জলবায়ু সম্মেলন শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ১৭, ২০১৬ at ৯:২৮ পূর্বাহ্ণ

sheikh-hasina

বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন-কনফারেন্স অব পার্টিস (কপ-২২)-এর উচ্চপর্যায়ের দুটি কর্মসূচিতে যোগদান শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মরক্কোর মারাকাসের বাব ইগলিতে ৮০টি দেশের রাষ্ট্র প্রধান ও সরকার প্রধান এবং ১১৫টি দেশের সিনিয়র মন্ত্রীরা এ সম্মেলনে যোগদান করেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি-১০২০ ভিভিআইপি ফ্লাইটটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

এর আগে বুধবার (১৬ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত সোয়া ৯টার পর দেশে ফেরার উদ্দ্যেশে মারাকাসের মিনারা বিমানবন্দর ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী। বিমানবন্দরে তাকে বিদায় জানান মরক্কোর সংস্কৃতিমন্ত্রী মোহামেদ আমিন সবিহি, মরক্কোয় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সুলতানা লায়লা হোসেন এবং মরক্কো সরকার ও বাংলাদেশ দূতাবাসের সিনিয়র কর্মকর্তাবৃন্দ।

মরক্কো সফরকালে হোটেল লা মামৌনিয়াতে অবস্থান করেন শেখ হাসিনা। সে সময় তার সঙ্গে ছিলেন পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীসহ ৫৮ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল।

সম্মেলনে জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি মোকাবেলায় একটি গবেষণা, উদ্ভাবন ও প্রযুক্তি হস্তান্তরের মাধ্যমে পানি খাতে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে একটি বৈশ্বিক ফান্ড গঠনের প্রস্তাব দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জলবায়ু পরিবর্তনের মারাত্মক হুমকি মোকাবেলায় সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। এছাড়া সম্মেলনে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে বিশ্বের অস্তিত্বে ঝুঁকির বিষয়ে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনের বক্তব্যের প্রতি সবার আরও মনোযোগ দেওয়ারও আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, প্যারিস চুক্তি বাস্তবায়নের রূপরেখা ঠিক করতে মরক্কোর মারাকাসে অনুষ্ঠিত বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন-কনফারেন্স অব পার্টিসে (কপ-২২) যোগদান করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল সোমবার সকালে ঢাকা ছেড়ে যান।

এবারের সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের ৫৮ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিয়েছেন। তার সফরসঙ্গী অন্যদের মধ্যে ছিলেন পরিবেশ ও বন মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী, পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং পরিবেশ ও বন প্রতিমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব।

ঐতিহাসিক প্যারিস চুক্তির পর এটাই প্রথম বৈঠক হচ্ছে। প্যারিস চুক্তিকে প্রথমেই যে কয়টি দেশ অনুসমর্থন করেছে তার মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবের অন্যতম শিকার বাংলাদেশ। বিশ্বে এ বিষয়ক আলোচনা ও দর কষাকষিতেও বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও