ঢাকা : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, মঙ্গলবার, ৬:২৬ পূর্বাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
প্রচ্ছদ > বিনোদন > বাংলার সানি লিওনদের রুখবে কে?

বাংলার সানি লিওনদের রুখবে কে?

tmpsnapshot1479656266105বিনোদন ডেস্কঃ ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আকর্ষণীয় ও খোলামেলা ছবি পোস্ট করার মাধ্যমে উঠতি বয়সী মেয়েদের একটা বড় অংশই ইদানিং অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িয়ে পড়ছে। অনুসন্ধানে পাওয়া গেছে এ চক্রেরই এক সদস্যের নানা কৃর্তী। 
 
যুগের সাথে তাল মিলিয়ে বিদেশী মডেলদের মত বাংলাদেশি নারী মডেলরাও নগ্নফটোশ্যুট করে মিড়িয়ায় উপস্থাপন করছে। সবার আইডল সানি লিওন। গতবছর পর্ন এই তারকার বাংলাদেশে আগমন উপলক্ষে কিছু মডেল চারা দিয়ে উঠছে নগ্ন উপস্থাপনায়। তাহলে বাংলার সানি লিওনদের রুখবে কে?
 
নায়লা নাঈম সবার প্রথম দৃষ্টি নন্দন খোলামেলা ফটোশ্যুট করে নিন্দুকের মুখে লাগাম দিয়েছেন। এরপর তালিকায় আছেন জ্যাকুলিন মিথিলা। আর সম্প্রতি তৃণ চলে এসেছেন। এসেছেন রেশমী এলোন সহ অনেকে।
 
শোভা শাহরিয়ার। বয়স ২৩। ফর্সা, গড়নে স্লিম। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী।লেখাপড়ার পাশাপাশি ২০১৩ সালের শেষ দিকে নাম লেখান মডেলিংএ। উচ্চাভিলাসী শোভার শুরুটা স্টিল ফটোগ্রাফির মডেল হিসেবেই। অল্প সময়েই তিনি সখ্যতা গড়ে তোলেন উচ্চবিত্ত ও প্রভাবশালীদের সাথে। আসক্তি বাড়ে মাদকে। টাকার লোভে নিজেকে বিলিয়ে দেন উচ্চবিত্তদের মাঝে। দিনে দিনে মডেলিং এর আড়ালে হয়ে ওঠেন কর্লগার্ল। তথ্য আছে রাজধানীর একটি হাসপাতালে একাধিকবার অ্যাবরশন করিয়েছেন তিনি। সময়ের সাথে সাথে তার যোগাযোগ হয় দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সালের অক্টোবরে পরিচয় হয় প্রবাসী ধনাঢ্য এক ব্যবসায়ীর সাথে। মিউজিক ভিডিও শ্যুটিংয়ের নামে তার সাথে চলে যান সমূদ্র শহর কক্সবাজারে। শ্যুটিংয়ের ফাঁকে অভিজাত হোটেলে তিন রাত চার দিন আয়েশি সময় কাটে শোভার। এক পর্যায়ে ওই ব্যবসায়ীর সাথে অপ্রস্তুত অবস্থায় আপন ছোট ভাই এর কাছেই হাতে নাতে ধরা পড়েন মডেল শোভা। তবে কূট কৌশলে পরিস্থিতি সামাল দেন তিনি। প্রযোজক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে উল্টো ধর্ষণের অভিযোগ এনে হাতিয়ে নেন নগদ অর্থ ও দামি মোবাইল। ঘটনা প্রকাশ পায় শ্যুটিং ইউনিটেরই এক সদস্যের মাধ্যমে। 
 
এর পর শুরু হয় বিত্তবানদের ব্যক্তিগত বিভিন্ন মুহূর্তের ছবি তুলে, ভিডিও ধারণ করে ব্লাকমেইলিংয়ের মাধ্যমে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেয়ার নতুন পদ্ধতি। খোলামেলা ছবি আপ করে ক্লায়েন্ট ধরতে ব্যবহার করছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুককে। পার্টি গার্ল হিসাবে অংশ নিচ্ছেন ডিজে পার্টিতে। জড়িয়ে পড়েন নিষিদ্ধ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়। কলগার্ল সাপ্লাইয়ারের অভিযোগও আছে তার বিরুদ্ধে। ঠিকানা পরিবর্তণের মাধ্যমে রাজধানীর নতুন নতুন এলাকায় চলে তার ছল চাতুরী, নষ্টামী ও মাদকের ব্যবসা। এসব কাজে জুড়ি নেই তার। মাদক ব্যবসা, সেবন ও অসামাজিক কাজের অভিযোগে ২২ আগস্ট মিরপুরের নিজ বাসায় সহযোগীদের সাথে আটক হন শোভা। তিন দিনের কারাদণ্ড দেয় ভ্রাম্যমান আদালত। 
 
বর্তমানে বসুন্ধরা জি ব্লকে চলছে তার রমরমা ব্যবসা। রাগে, ক্ষোভে ও ঘৃণায় বাবা-মা ও বড় ভাই দুরে সরে গেলেও অনৈতিক কাজ ধামাচাপা দিতে কৌশলে নিজের কাছে রেখেছেন ছোট ভাইকে। প্রশাসন এখনই ব্যবস্থা না নিলে এ অপরাধের জাল আরো বিস্তৃত হবে, নষ্ট হবে যুব সমাজ। এমন শঙ্কা বিশিষ্টজনদের।

এ সম্পর্কিত আরও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *