পুড়িয়ে ছাই করা হবে ফিদেল কাস্ত্রোর মরদেহ!

প্রকাশিতঃ নভেম্বর ২৭, ২০১৬ at ৭:১৪ অপরাহ্ণ

c8d46453046f029e31c9fbbbefac1c8ex600x400x46ফিদেল কাস্ত্রোর নেতৃত্বে ১৯৫৯ সালে কিউবার মাটিতে সূচিত হয় বৈপ্লবিক পরিবর্তন। সামরিক শাসক জেনারেল বাতিস্তাকে ক্ষমতাচ্যুত করার পরের পাঁচদশক কিউবার রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় ছিলেন তিনি। কিউবাকে ‘সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র’ ঘোষণা করেন ফিদেল। কিউবার সেইবিপ্লবী নেতা স্থানীয় সময় গত শুক্রবার রাতে হাভানায় তিনি মারা যান।

কাস্ত্রোর শেষ ইচ্ছানুযায়ী তার মরদেহ পোড়ানো হবে। রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি
(রাশিয়া টুডে) কিউবার রাষ্ট্রীয় সূত্রের বরাত দিয়ে এ কথা জানিয়েছে। কিউবার প্রেসিডেন্ট রাউল কাস্ত্রো জানান, ‘কমরেড ফিদেলের শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী, তার মরদেহ পুড়িয়ে ছাই করা হবে।’

কমিউনিস্ট বিপ্লবের কিংবদন্তী কাস্ত্রোর মৃত্যুতে ৯ দিনের শোক পালনের ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। ৪ ডিসেম্বর সান্তিয়াগো ডে কিউবাতে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

কিউবার সমাজতান্ত্রিক বিপ্লবে নেতৃত্ব দেওয়ার পর ১৯৫৯ সালে ফিদেল কাস্ত্রো দেশটির ক্ষমতা গ্রহণ করেন। যুক্তরাষ্ট্রের নাকের ডগায় বামপন্থী নেতৃত্বের উত্থান ভালোভাবে নেয়নি দেশটি। কাস্ত্রোকে বহুবার হত্যাচেষ্টা করা হয়। সৌভাগ্যক্রমে তিনি বেঁচে যান। স্বাস্থ্যগত কারণে ২০০৬ সাল থেকে কাস্ত্রোর জনসমক্ষে আসা কমতে থাকে। ২০০৮ সালে ভাই রাউল কাস্ত্রোর কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করেন তিনি। অনেক দিন ধরেই ফিদেলকে জনসমক্ষে কম দেখা যেত।

এ সম্পর্কিত আরও