Mountain View

ভোরে উঠেই গ্রামের খোজখবর নিলেন ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২০, ২০১৬ at ৩:৫৪ অপরাহ্ণ

fb_img_1479634807770

ফুল হাতা টি-শার্ট। মাথায় ক্যাপ। পায়ে কেডস্‌। কুয়াশায় মোড়ানো ভোরের আলোর সঙ্গে গ্রামের পথে হাঁটছেন ওবায়দুল কাদের। এখানে তিনি মন্ত্রী বা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নন।

এখানে তার পরিচয়, এই রাজপুর গ্রামে তিনি জন্মেছেন। নোয়াখালী জেলার কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার গ্রামটিতেই ওবায়দুল কাদেরের বাড়ি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় সংবর্ধনা নিতে নিজ জেলায় গিয়ে গত দু’দিন ধরে বাড়িতে অবস্থান করছেন তিনি।

হাঁটতে হাঁটতে পথের ধারে দোকানের গরম গরম রুটি আর লাল চায়ে চুমুক দিচ্ছেন। সঙ্গী তখন গ্রামের মানুষই। সামনে পরিচিত যাকে পাচ্ছেন, তাকেই কাছে টেনে নিচ্ছেন।

রোববার (২০ নভেম্বর) ভোরে মাটি ও মানুষের সঙ্গে তার মিশে যাওয়ার চিত্র ছিল এমনই।

দেখা গেছে, তিনি হাত মেলাচ্ছেন সাধারণ মানুষের হাত টেনে ধরে। আবার গ্রামের খেটে খাওয়া মানুষের কাঁধে হাত রাখছেন। মনোযোগী শ্রোতা হয়ে তাদের কথা শুনছেন। পথে হাঁটতে গিয়ে তার সঙ্গী হচ্ছেন তরুণ-বৃদ্ধ সবাই।

হেঁটে হেঁটে গ্রামের মসজিদে পৌঁছে যান ওবায়দুল কাদের। এখানে খুব ভোরে কোরআন শরীফ পড়তে আসা শিশু-কিশোরদের সঙ্গে ছবিও তোলেন।

সকাল ৭টার মধ্যে গ্রামের পথঘাট হেঁটে আবার বাড়ি ফিরেছেন। এরপরই ঢু মেরেছেন অনলাইন দুনিয়ায়। ফেসবুকে লিখেছেন, ‘গুড মর্নিং, মাই সুইট ভিলেজ’।

রোববারই ঢাকায় ফিরবেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, ‘মানুষের মনের ভাষা বুঝতে হবে। আওয়ামী লীগ নেতাদের আচরণে পরিবর্তন আনতে হবে’।

এটি তার সেই বক্তব্যের প্রতিফলন বলে ফেসবুকে এরই মধ্যে মন্তব্য জুড়ে দিয়েছেন একজন ফেসবুক ফলোয়ার।

ওবায়দুল কাদের প্রতিদিন ভোর সাড়ে ৫টার মধ্যে ঘুম থেকে ওঠেন। দেশের ছাত্র সমাজকেও প্রতিদিন ভোর সাড়ে ৫টার মধ্যে ঘুম থেকে উঠতে বলেছেন তিনি।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View