Mountain View

চুরি আর দুর্নীতি কমাতে জুটমিলগুলো বেসরকারী করা হচ্ছে -বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২০, ২০১৬ at ৭:৪৩ অপরাহ্ণ

38875_129নরসিংদী প্রতিনিধিঃ বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম বলেছেন, বাংলাদেশের প্রধান অর্থকরী ফসলগুলোর মধ্যে প্রধানত পাটকে বুঝানো হতো। এই পাট দিয়ে দেশের ও দেশের বাইরে থেকে প্রচুর পরিমানে মুদ্রা আহরন করা হতো।

এই পাট দিয়েই আবার দেশের বড় বড় জুটমিলগুলো পরিচালিত হতো, সেখানে লক্ষ লক্ষ শ্রমিকের কর্মসংস্থানের মাধ্যমে তাদের সংসার পরিচালতি হতো। কিন্তু দেশের বেশকটি জুটমিল লোকসানের ফলে একের পর এক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এর কারণ হিসেবে খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, জুটমিলে কোনো লোকসান হয়না। চুরি আর দুর্নীতির কারনে লোকসান দেখানো হয়।

তাই সরকার এই জুটমিল গুলোকে বেসরকারীকরণের চিন্তুা ভাবনা করছেন। রবিবার বিকেলে নরসিংদীর পলাশ কো-অপারেটিভ জুটমিল পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য প্রকাশ করেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী মির্জা আজম। এসময় তিনি আরো বলেন, দেশের প্রাইভেট জুটমিল গুলোতে তো কোনো লোকসান হয়না। সরকারী জুটমিলে লোকসান হবে কোনো? বরং তারা একটি মিল থেকে আরো কয়েকটি মিলে রুপান্তরিত করছে।

দেশের সরকারী মিলগুলো লোকসানের একমাত্র কারণ চুরি আর দুর্নীতি। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে সেই চুরি আর দুর্নীতি বন্ধ করছে। দেশের বন্ধ মিল মিলগুলো চালুকরনের বিষয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলোচনা করে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা কো-অপারেটিভ জুটমিলসহ অন্যান্য মিলগুলো চালুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

এসময় সাথে ছিলেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রালয়ের সচিব এম এ কাদের সরকার, স্থানীয় এমপি কামরুল আশরাফ খান পোটন, পলাশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ারুল আশরাফ খান দিলিপ, পলাশ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ জাবেদ হোসেন, কো-আপারেটিভ জুটমিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রকিবুজ্জামান, সমবায় রেজিষ্টার মফিজ উদ্দিন প্রমূখ

এ সম্পর্কিত আরও