার, ৬:১১ পূর্বাহ্ণ
সর্বশেষ
ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি কার্যক্রম বন্ধে আইনি নোটিশ ‘রোহিঙ্গাদের অবারিত আসার সুযোগ দিতে পারি না’প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে ২১ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম দেশে এইচআইভি আক্রান্ত ৪ হাজার ৭২১ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানাজায় লাখো মানুষের ঢল,শেষ শ্রদ্ধায় শাকিলের দাফন সম্পন্ন ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপে ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ৯৭ সংসদে রোহিঙ্গা ইস্যুতে যা বললেন প্রধানমন্ত্রী বগুড়ায় জাতীয় বিদ্যুৎ ও জ্বালানী সপ্তাহ ২০১৬ উদ্বোধন ও র‌্যালী অনুষ্ঠিত অভিনয়েই নয় এবার শিক্ষার দিক দিয়েও সেরা মিথিলা শিশুদের ওজনের ১০ শতাংশের বেশি ভারী স্কুলব্যাগ নয়
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

এখনো কুমিল্লার আশা শেষ হয়ে যায়নি

cymera_20161115_103130

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানসের ইনিংসের ১২তম ওভারে মাশরাফি যখন ব্যাটিংয়ে এসেছেন, তখন দলটির অবস্থা খুবই নাজুক। জয়ের জন্য লক্ষ্য ১৯৫ রান। কিন্তু জয়ের রসদ নামক অস্ত্র উইকেট নেই। বলও তেমন নেই। রান মাত্র ৭৭। উইকেটও পড়ে গেছে ৭টি। মানে ভীষণ চাপে থাকা একটি দল, যারা হারের আনুষ্ঠানিকতাটুকুর জন্যই হয়তো অপেক্ষা করছিলো।

ঠিক এমন অবস্থায় দেখা গেল হঠাৎ করেই মিরপুরের গ্যালারিতে উল্লাস শুরু হয়ে গেছে, কিছুটা প্রাণ ফিরেছে মাঠেও। কারণ মাশরাফি সাকিবকে ছয় মেরেছেন। ভালো কথা, মাশরাফি তো ছয় মারেনই এ আবার নতুন কী? কিন্তু এই উল্লাস স্বল্পস্থায়ী হলো না, চললো বেশ লম্বা সময়ব্যাপী।

একটি দু’টি নয়, গুণে গুণে সাকিবকে চারটি ছয় মারলেন মাশরাফি। কুমিল্লার দলীয় রানও হয়ে গেল ১৪৩। ততক্ষণে দলটির বিপিএলে এবারের আসরে তিন ম্যাচের ১৩২, ১২৯, ও ১৩১ রানের স্বল্প সংগ্রহ ছাড়িয়ে গেছে। জয়ের জন্য মাশরাফিদের প্রয়োজন আরও ৫২ রান। কিন্তু ওভার আছে মাত্র ১টি।

আর মাশরাফির ঝড়ো ব্যাটিংয়ের এই সংগ্রহে সতেজ হয়ে উঠলো ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের ডাগ আউট, ফলে উল্লাস ফিরলো গ্যালারিতেও। কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গেছে। কারণ হাতে কুমিল্লার হাতে উইকেট নেই, ওভারও নেই, হারের প্রহর গুণতে থাকা অবস্থা যাকে বলে। অবশেষে সেই অবস্থার পূর্ণতা পেল বিষতম ওভারে। মোহাম্মদ শহীদের তৃতীয় বলটিতে বলে বোল্ড আউট হয়ে মাশরাফি যখন ৩৫ বলে ৪৭ রানের বিস্ফোরক এক ইনিংসে খেলে ড্রেসিং রুমে ফিরে গেলেন।

মাশরাফির এই বিস্ফোরক ইনিংস ও আরেক টেলএন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের ৮ বলে ১৮ রানের ঝড়ো ইনিংসে কুমিল্লা নির্ধারিত ২০ ওভারে পেলো ১৬১ রানের সংগ্রহ। আর তাতেই এবারের বিপিএলে ১৩০ রানের কোটা পর হয়ে কুমিল্লার যোগে দিল ১৬০’র ক্লাবে। যা কিনা টানা হারের গ্লানিতে আত্নবিশ্বাস হারানো দলটির কাছে একটি প্রেরণা বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

‘ঢাকায় হয়নি তো কী হয়েছে? চট্টগ্রামে হবে, হয়তো হবে। দলের টপ অর্ডার ইমরুল কায়েস তেমটিই ভাবছেন। তার ভাষ্যমতে, ‘এই ম্যাচে ১৯০ রানটা বেশিই। আমি বলবো আজকে আমরা যে খেলাটা খেলছি বিশেষ করে মাশরাফি ভাই শেষে যে ব্যাটিং করেছে সেটা আমাদের দলের জন্য একটি ইতিবাচক দিক। কেননা এরআগে প্রতিটি ম্যাচেই আমরা ১২০ কিংবা ১৩০ এ অলআউট হয়ে গেছি। অবশ্যই দলের জন্য এটা বুস্ট হওয়ার মত বিষয়। পরের ম্যাচে যদি আমরা এই আত্নবিশ্বাস ধরে রাখতে পারি তাহলে অবশ্যই ভালো করবো।’

গতকাল (সোমবার) ১৪ নভেম্বর ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলেন এসে এভাবেই মাশরাফির দায়িত্বশীল ব্যাটিং ও নিজেদের ভবিষ্যত ভাবনার কথা জানালেন ইমরুল।

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন একটি দল হারের বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসবে, ফিরে পাবে ছন্দ, মাঠের লড়াইয়ে প্রাণ ফিরিয়ে এনে বিপিএলকে করবে আরও প্রাণবন্ত এটাই সবার প্রত্যাশা।

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

অভিনয়েই নয় এবার শিক্ষার দিক দিয়েও সেরা মিথিলা

জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে আরলি চাইল্ডহুড ডেভেলপমেন্ট বিষয়ে স্নাতকোত্তর করে সিজিপিএ-৪ পেয়েছেন। …

Mountain View

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *