ঢাকা : ২১ জানুয়ারি, ২০১৭, শনিবার, ৪:৪১ অপরাহ্ণ
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site

নোটবাতিল ইস্যুতে মোদী যা বললেন, তাতে আপনার চোখে জল এসে যেত পারে!

a82113415a1ea815f248b6fd00b60106x281x180x6আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নোটবাতিল ইস্যুতে এই প্রথম নিজের দলের সাংসদদের সামনে দাঁড়িয়ে অবস্থান ব্যাখ্যা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি যা বলেছেন, তাতে বৈঠকে হাজির অধিকাংশ সাংসদই আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন।

নোট বাতিল ইস্যুতে কিছুদিন আগেই দলকে অস্বস্তিতে ফেলেছিলেন রাজস্থানের বিজেপি বিধায়ক ভবানী সিংহ রাজাওয়াত। তাঁর অভিযোগ ছিল, নোট বাতিল একটা বাজে সিদ্ধান্ত। এই সিদ্ধান্ত ঘোষণার বহু আগে থেকেই তা নাকি জানতেন মুকেশ অম্বানী এবং আদানি। নোটবাতিল ইস্যু জনগণের চোখে ধূলো দেওয়া ছাড়া আর কিছুই নয় বলেও মন্তব্য করেছিলেন ভবানী। রাজস্থানের এই বিধায়ক ছাড়াও মোদী সরকারের বহু মন্ত্রীই আড়ালে-আবডালে এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছিলেন।

অবশেষে, নরেন্দ্র মোদী মঙ্গলবার যা করলেন তাতে এরপর থেকে

নোটবাতিল ইস্যুতে আড়ালে-আবডালে কথা বলার আগে চোদ্দবার ভাববেন বলেই মনে করা হচ্ছে। এদিন সংসদ অধিবেশন শুরুর আগে সংসদ ভবনে দলীয় সাংসদদের নিয়ে বৈঠকে বসে বিজেপি। যেখানে হাজির ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দলীয় সাংসদদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মোদী বলেন, ‘বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি নোটবাতিল নিয়ে জনগণকে ভুল বোঝাচ্ছে, এই প্রচারের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে হবে।’ সেইসঙ্গে মোদী বলেন, ‘এটা সবে শুরু। দুর্নীতির গভীরে গিয়ে তাকে উৎপাটিত করতে হলে আরও নিরন্তর লড়াই চালাতে হবে।’ মোদী এ-ও বলেন, ‘দুর্নীতি, জালনোট, কালো টাকার চাপে মধ্যবিত্ত শ্রেণি থেকে গরিব মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছে।’ ‘ডিমনিটাইজেশন’ বা ‘নোটবাতিল’ -এর মতো সিদ্ধান্ত আখেরে গরিব, মধ্যবিত্তদের উপকার করবে বলেই বৈঠকে দাবি করেন মোদী। দেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী করতে সমস্ত রকমের দুর্নীতিকে ছুঁড়ে ফেলা হবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

বৈঠকে মোদী দলীয় সাংসদদের কাছে পরিষ্কারভাবেই জানতে চান যে কারা কারা অর্থনীতির এই সংস্কারে দেশবাসীর পাশে রয়েছেন? যাঁরা পাশে দাঁড়াবেন না মনে করা হবে, তাঁরা কালো টাকার দুর্নীতিবাজদের সঙ্গেই থাকতে চান। এর পরে বৈঠকে হাজির সমস্ত বিজেপি সাংসদই উঠে দাঁড়িয়ে মোদীকে ‘স্ট্যান্ডিং ওভেশন’ দেন। এমনকী, প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের সমর্থনে বৈঠকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় একটি ‘রেজলিউশন’ও পাশ করেন বিজেপি সাংসদরা।

মোদী জানান, এটা সবে লড়াই-এর শুরু। ইতিমধ্যেই কালোটাকার উপর নজরদারিতে এবং আয়ের হিসাব রাখতে সিট তৈরি করা হয়েছে।-এবেলা

এ সম্পর্কিত আরও

Best free WordPress theme

কম খরচে আপনার বিজ্ঞাপণ দিন। প্রতিদিন ১ লাখ ভিজিটর। মাত্র ২০০০* টাকা থেকে শুরু। কল 016873284356

Check Also

আন্দোলনে ফিরছে জাল্লিকাট্টু, কিন্তু মানবিকতা কোথায়?

স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীর সমর্থন বাক্য সোশাল মিডিয়ায় জ্বলজ্বল করছে। জাল্লিকাট্টুর ঐতিহ্য ফিরে আসা আর মাত্র কিছু …