অস্ট্রেলিয়ার নতুন প্রধান নির্বাচক হন্স

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ১৮, ২০১৬ at ৯:০৪ অপরাহ্ণ

images-16-520x245আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ  একটি লজ্জাজনক পরাজয়ই ওলট পালট করে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটকে। দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ইনিংসের ব্যবধানে পরাজয়ের কারণে প্রধান নির্বাচকের পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন রডনি মার্শ। শুধু তাই নয়, অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটে তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে, আসলে সমস্যা কোথায়?

রডনি মার্শ পদত্যাগ করার পর পরই জরুরী বৈঠকে বসেছিল অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড। সেই সভায় অন্তর্বর্তীকালীন হিসেবে নতুন নির্বাচক প্যানেল নিয়োগ দিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। রডনি মার্শের পরিবর্তে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ট্রেভর হন্স। তার সঙ্গে নির্বাচক কমিটিতে যোগ দেবেন গ্রেগ চ্যাপেলও।

রডনি মার্শের নির্বাচক কমিটিতেও ছিলেন ট্রেভর হন্স, ২০১৪ সাল থেকে। তবে তার সবচেয়ে বড় পরিচয় অস্ট্রেলিয়ার সোনালি সময়ের নির্বাচক কমিটির প্রধান ছিলেন তিনি। ১৯৯৩ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত টানা ১৩ বছর ছিলেন অস্ট্রেলিয়া দলের নির্বাচক কমিটিতে। এর মধ্যে ১০ বছর ছিলেন নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যান।

তার আমলেই টানা ১৬ টেস্ট জয়ের রেকর্ড গড়েছিল অস্ট্রেলিয়া। তার আমলেই ১৯৯৯ এবং ২০০৩ বিশ্বকাপ জিতেছিল অস্ট্রেলিয়ানরা। ২০১৪ সাল থেকে নির্বাচক কমিটিতে থাকলেও ট্রেভর হন্স কুইন্সল্যান্ডের ন্যাশনাল ট্যালেন্ট হান্টিং ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তবে এবার সব দায়-দায়িত্ব ছেড়ে এসে পুরোপুরি অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের জন্য কাজ করবেন তিনি।

গ্রেগ চ্যাপেল আর আগেও দু’বার ছিলেন নির্বাচক কমিটিতে। একবার খেলোয়াড় হিসেবে অবসর নেয়ার পরপরই ১৯৮৪ থেকৈ ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত। আরেকবার দায়িত্ব পালন করেন ২০১০ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত।

এ সম্পর্কিত আরও