Mountain View

ট্রেন থেকে ছুঁড়ে ফেলা হচ্ছে ৫০০-১০০০ টাকার বান্ডিল! টাকা কুড়াতে রেল লাইনে গোটা গ্রামের মানুষ

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২৭, ২০১৬ at ৭:২১ অপরাহ্ণ

c8d46453046f029e31c9fbbbefac1c8ex600x400x46সাত সকালেই গ্রামে ছড়িয়ে পড়েছিল গুজব। আর সেই গুজবে কান দিয়েই রেল লাইনের পাশে ভিড় জমালেন গ্রামবাসীরা। তবে গ্রামবাসীদেরও দোষ নেই। ট্রেনের থেকে নাকি ৫০০-১০০০ টাকার বান্ডিল ছুঁড়ে ফেলা হচ্ছে৷ গ্রামের কয়েকজন নাকি তা কুড়িয়েও পেয়েছে। এর পরে তো আর ঘরে বসে থাকা যায় না!

এই গুজব শুনে শনিবার বেলা ১১টা থেকে ট্রেন লাইনের ধারে ভিড় জমাতে থাকে গ্রামবাসীরা। গুজব পুলিশের কানে পৌঁছলে, তা খতিয়ে দেখতে তারা হাজির ট্রেন লাইনের ধারে৷ তবে প্রত্যক্ষভাবে টাকা কুড়ানো কাউকেই খুঁজে পায়নি পুলিশ৷ কিন্তু গ্রামবাসীদের দাবি, গ্রামের অনেকেই টাকা কুড়িয়ে সরে পড়েছে।

পশ্চিম
মেদিনীপুরের কোতোয়ালী থানার অন্তর্গত কুতুরিয়া এলাকার মধ্যে দিয়ে গিয়েছে দক্ষিন-পূর্ব রেলের খড়্গপুর-আদ্রা রুট৷ শনিবার বেলা ১১টা নাগাদ এই লাইনের উপর দিয়ে যায় শালিমার-পুরুলিয়া এক্সপ্রেস৷ ওই সময়ে ভাদুতলা রেল ক্রসিংয়ে কর্মরত রেলকর্মীরা লক্ষ্য করেন গ্রামবাসীদের অনেকেই ট্রেনের পিছনে পিছনে দৌড়চ্ছে এবং কিছু কুড়োচ্ছেও৷ এর পরেই রেল লাইনের উপরে ভিড় জমতে থাকে।

ক্রসিংয়ে থাকা রেলকর্মী মানুচন্দ্র হেমব্রম বলেন ‘আমি কাজ করার সময়ে লক্ষ্য করলাম গ্রামবাসীরা এক্সপ্রেস ট্রেনটির পিছনে দৌড়াচ্ছেন৷ তারা কিছু কুড়োচ্ছিলেন৷ কাজ ফেলে সেখানে গিয়ে দেখতে পারিনি৷ পরে শুনলাম ট্রেন থেকে নাকি টাকা ফেলা হয়েছে৷ এর পরেই রেল লাইনে পাশের গ্রামবাসীদের ভিড় বাড়তে থাকে। সকলেই লাইনের ধারে কিছু খোঁজার চেষ্টা করছিল।’

বেলা বারোটার মধ্যে খবর চাউর হতেই রেললাইনের পাশে ভিড় আরও বাড়তে থাকে। শেষ পর্যন্ত কোতোয়ালী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। বার বার ট্রেন যাতায়াতের সময়ে গ্রামবাসীরা অপেক্ষা করছিলেন কিছু পড়ার । তবে কেউই আর কিছু পায়নি৷ যাঁরা টাকা পাননি, তাঁদের অবশ্য দাবি প্রথমদিকে অনেকেই ৫০০ এবং ১০০০ টাকার নোট পেয়েছেন। পুলিশ অবশ্য এমন কারও খোঁজ পায়নি। গ্রামবাসীরা পুলিশের এই দাবি অবশ্য মানতে নারাজ।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View