Mountain View

ডিমলায় ভাড়া করা শিক্ষার্থী দিয়ে পিইসি পরীক্ষা আরো-১৭জন পরীক্ষার্থী বহিস্কার

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২৭, ২০১৬ at ৭:৫৩ অপরাহ্ণ

1223নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারীর ডিমলা প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় ৯ম থেকে ষষ্ঠ শ্রেনীর ভাড়া করা শিক্ষার্থীদের দিয়ে পরীক্ষা দেয়ার অভিযোগে রবিবার গনিত পরীক্ষায় উপজেলার ১৭ পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়েছে। চলতি বছর উপজেলার পিইসি পরীক্ষায় ৫২জনকে বহিস্কার করা হয়। ডালিয়া দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে সকল শিক্ষার্থীকে প্রশ্ন পত্রের উত্তর লিখে দিয়েছেন শিক্ষকগন।

রোববার আকাশকুড়ি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৭জন, ডালিয়া চাপানি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ১০ জনসহ ১৭জন বহিরাগত ভাড়া করা পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়েছে।
আকাশকুড়ি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে বহিস্কৃতরা হলেন রিফাত হাসান (৪৬০৮), বেলাল হোসেন (৪৬০৯), আনিতা আক্তার (৪৬১৩) , আপন চন্দ্র রায় (৪৬৩২), সত্যজিৎ রায় (৪৬৩৩), তারেক রহমান (৪৬৩৪), সোহেল রানা (৪৬৩৫)। ডালিয়া চাপানি উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে বহিস্কৃতরা হলেন রাসেল রানা (৫৬১১), শরীফ হোসেন (৫৬৫৩), শাহরিন ইসলাম (৫৬৫৪), আক্তার নুর শ্যামলী (৫৬৫৮), সুমাইয়া আক্তার (৫৬৫৯), আব্দুর রফিক (৫৬৬১), লাভলু ইসলাম (৫৬৬৩), রোকনুজ্জামান (৫৬৬৪), হাসি আক্তার (৫৬৬৭) ও খুশি আক্তার (৫৬৬৮)।

অভিযোগে জানা যায় উপজেলার ২৮টি নব্য বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন করে ভাল রেজাল্ড করার লক্ষে ৬ষ্ট থেকে ৯ম শ্রেনীর ছাত্রদের ভাড়া করে প্রাথমিক সমাপনি পরীক্ষায় ৩ শতাধিক পরীক্ষার্থী অংশ্রহন করছে। প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসন ইতিমধ্যে ৫২ জনকে বহিস্কার করলেও বিপুল সংখ্যক বহিরাগত সমাপনী পরীক্ষায় থাকল মর্মে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার রবিউল ইসলাম নিশ্চিত করেন ।
সরেজমিনে, ডালিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, রোববারের গনিত পরীক্ষায় প্রতিটি পরীক্ষার্থীর প্রশ্নে সঠিক উত্তর ঠিক দেয়া রয়েছে। পরীক্ষাথীরা জানায় স্কুলের স্যাররা প্রশ্ন দেয়ার পরে এসে প্রশ্নপত্র সঠিক করে দেয়। উক্ত কেন্দ্রের হল সুপার ও ডালিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোসলেম উদ্দিন বলেন, পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্রে শিক্ষক সঠিক উত্তর করে দেয়ার ফলে তাদের মেধা যাচাই করার সুযোগ তৈরি হচ্ছে না। সমাপনি পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীরা ভাল রেযাল্ড করলেও মেধা যাচাই করার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এ ব্যাপারে উক্ত কেন্দ্রের দায়িত্বরত সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা সাজ্জাদুর রহমান কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

অভিযোগ মতে নতুন প্রতিষ্ঠিত ২৮টি বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেনীর কোন ছাত্র ছাত্রী না থাকায় এবং বিদ্যালয়ের সমাপনী পরীক্ষায় ছাত্র/ছাত্রী অংশ নিয়েছে এটি দেখানোর কৌশল হিসাবে ৯ম, ৮ম, সপ্তম ও ৬ষ্ঠ শ্রেনীতে পড়ে এমন শিক্ষার্থীকে ভাড়া করে পরীক্ষায় অংশ নেয়ার ব্যবস্থা করে নিজের প্রতিষ্ঠানের রেজাল্ড ভাল করার লক্ষে এ কাজ করছে। গোপনে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও শিক্ষা অফিসারকে অবগত করে একটি পক্ষ।
ওই গোপন সংবাদে তদন্ত করতে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়ে ৫২ জন পরীক্ষার্থীকে বহিস্কার করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানায়, ৫২জন শিক্ষার্থীদের বহিস্কারের পাশাপাশি উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রশ্নপত্রে সঠিক করা ও গন্ডগোলের কারন ৯জন শিক্ষককে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও

Mountain View