ঢাকা : ২৮ জুন, ২০১৭, বুধবার, ৯:৫৩ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

ড্রোন দিয়ে স্ত্রীর পরকীয়া ধরলেন স্বামী!

fb_20161117_10_22_44_saved_pictureআন্তর্জাতিক ডেস্কঃ  ড্রোনের সাহায্যে ভিডিও করে পরকীয়ায় মত্ত স্ত্রীকে হাতেনাতে ধরলেন আমেরিকান যুবক জন জি। যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর পেনসিলভানিয়ায় স্ত্রীকে নিয়ে থাকেন তিনি। ১৮ বছর আগে বিয়ে হয়েছে তাদের। কিশোর বয়সী দুটি সন্তান আছে তাদের। পরকীয়ার ব্যাপারে স্ত্রীকে সন্দেহ করলেও সরাসরি ধরতে পারছিলেন না। অবশেষে ড্রোনের মাধ্যমে ভিডিও করে স্ত্রীর পরকীয়া হাতেনাতে ধরে ফেলেন জন।
 
শুধু ভিডিও ধারণ করেই ক্ষান্ত হননি জন। পরকীয়ায় মত্ত স্ত্রীর ভিডিওটি ইউটিউবেও ছড়িয়ে দিয়েছেন। ভিডিওটি ইতিমধ্যে কয়েকলাখ মানুষ দেখেছেন। ড্রোন দিয়ে ধারণ করা সেই ভিডিওতে দেখা যায়, অফিসে যাওয়া কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে তার স্ত্রী অন্য রাস্তায় গিয়ে দাঁড়ান।
 
অফিসে যাওয়ার জন্য যেভাবে চুল পরিপাটি করে সাজিয়েছিলেন সেটি খুলে নতুন করে সাজান তিনি। তারপর মোবাইলে কারো সাথে কথা বলেন। এরপর একটি কালো রংয়ের গাড়ি তার সামনে এসে দাঁড়ায়। এরপর সেই গাড়িতে চড়ে চলে যান জনের স্ত্রী।
 
জন দাবি করেন, গাড়িতে ওঠার আগে গাড়ির ওই যুবককে চুম্বন করেন তার স্ত্রী। তবে দৃশ্যটিতে সেই ঘটনা স্পষ্ট দেখা যায়নি। তিনি জানান, এ ঘটনার পর আর স্ত্রীর সাথে সংসার করবেন না। ইতিমধ্যেই তিনি তার আইনজীবীকে ডিভোর্স পেপার তৈরি করতে বলেছেন। কিছুদিনের মধ্যেই তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যাবে।
 
ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করার পর মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়। ব্রিটেনের প্রভাবশালী সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইল জনের একটি সাক্ষাৎকার নেন। সাক্ষাৎকারে জনের হৃদয়বিদারক অনুভূতির কথা উঠে আসে। বিয়ের ১৮ বছর পর স্ত্রীর পরকীয়া জানতে পেরে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন তিনি। এ ঘটনায় স্ত্রীর পাশাপাশি যে যুবকের জন্য তার সংসার ভেঙে যাচ্ছে, তার উপরও তিনি খুব ক্ষিপ্ত হন।
 
জন বলেন, ‘সেদিন সম্পর্কে আমি বেশি কিছু জানতে চাই না। কিছু কারণে সেই যুবকের উপর আমার আক্রোশ রয়েছে। আমি মানছি এ ঘটনায় ওই যুবক একাই দায়ী নয়। কারণ, আমার স্ত্রী তার কাছে না গেলে সে তার সাথে সম্পর্ক করতে পারত না। কিন্তু তারপরও তার জন্যই আজ আমার সংসার ভেঙে যাচ্ছে। সেজন্য তার উপর আমার রাগ হচ্ছে। আমার মনে হচ্ছে, তাকে খুন করে ফেলি। সে আমার ১৮ বছরের সংসার ধ্বংস করে দিচ্ছে।’
 
