Mountain View

খাটের নিচের ৪৮ লাখ রুপি নিয়ে বিপদে সরকারি প্রকৌশলী

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২৩, ২০১৬ at ১১:২৩ অপরাহ্ণ

মারাত্মক এক বিপদে পড়েছেন সরকারি এক প্রকৌশলী। ঘুষের অর্থ নিয়ে তার এই বিপদ। এখন তিনি লাখ লাখ টাকা হারাতে বসেছেন। যিনি কিনা ঘুষ নেয়াকে বৈধ করে নিয়েছিলেন।
তার মতে সরকারি চাকরি করতে হলে তো ঘুষ নিতেই হয়। আর এটা নিষিদ্ধ নয়। কারণ ঘুষ তো শুধু নিজের জন্য নিচ্ছি না। ঘুষের অর্থ দিয়ে বড় কর্মকর্তাদের উপহার দিতে হয়। এতে দামি উপহার পেয়ে তারা খুশি হন। আর তারও উন্নতি হয়। তাই ওই প্রকৌশলীর কথা, এখন এই উপহার কি আমি নিজের অর্থে কিনব? তা তো কখনই হতে পারে না।
এই যুক্তিতে ঘুষ নেয়াকে বৈধ করা ভারতের ওই প্রকৌশলী এখন টাকা হারানোর চিন্তায় রয়েছেন। কারণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৫০০ আর ১০০০ রুপির নোট বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে তার এই বিপদের কথা জানিয়েছেন বার্তা সংস্থা এপিকে। বুধবার টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
প্রতিবেদনে বলা হয়, ৬ নভেম্বর রাতে যখন ওই প্রকৌশলী যোগাসনে মগ্ন ছিলেন, ঠিক সেই সময় তার এক বন্ধু তাকে ফোন করে বলেন টিভি চালু করতে। টিভি চালু করতেই জাতির উদ্দেশে নরেন্দ্র মোদির ভাষণ শোনেন তিনি। রাত ১২টা থেকেই বাতিল করে দেয়া হচ্ছে ৫০০ আর ১০০০ রুপির নোট। এছাড়া কেউ যদি এই দুই মাসে আড়াই লাখ রুপি জমা করেন, তাকে কর কাঠামোর আওতায় আনা হবে। এমন কথায় তার মাথায় হাত।
কারণ তখন ওই প্রকৌশলীর ঘরের খাটের নিচে টিনের একটি বাক্সেই আছে ৪৮ লাখ রুপি। যা তিনি বিভিন্ন সময় ঘুষ হিসেবে পেয়েছেন। আর এই কালোটাকা তিনি ব্যাংকেও জমা দেননি। ব্যাংকে জমা দিলে যে কর দিতে হবে, কিন্তু তা তো দেয়ার প্রশ্নই উঠে না।
এদিকে দুই মাসের মধ্যে ব্যাংক থেকে ৫০০ আর ১০০০ রুপি বদল করে নিতে বলেছে ভারতের সরকার। কিন্তু এই অর্থ ব্যাংকে জমা করতে গেলেই যে ধরা পড়বেন তিনি।
ওই প্রকৌশলী জানান, শুধু তিনি নন, সরকারের এ সিদ্ধান্তে মাথা খারাপের মতো অবস্থা তার বন্ধুদের। যারা প্রতিনিয়তই ঘুষ নেন।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View