এ ঘটনার পর কয়েকদিন স্ত্রীর সাথে কথা বলেননি জন। স্ত্রীর মুখও দেখেননি। তাদের কিশোর বয়সী দুটি সন্তান রয়েছে। নিজের জীবনের চেয়েও সন্তানদের জীবন নিয়ে বেশি চিন্তিত জন। কারণ, তার স্ত্রী হয়তো বিয়ে করে আবার সংসার শুরু করবেন কিন্তু তার সন্তানদের ভবিষ্যৎ কী হবে? কথাগুলো বলতে গিয়ে বার বার কাঁন্নায় ভেঙ্গে পড়ছিলেন জন। আবার মাঝে মাঝে রাগে হুংকার দিয়ে উঠছিলেন।
 
স্ত্রীর এই প্র্রতারণার জন্য মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন জন। তিনি বলেন, ‘আমি যদি এই পদক্ষেপ না নিতাম তাহলে কোনোদিনও জানতেই পারতাম না, সে আমার সাথে প্রতিনিয়ত প্রতারণা করে চলেছে। সে আমার জীবন ধ্বংস করে দিয়েছে। আজ ১৮ বছর ধরে তার সাথে সংসার করি। কোনোদিনও আমি তার সাথে খারাপ ব্যবহার করিনি। অথচ এভাবে সে আমার জীবন ধ্বংস করে দিল!’
 
ভিডিও ধারণ করার দুদিন পার হলেও সে বিষয়ে স্ত্রীকে কিছু বলেননি জন। তার স্ত্রীও তার কোনো ভুল স্বীকার করেননি। তার পরকীয়ার ব্যাপারে স্বামী কিছুই জানেন না বলেই মনে করছেন তিনি। তৃতীয় দিনের মাথায় স্ত্রীকে বিষয়টি জানান জন। আর এও জানান যে, ভিডিওটি এখন ই্উটিউবে আপলোড করা হয়েছে এবং ডিভোর্স পেপারও প্রস্তুত করা আছে। ঘটনা জানার পর কাঁদতে শুরু করেন তার স্ত্রী। পরকীয়ার জন্য জনের কাছে বারবার মাফ চান তিনি।
 
জন বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে তার সাথে কথা বলেছি। ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করায় সে খুব দুঃখ পেয়েছে। যখনই তার কাছে বিষয়টি জানতে চেয়েছি তখনই সে কাঁদতে কাঁদতে আমার সামনে থেকে চলে গেছে।’
 
এরপর থেকেই স্বামী স্ত্রীর মধ্যে দূরত্ব বাড়তে থাকে। এক সময় স্বামী জন স্ত্রীর ফোন রিসিভ করা বন্ধ করে দেন। আর সন্তানদেরও তার কাছে থেকে আলাদা রাখেন।
 
জন পেশায় একজন ফটোগ্রাফার। পেশাগত কারণে দিনের বেশির ভাগ সময় তিনি বাড়ির বাইরে থাকেন। আর এ সুযোগে স্ত্রী অন্য পুরুষের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন।
 
জন বলেন, ‘বিয়ের পর আমাদের সম্পর্ক খুব ভালো ছিল। সে কখন থেকে আমার সাথে প্রতারণা করা শুরু করেছে তা জানি না। তবে মনে হয় খুব বেশিদিন হবে না। আগে সে বাড়িতেই থাকত। প্রায় ছয় মাস আগে থেকে একটি চাকরি নিয়েছে সে। আর চাকরি নেওয়ার পর থেকেই তাকে আমার সন্দেহ হয়। এ ঘটনার পর তার সাথে কোনোভাবেই সংসার করা সম্ভব না।’

এ সম্পর্কিত আরও

Check Also

সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে মার্কিন বিমান হামলা; নিহত ৫৭

সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস নিয়ন্ত্রিত একটি কারাগারে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় অন্তত …

আপনার-মন্তব্য